Follow us on

Download the latest Anandabazar app

© 2021 ABP Pvt. Ltd.

Advertisement

০৯ ডিসেম্বর ২০২১ ই-পেপার

রোগা থাকতে কেন সন্ধে ৭টার মধ্যে ডিনার সেরে ফেলবেন?

নিজস্ব প্রতিবেদন
২০ ফেব্রুয়ারি ২০১৮ ১১:৫৩
ভারতীয় ডিনার। প্রতীকী ছবি।

ভারতীয় ডিনার। প্রতীকী ছবি।

রাতে কখন ঘুমোতে যান আপনি? কাজের চাপ, স্ট্রেস, বাড়ি গিয়ে ‘মি-টাইম’ কাটানো সেরে অনেকেরই এখন ঘুমোতে যেতে মধ্যরাত পেরিয়ে যায়।

আর ডিনার? লাইফস্টাইলের সঙ্গে সামঞ্জস্য রাখতে ডিনারের সময়ও হয়ে যায় রাত সাড়ে ১০টা-১১টা। জানেন কি আপনার ক্রমবর্দ্ধমান কোমরের মাপের অন্যতম কারণ এই দেরিতে খাওয়া? জেনে নিন ওজন ধরে রাখতে কেন ৭টার মধ্যে ডিনার সেরে ফেলার পরামর্শ দেন নিউট্রিশনিস্টরা।

ওজন

Advertisement

বিশেষজ্ঞরা জানাচ্ছেন সকাল ৬টা থেকে সন্ধে ৭টার মধ্যে খাবার খাওয়া অভ্যাস করলে আমাদের সামগ্রিক ক্যালোরি খাওয়ার পরিমাণ অনেক কমে যাবে। যে হেতু আমরা দিনের কম সময় খাবার খাচ্ছি তাই স্বাভাবিক ভাবেই যেমন ক্যালোরি গ্রহণ কম হবে, তেমনই রাতে অনেকক্ষণ না খাওয়ার ফলে মেদ ঝরানোও সহজ হবে।

আরও পড়ুন: তাড়াতাড়ি রোগা হতে ডিমের সঙ্গে খান এই ৩ খাবার

ক্লিনিক্যাল নিউট্রিশনিস্ট রূপালি দত্ত মনে করেন, তাড়াতাড়ি ডিনার করলে খাবার যেমন হজম করা সহজ হয়, তেমনই তা ওজন কমাতে সাহায্য করে। যত আমরা দেরি করে খাব খাবার হজম হতে তত দেরি হবে।

ভাল ঘুম

রাতে ঘুমোতে যাওয়ার ঠিক আগেই ভরপেট খেলে হজমে সমস্যা হয়। যার ফলে অ্যাসিডিটি, বুক জ্বালা হতে পারে। বেশি রাতে খেলে শরীর সক্রিয় ও সজাগ হয়ে ওঠে যার ফলে ঘুম আসতে সমস্যা হয়। ভাল ঘুম না হওয়ায় সকালে ক্লান্ত লাগে। সন্ধেবেলা ডিনার করলে শুধু হজম ভাল হয় তাই নয়, ঘুমও ভাল হয়। সকালে উঠে অনেক বেশি এনার্জি পাবেন কাজে।

আরও পড়ুন: জেনে নিন কেন পপকর্ন সবচেয়ে স্বাস্থ্যকর স্ন্যাকস

সুস্থ হার্ট

নিউট্রিশনিস্ট মেহর রাজপুত জানাচ্ছেন, যারা ডায়াবেটিস, থায়রয়েড, পিসিওডি ও হার্টের সমস্যায় ভোগেন তাদের ডিনারে হাল্কা খাবার খাওয়ার পাশাপাশি সন্ধে ৭টার মধ্যে রাতের খাবার খেয়ে নেওয়া উচিত। ভারতীয়রা ডিনারে সোডিয়ামযুক্ত খাবার খান। ডাল, পাঁপড়, সব্জি, মাংস সব খাবারেই নুন দিতে হয়। তাই বেশি রাতে খেলে শরীরে জলের অভাব হয় ও গ্যাস তৈরি হয়। সেই সঙ্গেই বাড়তে থাকে রক্তচাপ।

রাতের খাবার তাড়াতাড়ি খাওয়া অভ্যাস করলে তাই হার্ট সুস্থ থাকে। কার্ডিওভাসকুলার সমস্যাও থাকে দূরে। ডিনারে আমরা যত বেশি কার্বোহাইড্রেট ও সোডিয়াম খেতে থাকি আমাদের হার্ট ও রক্তনালীতে রক্তচাপ বাড়ার সম্ভাবনা তত বাড়তে থাকে। যারা হাইপারটেনসনের সমস্যায় ভুগছেন তাদের বেশি করে জটিল কার্বোহাইড্রেট, ওটস, ব্রাউন রাইস ও আটার রুটি খাওয়া উচিত।

বিশেষজ্ঞরা জানাচ্ছেন, রাতের খাবার খাওয়ার দু’ঘণ্টার মধ্যেই ঘুমোতে যেতে হবে এমন কোনও বাধ্যবাধকতা মেনে চলার প্রয়োজন নেই। সাধারণত যারা বেশি রাতে খাবার খান তাদের মধ্যে হাইপারটেনসনে ভোগার প্রবণতা দেখা যায়।


আবার ৭টার মধ্যে ডিনার সেরে ফেলার পর যদি রাতে খিদের তা হলে উপোস করারও প্রয়োজন নেই বলে জানাচ্ছেন বিশেষজ্ঞরা। এই সময় লো-ক্যালোরি কোনও খাবার খেতে পারেন।

যদি নিয়মিতই আপনার বেশি রাতের দিকে খিদে পেতে থাকে তা হলে সারা দিনের খাওয়া-দাওয়ার প্রতি বিশেষ নজর দিন। সারা দিন ৪-৬ বার অল্প পরিমাণ খেলে এবং সন্ধে ৬-৭টার মধ্যে রাতের খাবার খেয়ে নিলে বেশি রাতে খিদে পাওয়ার সম্ভাবনা থাকে না।

আরও পড়ুন

Advertisement