×

আনন্দবাজার পত্রিকা

Advertisement

১৬ এপ্রিল ২০২১ ই-পেপার

বাড়িতেই বাঙ্কার বানিয়েছিল বিকাশ, রাখা হত অস্ত্র-বিস্ফোরক

সংবাদ সংস্থা
কানপুর ০৫ জুলাই ২০২০ ১৮:০২
ভেঙে দেওয়া হয়েছে বিকাশ দুবের বাড়ি। তদন্তে পুলিশ। (ইনসেটে) বিকাশ দুবে।

ভেঙে দেওয়া হয়েছে বিকাশ দুবের বাড়ি। তদন্তে পুলিশ। (ইনসেটে) বিকাশ দুবে।

আট পুলিশকর্মী-অফিসার খুনে গ্যাংস্টার বিকাশ দুবেকে হন্যে হয়ে খুঁজছে পুলিশ। কিন্তু নাগাল পাওয়া যাচ্ছে না কিছুতেই। কোথায় পালাতে পারে বিকাশ? একাধিক সম্ভাবনার মধ্যেও উঠে আসছে, পুলিশকর্মীদের গুলি করে খুন করার জন্য এত অস্ত্র কোথায় পেল বিকাশ, সেই প্রশ্ন। সেই সূত্রেই উত্তরপ্রদেশ পুলিশের একটি সূত্র জানাচ্ছে, বিকাশ নিজের বাড়িতেই বানিয়ে নিয়েছিল বাঙ্কার। সেই বাঙ্কারই ছিল তার অস্ত্রাগার। শুধু আগ্নেয়াস্ত্রই নয়, প্রচুর বিস্ফোরক উদ্ধার হয়েছে বলে জানিয়েছে পুলিশ।

বৃহস্পতিবার রাতে কানপুরের বিকরু গ্রামে এই বিকাশ দুবেকে ধরতে গিয়েই গুলির মুখে পড়েন উত্তরপ্রদেশ পুলিশের কর্মী-অফিসাররা। পুলিশ কর্মীদের লক্ষ্য করে নির্বিচারে গুলি চালিয়েছে বিকাশের সাঙ্গোপাঙ্গরা। তাতে মৃত্যু হয় রাজ্যের এক ডেপুটি পুলিশ সুপার, তিন সাব-ইনস্পেক্টর ও চার কনস্টেবলের। ৮ পুলিশকর্মী-অফিসারকে খুনে অভিযুক্ত সেই বিকাশের খোঁজে এখন রাজ্যের সর্বত্র চষে ফেলছে স্পেশাল টাস্ক ফোর্স। কিন্তু ঘটনার তিন দিন পরেও অধরা কানপুরের ডন বিকাশ দুবে।

শনিবার বিকাশ দুবের বাড়ি ভেঙে গুঁড়িয়ে দিয়েছে প্রশাসন। সেই সময়ই বিপুল অস্ত্রশস্ত্র উদ্ধার হয়েছে বলে কানপুর পুলিশ সূত্রে খবর। ওই সূত্রে জানা গিয়েছে, বিকাশের বাড়িতে একটি বাঙ্কারের সন্ধান মিলেছে। সেখানে আগ্নেয়াস্ত্র ও বিস্ফোরক রাখত বিকাশ। কানপুরের আইজি মোহিত আগরওয়াল বলেছেন, ‘‘প্রচুর পরিমাণে বিস্ফোরক উদ্ধার হয়েছে। খুব শীঘ্রই এ বিষয়ে বিস্তারিত তথ্য জানানো হবে।’’

Advertisement

আরও পড়ুন: ৩ দিন পরেও অধরা বিকাশ, একশোটি জায়গায় তল্লাশি পুলিশের

আরও পড়ুন: ১০ হাজার শয্যা, ২৫০ আইসিইউ, দিল্লিতে ১২ দিনে তৈরি বিশ্বের সবচেয়ে বড় কোভিড হাসপাতাল

অন্য দিকে স্থানীয় সূত্র এবং ঘটনাস্থলে পাওয়া তথ্যপ্রমাণের ভিত্তিতে কানপুর পুলিশের দাবি, ঘটনার দিন অন্তত ২০০টি গুলি ছোড়া হয়েছিল। ওই এলাকা থেকে প্রচুর কার্তুজ উদ্ধার হয়েছে। একই সঙ্গে ওই দিন পুলিশের পাঁচটি আগ্নেয়াস্ত্রও লুঠ করে বিকাশের দলবল। একটি একে-৪৭ ও একটি ইনসাস রাইফেল এবং তিনটি পিস্তল ছিনিয়ে নিয়ে পালিয়ে যায় দুষ্কৃতীরা, জানিয়েছেন আইজি মোহিত আগরওয়াল।

Advertisement