Advertisement
০৩ ডিসেম্বর ২০২২
Indian Railways

Indian Railways: লোকাল ট্রেনের টিকিট কাটায় নতুন সুবিধা, যাত্রীদের বাড়তি সুযোগ দিতে চাইছে রেল

কাগজের টিকিট দরকার নেই। ট্রেনে টিকিট পরীক্ষককে অ্যাপে কাটা টিকিট দেখালেই কাজ হয়ে যায়। সেই সময় ইন্টারনেট বন্ধ থাকলেও।

লোকাল ট্রেনের টিকিট কাটায় নতুন সুবিধা আনল রেল।

লোকাল ট্রেনের টিকিট কাটায় নতুন সুবিধা আনল রেল। ফাইল চিত্র

নিজস্ব সংবাদদাতা
কলকাতা শেষ আপডেট: ২৯ সেপ্টেম্বর ২০২১ ১৪:৪৮
Share: Save:

লোকাল ট্রেনের টিকিট কাটার জন্য এখন অনেকেই কাউন্টারের লাইনে দাঁড়ান না। ব্যাবহার করেন মোবাইল অ্যাপ। ট্রেনের অংসরক্ষিত টিকিট কাটার ইউটিএস (আনরিজার্ভড টিকেটিং সিস্টেম) অ্যাপটি ব্যবহার করেন। এত দিন এই অ্যাপের মাধ্যমে টিকিট কাটতে একমাত্র ভরসা ছিল ইংরেজি ভাষা। এখন সেটা হিন্দিতেও সম্ভব। রেল সূত্রে জানা গিয়েছে, আগামী দিনে বিভিন্ন ভারতীয় ভাষায় টিকিট কাটার সুযোগ করে দিতেই এই উদ্যোগ নেওয়া হয়েছে। আপাতত হিন্দি দিয়ে ভারতীয় ভাষা ব্যবহারের যাত্রা শুরু করল রেল।

Advertisement

এত দিন শুধুমাত্র ইংরেজি ভাষাতেই এই অ্যাপ ব্যবহারের সুযোগ থাকায় অনেকেই তা এড়িয়ে যেতেন। রেল মনে করছে, এ বার আরও অনেক যাত্রী ইউটিএস অ্যাপ ব্যবহারে আগ্রহী হবেন। এই অ্যাপের মাধ্যমে টিকিট কাটলে শর্তসাপেক্ষে কিছুটা আর্থিক সুবিধাও পান যাত্রীরা। সেই সব সুবিধাও পাবেন যাঁরা হিন্দি ভাষা ব্যবহারে বেশি স্বচ্ছন্দ। করোনা পরিস্থিতিতে রেল চাইছে বেশি করে মানুষ ইউটিএস অ্যাপ ব্যবহার করুন। রেলের দাবি, ইতিমধ্যেই প্রায় দেড় কোটি যাত্রী নিজেদের মোবাইল ফোনে এই অ্যাপ ডাউনলোড করেছেন।

করোনাকালে এই অ্যাপ ব্যবহারে মানুষকে উৎসাহিত করার পিছনে রেল তিনটি বিষয়ের উপরে জোর দিচ্ছে। প্রথমত এই পদ্ধতিতে যাত্রীকে নগদ টাকায় টিকিট কাটতে হয় না, দ্বিতীয়ত টিকিটের জন্য লাইনে দাঁড়ানোর ঝুঁকি নিতে হয় না, তৃতীয়ত যাত্রীরা নিজেদের সুবিধা মতো বাড়ি থেকে বা স্টেশনে আসার পথেও টিকিট কেটে নিতে পারেন। এর ফলে শেষ মুহূর্তে স্টেশনে পৌঁছে ট্রেন ধরার সমস্যা কমবে। প্রসঙ্গত এই অ্যাপের মাধ্যমে সাধারণ টিকিটের পাশাপাশি প্লাটফর্ম টিকিট এবং সিজন টিকিট (মান্থলি বা কোয়ার্টারলি) কাটা বা রিনিউ করা যাবে।

এই অ্যাপ ব্যবহার করলে কাগজের টিকিট দরকার নেই। ট্রেনে টিকিট পরীক্ষককে অ্যাপে কাটা টিকিট দেখালেই কাজ হয়ে যায়। যদি সেই সময়ে ইন্টারনেট বন্ধ থাকে তবেও টিকিট দেখানো যায়। যে কোনও রকম ডেবিট বা ক্রেডিট কার্ড, নেট ব্যাঙ্কিং, ইউপিআই, ই-ওয়ালেট এবং রেল ওয়ালেট ব্যবহার করে নগদ লেনদেন ছাড়াই টিকিট কাটা যায়। রেল ওয়ালেট ব্যবহার করলে ৫ শতাংশ বাড়তি আর্থিক সুবিধাও মেলে। অর্থাৎ, এক হাজার টিকিট কাটলে টিকিট কাটা যাবে ১ হাজার ৫০ টাকার।

Advertisement
(সবচেয়ে আগে সব খবর, ঠিক খবর, প্রতি মুহূর্তে। ফলো করুন আমাদের Google News, Twitter এবং Instagram পেজ)
Follow us on: Save:
Advertisement
Advertisement

Share this article

CLOSE
Popup Close
Something isn't right! Please refresh.