• সংবাদ সংস্থা
সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে

হারলে দেশ ছাড়তে হবে আমাকে, প্রচারে বিঁধলেন ট্রাম্প, করোনা নিয়ে পাল্টা বাইডেনের

Trump-Biden
মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প (বাঁ দিকে) ও প্রেসিডেন্ট পদপ্রার্থী জো বাইডেন। —ফাইল চিত্র

অধিকাংশ সমীক্ষায় মার্কিন প্রেসিডেন্ট নির্বাচনে এগিয়ে জো বাইডেন। সেই আঁচে কি এ বার হাত পোড়ালেন ডোনাল্ড ট্রাম্প নিজেও? মার্কিন প্রেসিডেন্টের মুখে শোনা গেল হারের কথা। বলে বসলেন, হেরে গেলে তাঁকে দেশ ছাড়তে হতে পারে। ‘মার্কিন প্রেসিডেন্ট নির্বাচনের ইতিহাসে সবচেয়ে খারাপ’ প্রার্থী বলে বাইডেনকে উল্লেখ করে অবশ্য আক্রমণের ঝাঁঝ বিন্দুমাত্র কমাননি ট্রাম্প। প্রতিপক্ষের প্রার্থী বাইডেন যদিও প্রচারে হাতিয়ার করেছেন করোনা রোধে সরকারের ব্যর্থতাকেই।

শনিবার ট্রাম্পের প্রচার কর্মসূচি ছিল ফ্লোরিডা এবং জর্জিয়াতে। কয়েক দিন আগে ট্রাম্পের সঙ্গে সামনাসামনি বিতর্কে তাঁকে ডাহা মিথ্যুক বলে কটাক্ষ করেছিলেন বাইডেন। জবাবে ট্রাম্প এ দিন বাইডেনকে ‘অপরাধী’বলে পাল্টা খোঁচা দিয়েছেন। ‘অপরাধী’ বলে দেগে দিয়েছেন বাইডেনের পুরো পরিবারকেই।

মার্কিন প্রেসিডেন্ট নির্বাচনে এ বার অন্যতম ইস্যু অভিবাসী সঙ্কট। ট্রাম্প যে ভাবে অভিবাসীদের আটকাতে উঠে পড়ে লেগেছেন, নির্বাচনী প্রচারে তাকে হাতিয়ার করেছেন বাইডেন। তাতেও অবশ্য দমেননি ট্রাম্প। উল্টে আক্রমণ করেছেন, ডেমোক্র্যাটরা ক্ষমতায় এলে কমিউনিজম আমদানি করবেন। সেই সূত্রেই হেরে যাওয়া এবং দেশ ছাড়ার কথা বলেন মার্কিন প্রেসিডেন্ট। তিনি বলেন, ‘‘বাইডেন কমিউনিজম এবং অপরাধী অভিবাসীদের বন্যা বইয়ে দেবেন দেশে।’’

আরও পড়ুন: মার্কিন কংগ্রেসে ভারতীয় বংশোদ্ভূতদের সংখ্যা বৃদ্ধির সম্ভাবনা

কিন্তু তার পরেও সব কিছু তাঁর পক্ষে নাও যেতে পারে বলে আশঙ্কা প্রকাশ করে ট্রাম্প বলেন, ‘‘মার্কিন নির্বাচনের ইতিহাসে সবচেয়ে খারাপ প্রতিদ্বন্দ্বীর বিরুদ্ধে লড়াইয়েও চাপে পড়ে যাচ্ছি। আমি যদি হেরে যাই আপনারা কল্পনাও করতে পারবেন না, কি হতে পারে।’’ ট্রাম্প আরও যোগ করেন, ‘‘আমি কি করব? আমার মোটেই ভাল লাগবে না। আমাকে দেশ ছাড়তে হতে পারে।’’

আরও পড়ুন: ‘করোনার শিখর পেরিয়ে এসেছে দেশ, ফেব্রুয়ারিতে শেষ হবে অতিমারি’

জর্জ ফ্লয়েডের হত্যা ঘিরে উত্তাল হয়ে উঠেছিল গোটা মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র। বর্ণবিদ্বেষের আগুন জ্বলেছিল গোটা দেশে। তার পরেও সেই বিষয়টি নিয়ে নমনীয় মনোভাব দেখা যায়নি এ দিনের ট্রাম্পের প্রচারে। তাঁর বিরুদ্ধে তীব্র আক্রমণ শানানোর তালিকায় উপরের দিকে থাকা সোমালি-মার্কিন ডেমোক্র্যাট মহিলা সদস্য ইলহান ওমরকে নিশানা করে বলেন, ‘‘উনি আমাদের দেশকে ঘৃণা করেন। উনি এমন একটা দেশ থেকে এসেছেন, যেখানে কোনও সরকারই নেই।’’

প্রতিদ্বন্দ্বী বাইডেন অবশ্য এ দিনও করোনাভাইরাস নিয়েই সরকারকে বিঁধেছেন প্রচারে। মিশিগানে একটি গাড়ি শোভাযাত্রায় অংশ নিয়ে ট্রাম্পকে নিশানা করে তিনি বলেন, ‘‘উনি শুধু বলছেন, করোনা ভাইরাস কোনও মিরাক্‌ল-এর মতো গায়েব হয়ে যাবে। কিন্তু তা নয়। এত সহজে অদৃশ্য হবে না ভাইরাস। এমনকি, এখনও প্রতিদিন সংক্রমণ বাড়ছে। পরিস্থিতি আরও খারাপ হতে পারে ভবিষ্যদ্বাণী করছেন বিজ্ঞানী-বিশেষজ্ঞরা।’’ বর্ণবিদ্বেষ নিয়ে খোঁচা দিয়ে বাইডেনের মন্তব্য, ‘‘আমরা ভয়ের পরিবর্তে আশা, বিভাজনের পরিবর্তে ঐক্য এবং গল্পগাথার বদলে বিজ্ঞান এবং সর্বোপরি মিথ্যের পরিবর্তে সত্যকে বেছে নিয়েছি।’’

 

 

 

সবাই যা পড়ছেন

সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে
আরও পড়ুন

সবাই যা পড়ছেন

আরও পড়ুন