শীতকাল যত এগিয়ে আসছে বাজার ভরে উঠছে তাজা রসালো টোম্যটোতে। যদিও এখন সারা বছরই টোম্যটো পাওয়া যায়। তবে শীতকালের টোম্যটোর মধ্যে একটা আলাদাই টাটকা ভাব থাকে। রান্না হোক কিংবা স্যালাড টোম্যটোর ব্যবহার বহুমুখী। টোম্যটো যেমন খাবারের স্বাদ বাড়ায় তেমন তা উপকারী ত্বকের পক্ষেও।

টোম্যটোর মধ্যে রয়েছে প্রচুর পরিমাণে অ্যান্টি অক্সিডেন্ট এবং ভিটামিন সি। যা শরীরের রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বাড়ানোর সঙ্গে সঙ্গে ত্বকের নানা সমস্যার সমাধানও করে। ত্বক পরিচর্যায় টোম্যটোও হয়ে উঠতে পারে অন্যতম উপাদান।

কী কী ভাবে টোম্যটো আপনার ত্বকের উপকার করতে পারে রইল তারই হদিশ।

আরও পড়ুন: হাঁটু-কোমরে ব্যথা নিয়েও চুটিয়ে বেড়ানো সম্ভব, যদি মেনে চলেন এ সব

মুখের তৈলাক্ত ভাব কাটায়: টোম্যটোর রসে আছে অ্যাস্ট্রিনজেন্ট যা মুখের অতিরিক্ত তেলাভাব কাটিয়ে ত্বক উজ্জ্বল করতে সক্ষম। এর ফলে ব্রণ , ব্ল্যাকহেডস , হোয়াইটহেডসের মতো সমস্যাগুলোও দূরে থাকে। তা ছাড়া ত্বকের রন্ধ্রগুলোও সংকুচিত করে টোম্যটোর রস। যার ফলে বাইরের ধুলোবালি সহজে ত্বকের ভিতরে প্রবেশ করতে পারে না। এক টুকরো টোম্যটো নিয়ে সারা মুখে ঘষে তার রসটা লাগান। ১৫ মিনিট রেখে ধুয়ে ফেলুন।

ট্যান সারাতে সক্ষম:  এখন কমবেশি সকলকেই রোদে বেরোতে হয়। যার ফলে মুখে কালো দাগ হয়ে যায়। জাকে আমরা বলি সানবার্ন বা ট্যান। টোম্যটোর একটি ঘরোয়া প্যাকে উধাও হয়ে যাবে এই ট্যান। টমেটো থেঁতো করে তাতে এক চা চামচ মধু মিশিয়ে প্যাক তৈরি করে নিন। তারপর এই প্যাক মুখ এবং শরীরের অন্যান্য ট্যান পড়া অংশে লাগিয়ে ১৫ মিনিট রাখুন। তারপর ঠান্ডা জলে ভাল করে ধুয়ে ফেলুন। কিছুদিন ব্যবহারে দূর হবে ট্যান।

ত্বক উজ্জ্বল করে: যত্নের অভাবে ত্বক বিবর্ণ হয়ে যাচ্ছে? টোম্যটোর এই প্যাকে বাড়বে আপনার ত্বকের উজ্জ্বল ভাব। একটি টোম্যটোর শাঁস বের করে বাটিতে নিন। তাতে দু’চা চামচ মুলতানি মাটি ও এক চা চামচ পুদিনা পাতা বাটা মিশিয়ে প্যাক তৈরি করে নিন। এবার এই প্যাক সারা মুখে লাগিয়ে শুকনো হওয়া অবধি রেখে দিন। তারপর ধুয়ে ফেলুন। সপ্তাহে একবার করে কয়েক সপ্তাহ এই প্যাক লাগালেই ফিরবে ত্বকের উজ্জ্বল রং। ত্বক হবে সতেজ এবং টান।

ত্বকে জমা মৃত কোষ সরাতে সক্ষম: টোম্যটো ত্বকের উপরে জমে যাওয়া মৃত কোষ তুলে ফেলতে সাহায্য করে। দু’টি খোসা সমেত পাতিলেবু, দু’কিউব বরফ , ২০টি পুদিনা পাতা আর দু’টি টোম্যটো ব্লেন্ডারে দিয়ে বেটে একটা প্যাক তৈরি করে নিন। এ বার তাতে পাঁচ টেবিল চামচ চিনি মিশিয়ে স্ক্রাব তৈরি করে নিন। এ বার এই স্ক্রাবটি মুখে, গলায়, হাতে লাগিয়ে স্ক্রাব করুন। এর ফলে ত্বক ভিতর থেকে পরিষ্কার হবে। সপ্তাহে দু’বার এই প্যাক ব্যবহারে মিলবে ফল।

আরও পড়ুন: হঠাৎই মোটা হয়ে যাচ্ছেন? রাশ টানুন অসুখের সময় এই অভ্যাসের দিকে

টোনার হিসাবে কাজ করে: টোম্যটোর টোনার ব্যবহার করলে আপনার ত্বক থাকবে নরম , কোমল আর আর্দ্র। একটা শসা ও টোম্যটোর রস একসঙ্গে মিশিয়ে একটি স্প্রে বোতলে ভরে ফ্রিজে রাখুন। কিছুক্ষণ পর তা মুখে ছিটিয়ে নিন। এই টোনারটি ফ্রিজে রাখলে অন্তত চারদিন ব্যবহার করতে পারবেন।