চোখ নিয়ে কত কবি কত কিছু লিখেছেন। শিল্পীর তুলিতে, ক্যানভাসে কত ভাবে জায়গা করে নিয়েছে শরীরের অন্যতম সুন্দর অংশটি। তাই তাকে নিয়ে যে একটু আদিখ্যেতা থাকবে তা বলাই যায়। আর সেই জন্য বিয়ে বাড়ি হোক বা পার্টি, চোখ থেকে চশমা খুলে গাঢ় নীল রংয়ের লাইনার টানাই যায়। কিন্তু চশমা খুলে ফেললেই তো আর হল না, একজোড়া কনট্যাক্ট লেন্স ব্যবহার করতেই হয়।

অনেকে আবার চশমার পরিবর্তে নয়, চোখের মণির রং নিয়েও পরীক্ষা করতে কনট্যাক্ট লেন্স ব্যবহার করেন। কিন্তু কনট্যাক্ট লেন্সের সঙ্গে মেক আপের সময়ে একটু সচেতন থাকা উচিত। না হলে লেন্স থাকা অবস্থায় মেক আপে খামতি হলে বড় বিপদ হতে পারে। চিকিৎসকের কাছে পর্যন্ত ছুটতে হতে পারে।

তাই কনট্যাক্ট লেন্স পরে এই বিষয়গুলি মাথায় রাখুন-

চোখের ওয়াটারলাইনে কাজল বা আইলাইনার না পরাই ভাল। কারণ অনেক সময়ে ওয়াটারলাইনে কাজল পরতে গিয়ে তা চোখের ভিতরে ঢুকে যায়। কনট্যাক্ট লেন্স পরে থাকা অবস্থায় এটি ঘটলে বড় বিপদ হতে পারে।

চোখের জন্য যা মেকআপ ব্যবহার করবেন, তা যেন অবশ্যই অয়েল ফ্রি ও ওয়াটার প্রুফ হয়। না হলে কাজল বা মেকআপ গলে চোখের ভিতরে ঢুকে যাওয়ার ভয় থাকে।

আরও পড়ুন: ঋতুস্রাব চলাকালীন পেটে অসহ্য যন্ত্রণা, ওষুধ না খেয়ে কী করবেন জানুন

বেশি মোটা বা কনট্যাক্ট লেন্সে খোঁচা লাগতে পারে এমন কাজল ব্যবহার করবেন না। বরং আইলাইনার ব্যবহার করুন। এতে কনট্যাক্ট লেন্সে খোঁচা লাগার কোনও ঝুঁকি থাকে না।

আরও পড়ুন: এই সব ভুল? ডায়েরিয়া হতে পারে যে কোনও মুহূর্তে

মাস্কারা পরতে গিয়ে অনেকেরই সমস্যা হয়। চোখের পাতার সঙ্গে ব্রাশ হঠাৎ জড়িয়ে গিয়ে চোখের মধ্যে কালি ঢুকে যায়। তাই মাস্কারা লাগানোর সময়ে সচেতন থাকুন। হালকা করে মাস্কারা লাগান।

চোখের ওয়াটারলাইনে কাজল বা আইলাইনার না পরাই ভাল।

কনট্যাক্ট লেন্স পরার আগে দেখবেন হাতে যেন কোনও ধরনের মেকআপ বা নোংরা না লেগে থাকে। খোলার সময়েও বিষয়টা মাথায় রাখবেন।

পার্টি থেকে এসে যতই ক্লান্ত লাগুক, অবশ্যই ভাল করে কনট্যাক্ট লেন্স খুলে চোখের মেকআপ তুলে ঘুমোতে যান। কনট্যাক্ট লেন্স পরে ঘুমিয়ে পড়বেন না।