Advertisement
০৮ ফেব্রুয়ারি ২০২৩
Saket Gokhale

সাকেত গোখলে আবার গ্রেফতার, জামিন পাওয়ার কিছু সময় বাদেই ধৃত তৃণমূলের জাতীয় মুখপাত্র

বৃহস্পতিবারই জামিন পেয়েছিলেন তৃণমূলের জাতীয় মুখপাত্র সাকেত গোখলে। জামিন পাওয়ার কিছু সময় পরই তাঁকে আবার গ্রেফতার করা হয়েছে বলে দাবি করেছে তৃণমূল।

জামিন পাওয়ার পরই আবার সাকেত গোখলেকে গ্রেফতার করল গুজরাত পুলিশ।

জামিন পাওয়ার পরই আবার সাকেত গোখলেকে গ্রেফতার করল গুজরাত পুলিশ। ফাইল চিত্র।

নিজস্ব সংবাদদাতা
আমদাবাদ শেষ আপডেট: ০৮ ডিসেম্বর ২০২২ ২২:১২
Share: Save:

জামিন পাওয়ার কয়েক ঘণ্টার মধ্যেই আবার গ্রেফতার করা হল তৃণমূলের জাতীয় মুখপাত্র সাকেত গোখলেকে। দলের নেতাকে হেনস্থা করা হচ্ছে বলে সরব হলেন তৃণমূলের ডেরেক ও’ব্রায়েন। গুজরাতের মোরবীতে সেতু বিপর্যয় নিয়ে একটি টুইট করার অভিযোগে মঙ্গলবার রাতে গ্রেফতার করা হয়েছিল সাকেতকে। বৃহস্পতিবার সেই মামলায় জামিন পান তৃণমূল নেতা। তার পরই আবার তাঁকে গ্রেফতার করা হয়েছে বলে দাবি করেছেন তৃণমূল নেতা ডেরেক।

Advertisement

বৃহস্পতিবার রাত ৯টা ১৫ মিনিটে টুইটারে ডেরেক লিখেছেন, ‘‘জামিন পাওয়ার পরও সাকেত গোখলে ও তৃণমূলকে হেনস্থা করছে গুজরাত পুলিশ। বৃহস্পতিবার রাত ৮টা ৪৫ মিনিটে আবার তাঁকে গ্রেফতার করা হয়েছে।’’ ডেরেক আরও জানিয়েছেন যে, আমদাবাদে সাইবার থানা থেকে যখন বেরোচ্ছিলেন সাকেত, সে সময় বিনা নোটিস ও পরোয়ানাতেই সাকেতকে গ্রেফতার করে অজ্ঞাত জায়গায় নিয়ে গিয়েছে পুলিশের একটি দল। এই ঘটনায় নিন্দায় সরব হয়েছেন তিনি।

তবে ঠিক কোন অভিযোগে আবার সাকেতকে গ্রেফতার করা হল, তা স্পষ্ট নয়। প্রসঙ্গত, বৃহস্পতিবারই গুজরাতে বিধানসভা নির্বাচনের ফলপ্রকাশ হয়েছে। বিপুল ভোটে জিতে আবার মোদী রাজ্যের কুর্সিতে বসছে বিজেপি।

অন্য একটি টুইটে ডেরেক জানিয়েছেন যে, গুজরাত যাচ্ছেন তৃণমূল সাংসদরা। তৃণমূলের এই প্রতিনিধি দলে থাকবেন দোলা সেন, খলিয়ূর রহমান, অসিত কুমার মাল, ডাঃ শান্তনু সেন এবং সুনীল কুমার মণ্ডল। সেই সঙ্গে তাঁর অভিযোগ, মোরবী সেতু বিপর্যয়ে এখনও কাউকে গ্রেফতার করা হয়নি। অথচ একাধিক ভুয়ো মামলায় ফাঁসানো হচ্ছে সাকেতকে।

Advertisement

এর আগে, গত মঙ্গলবার রাত ২টো নাগাদ রাজস্থানের বিমানবন্দর থেকে গ্রেফতার করা হয়েছিল তৃণমূলের জাতীয় মুখপাত্রকে। এ কথা টুইট করে সে বার জানিয়েছিলেন ডেরেক। গুজরাত পুলিশের হাতে সাকেতের গ্রেফতারি নিয়ে সুর চড়ান তৃণমূল নেতৃত্ব। সাকেতের গ্রেফতারিতে ধিক্কার জানান রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়।

পুলিস সূত্রে জানা গিয়েছিল, সাকেত টুইটে সংবাদপত্রের একটি প্রতিবেদনের ছবি তুলে দিয়েছিলেন। প্রতিবেদনে লেখা ছিল, ‘‘আরটিআই করে জানা গিয়েছে, প্রধানমন্ত্রীর মোরবী পরিদর্শনের জন্য খরচ পড়েছে ৩০ কোটি টাকা।’’ প্রেস ইনফরমেশন ব্যুরো ১ ডিসেম্বর জানিয়েছে, কোনও আরটিআইয়ের পরিপ্রেক্ষিতে এ ধরনের কোনও জবাব দেওয়া হয়নি। গুজরাত পুলিশের অভিযোগ, প্রধানমন্ত্রীর মোরবী পরিদর্শন নিয়ে মিথ্যা অভিযোগ করেছেন সাকেত। তৃণমূল নেতা দাবি করেছেন, মোদীর মোরবীর ঘটনাস্থল পরিদর্শনের জন্য গুজরাত সরকারের খরচ হয়েছে ৩০ কোটি টাকা। সেতু ভেঙে মৃতদের পরিবারকে যা ক্ষতিপূরণ দেওয়া হয়েছিল, তার ছ’গুণ। পুলিশের একটি সূত্রের অভিযোগ, নিজের দাবির স্বপক্ষে প্রমাণ দিতে সাকেত ভুয়ো নথি পোস্ট করেছিলেন সমাজমাধ্যমে।

(সবচেয়ে আগে সব খবর, ঠিক খবর, প্রতি মুহূর্তে। ফলো করুন আমাদের Google News, Twitter এবং Instagram পেজ)
Follow us on: Save:
Advertisement
Advertisement

Share this article

CLOSE
Popup Close
Something isn't right! Please refresh.