×

আনন্দবাজার পত্রিকা

Advertisement

২৩ জানুয়ারি ২০২১ ই-পেপার

বাবা দিবসে ‘স্বর্গীয় ফল’ অথবা কমলালেবু-চকোলেটের যুগলবন্দি

সুমা বন্দ্যোপাধ্যায়
কলকাতা২১ জুন ২০২০ ১৭:১৯
জে ডব্লিউ ম্যারিয়ট ফাদার্স ডে স্পেশাল মেনু। নিজস্ব চিত্র।

জে ডব্লিউ ম্যারিয়ট ফাদার্স ডে স্পেশাল মেনু। নিজস্ব চিত্র।

আম দিয়ে শুরু করুন আর শেষ পাতে থাকুন শেরিতে মজানো নানান ফলের সঙ্গে টাটকা ক্রিমের মাখো মাখো  স্বর্গীয় ডেলিকেসি, যার পোশাকি নাম ‘ফ্রুটস অফ হেভেন’। যেমন নামের বাহার, তেমনই তার স্বাদ। পহলে দর্শনধারী  ব্যপারটাকেও মাথায় রেখেছেন কলকাতার ইস্টার্ন মেট্রোপলিটান বাইপাসের উপরে  নিজের দম্ভে দাঁড়িয়ে থাকা জে ডব্লিউ ম্যারিয়ট হোটেল। এখানকার ফাদার্স ডে-র স্পেশাল মেনুর নাম শুনলে আর ছবি দেখলেই রসনা সিক্ত হয়ে ওঠে। তবে শুধু ছবি দেখে মন  ভরাতে হবে না। কলকাতার মানুষজন ইচ্ছে হলে ফোন করে অর্ডার দিতে পারেন। বাড়িতে পৌঁছে যাবে পাঁচতারার জিভে  জল আনা খাবার। আজ বাবা দিবসে বাবার জন্য বাড়িতে আনিয়ে আনিয়ে নিতেই পারেন স্পেশাল খানার সম্ভার। 

পাঁচতারা হোটেল হলেও দাম পকেটসই। ৯৯৯ টাকায় পেয়ে যাবেন দারুণ সুন্দর নামের ও স্বাদের অন্যরকম খাবার। আনলক শুরুর সময় থেকেই ম্যারিয়ট ফাদারস ডে স্পেশাল খাবারের পরিকল্পনা করেন হোটেল কতৃপক্ষ। ফল ও মিষ্টির সম্ভারে সাজিয়ে তোলা হয়েছে সেট মেনু। যদিও এই সময়টায় ফলের রাজা আমের দাপট বেশি, কিন্তু এর সঙ্গে সঙ্গত করতে হাজির নানান এক্সোটিক ফলের তৈরি জিলাটো, ফ্রুট স্যালাড, আসল ফলের পাল্প দিয়ে তৈরি নানান মিঠে খাবার। হরেক মিষ্টির মধ্যে ক্যারামেলের সঙ্গে নুনের সঙ্গতে বানানো আমন্ড, কমলালেবু আর চকোলেটের মেলবন্ধনে তৈরি শেফ স্পেশাল  চেখে না দেখলে বোঝা মুশকিল এর মাহাত্ম্য। সব রকম  বাবাদের  কথা চিন্তা করেই ম্যারিয়টের রন্ধনশিল্পীরা বানিয়েছেন নানান  স্বাদের অসাধারণ সব ডিশ।  

ফাদার্স ডের সূত্রপাত প্রায় ১১০ বছর আগে আমেরিকার ওয়াশিংটনে। উইলিয়াম স্মার্ট নামে আমেরিকান গৃহযুদ্ধের এক প্রাক্তন সৈনিক তাঁর স্ত্রীর মৃত্যুর পর ছয় সন্তানকে একা হাতে মানুষ করেন। আমেরিকার মতো দেশে ব্যাপারটা বিরল। তাঁরই  স্মৃতিতে তাঁর মেয়ে সনোরা ফাদারস ডে পালন করেন ১৯১০ সালের ৫ জুন। এরও আগে পশ্চিম ভার্জিনিয়ায় ১৯০৮ সালের ৫ জুলাই বিস্ফোরণে মৃত ৩৬১ জন মানুষের স্মরণে পিতৃদিবস  পালন করা হয়। আমাদের দেশ সহ বেশ কিছ দেশে জুন মাসের তৃতীয় রবিবার দিনটি বাবাদের জন্য ধার্য করা হয়েছে। অবশ্য আমেরিকার থেকে সহস্র যোজন এগিয়ে আছি আমরা ভারতীয়রা। আমাদের সনাতন সংস্কৃতি অনুযায়ী--

Advertisement

পিতা স্বর্গ পিতা ধর্ম, পিতাহি পরমং তপঃ,

পিতরি প্রীতিমাপন্নে প্রিয়ন্তে সর্ব দেবতা। 

সুতরাং শুধু ‘দিবস’ যাপন করে নয়, প্রতিটা দিনই বাবাদের ভাল রাখার শপথ নিন, ভাল থাকুন। 

আরও পড়ুন: মজার ছলে তৈরি করা রাক্ষস, জোম্বি মাস্ক থেকে এখন আয় হাজার হাজার টাকা

আরও পড়ুন: বিমানের কয়েকশো টিকিট কেটে কোটিপতি হয়ে গেলেন মহিলা!

ম্যারিয়ট ফাদারস ডে স্পেশাল:







Advertisement