মাইলের পর মাইল তুষারের চাদর, প্রাকৃতিক সৌন্দর্যের জন্য বিখ্যাত গ্রিনল্যান্ড আজ অন্য কারণে খবরের শিরোনামে। কারণ একটি আশঙ্কাজনক ভিডিয়ো। ওই ভিডিয়োতে দেখা যাচ্ছে, বরফ গলা বিপুল পরিমাণ জল বয়ে যাচ্ছে। এ নিয়ে বিজ্ঞানীরা রীতিমতো আশঙ্কার কথা শোনাচ্ছেন।

মার্কিন সাংবাদিক লরি গ্যারেট ২ অগস্ট যে ভিডিয়ো টুইট করেছেন তাতে এই বরফ গলে বিপুল জল বয়ে যাওয়ার দৃশ্য ধরা পড়েছে। পোস্টে তিনি লিখেছেন, গত ২৪ ঘণ্টায় ১২০০ কোটি টন বরফ গলেছে। ভিডিয়োটি ইতিমধ্যেই ৪৬ লক্ষের বেশি বার দেখা হয়েছে।

২০১২ সালের পর ৩১ জুলাই ২০১৯ গ্রিনল্যান্ডে একদিনে সব থেকে বেশি বরফ গলেছে বলে জানিয়েছেন বিজ্ঞানীরা। আবহাওয়া পরিবর্তন সংক্রান্ত গবেষণার খবর প্রকাশ করে পোলার পোর্টাল। তারা জানিয়েছে, এই দিন গ্রিনল্যান্ডের বরফের চাদরের ৬০ শতাংশের উপরি ভাগের প্রায় ১ মিলিমিটার গলে গিয়েছে। এর ফলে এক দিনেই প্রায় ১ হাজার কোটি টন বরফ গলে সমুদ্রে চলে গিয়েছে।

আরও পড়ুন : ব্যস্ত রাস্তায় নামছে বিমান, ভিডিয়ো রেকর্ড করতে গাড়ি ঘুরিয়ে ছুটলেন চালক

আরও পড়ুন : সানি লিয়নের নম্বর ‘ফাঁস’, প্রতিদিন অশ্লীল দাবি নিয়ে যাচ্ছে অন্তত ২০০ ফোন

ড্যানিশ মেটারোলজিক্যাল ইনস্টিটিউটের আবহাওয়া বি়জ্ঞানী রুথ মোটরামের মতে, গোটা জুলাই মাসে যে পরিমাণ বরফ গলেছে তাতে অন্তত ১৯ হাজার ৭০০ কোটি টন সমু্দ্রে পড়েছে।ওই প্রতিষ্ঠানের আর এক বিজ্ঞানী মার্টিন স্টেনডেল জানিয়েছেন, এই পরিমান জল সমুদ্রের জলস্তর ০.১ মিলিমিটার বা ০.০২ ইঞ্চি বাড়িয়ে দেবে।

বিজ্ঞানীরা বলছেন, আপাতদৃষ্টিতে ০.১ মিলিমিটার বা ০.০২ ইঞ্চি খুব কম উচ্চতা মনে হলেও আবহাওয়ার পরিবর্তন যদি আটকানো না যায়, বিশ্বজুড়ে বরফ যদি গলতেই থাকে, তবে একদিন গোটা বিশ্বই জলের তলায় চলে যাবে।