ধর্ষকদের কী শাস্তি হওয়া উচিত? এই নিয়ে সমাজের বিভিন্ন মহলে মতভেদ রয়েছে। তবে ধর্ষণে অভিযুক্ত ব্যক্তিকে মেক্সিকোর একদল লোক যা ‘শাস্তি’ দিল তা নিয়ে হইচই পড়ে গিয়েছে বিভিন্ন মহলে। কেউ কেউ বলছেন এই শাস্তি নারকীয়। কেউ কেউ বলছেন, ‘এ রকমই হওয়া উচিত।’

মেক্সিকোর রাজধানী মেক্সিকো সিটি। সেখানে বছর ৩০-এর ব্যক্তির বিরুদ্ধে গত মাসে এক মহিলার উপর যৌন নিগ্রহ চালানোর অভিযোগ ওঠে। সেই কাজের ‘শাস্তি’ হিসাবে সম্প্রতি তাঁকে রাস্তায় ধরেন জনা পাঁচ ব্যক্তি। তার পর তাঁর হাত-পা বেঁধে নগ্ন করে ফেলে রাখা হয় রাস্তার মাঝখানে। আর পিট বুল প্রজাতির একটি কুকুর কেটে নেয় ওই অভিযুক্ত ব্যক্তির যৌনাঙ্গ।

ধর্ষণে অভিযুক্তকে ‘শাস্তি’ দেওয়া ব্যক্তিরা এই ঘটনার ভিডিয়ো সম্প্রতি ছড়িয়ে দেয় সোশ্যাল মিডিয়ার বিভিন্ন প্ল্যাটফর্মে। সেই ভিডিয়োতে দেখা যাচ্ছে, ধর্ষণে অভিযুক্ত ওই ব্যক্তি চিৎকার করছেন, ‘থামো। ছেড়ে দাও আমায়।’ 

এই ঘটনার পর ধর্ষণে অভিযুক্ত ব্যক্তি কেমন আছেন? তাঁর বিরুদ্ধে পুলিশ কোনও ব্যবস্থা নিয়েছে? তাঁকে ‘শাস্তি’ দেওয়া ওই ব্যক্তিদের বিরুদ্ধে পুলিশ কোনও পদক্ষেপ গ্রহণ করেছে? এই সব প্রশ্নের উত্তর অবশ্য জানা যায়নি।  

আরও পড়ুন: ‘অপহরণ’ করে আনা বিড়ালছানাকে কোলে বসিয়ে কলা খাওয়াচ্ছে বাঁদর! ভিডিয়ো ভাইরাল

আরও পড়ুন: দুরন্ত রিফ্লেক্স বিড়াল ছানাকে বাঁচিয়ে দিল গাড়ির চাপা থেকে! দেখুন কী ভাবে