মেঘলা দিনে ঘরে একলা থাকুন বা বাইরে, ত্বককে দিতে হবে ছাতার আড়াল। সে ছাতা সানস্ক্রিন। ত্বকের এই সুরক্ষাকবচ শুধুমাত্র রোদের জন্য, এ ধারণা বহুল প্রচলিত মিথ। সেটা ভুলে গিয়ে মনে রাখুন মেঘলা দিনেও অবশ্য ব্যবহার্য হল সানস্ক্রিন

ইউভিএ এবং ইউভিবি, দু’রকম সূর্যরশ্মিই ত্বকের পক্ষে ক্ষতিকর। ত্বকের যাবতীয় সমস্যার জন্য দায়ী এই দুটি রশ্মি। ত্বক কালো হয়ে যাওয়া, অকালে কুঁচকে যাওয়া এর মধ্যে প্রধান। এমনকি, বেশি জটিলতা দেখা দিলে এর থেকে জিনঘটিত সমস্যা বা ত্বকের ক্যানসার হওয়াও বিচিত্র নয়। বিশেষজ্ঞদের মতে, শর্ট টার্মে ইউভিবি রশ্মি বেশি ক্ষতিকারক। কিন্তু লং টার্মে অর্থাৎ দীর্ঘদিন ধরে বহুক্ষণ রোদে থাকলে ইউভিএ রশ্মি অনেক বেশি ক্ষতিকারক। তাই দুরকমের রশ্মি থেকে বাঁচতে, সানস্ক্রিন ইজ এ মাস্ট।

আকাশ মেঘলা হলেও সূর্যের অতিবেগুনি রশ্মি অন্তত ৮০ শতাংশ উপস্থিত থাকে পরিবেশে। ত্বকের ক্ষতি করার জন্য, বিশেষত তাকে অকালে বুড়িয়ে দেওয়ার জন্য এই রশ্মি যথেষ্ট। আপনি মরুভূমিতেই থাকুন, বা বরফের দেশে, অতিবেগুনি রশ্মি ত্বকের ক্ষতি করবেই।

বাড়িতে থাকলেও সানস্ক্রিন মাখতে ভুলবেন না। ছবি: শাটারস্টক

শুনতে আশ্চর্য লাগলেও সত্যি যে সারাদিন বাড়ি বা গাড়িতে বসে থাকলেও দরকার সানস্ক্রিন। কারণ কাচের জানালা কোনওমতেই সম্পূর্ণ ভাবে অতিবেগুনি রশ্মি প্রতিরোধ করতে পারে না। তাই আপনার অজান্তেই ক্ষতি হচ্ছে ত্বকের। বাড়িতে থাকলেও নির্দিষ্ট পরিমাণ সানস্ক্রিন কিন্তু চাই আপনার ত্বকের জন্য। জামাকাপড়ের বাইরে দেহে যে অংশটুকু বেরিয়ে থাকে, দিনের বেলা তাকে রাখতেই হবে সানস্ক্রিনের প্রলেপে। সে আপনি ঘরেই থাকুন, বা বাইরে। দিন রোদ খটখটেই হোক, বা মেঘলা। সারা দেহ যদি কাপড়ে ঢেকে রাখা সম্ভব না হয়, সানস্ক্রিন ছাড়া গতি নেই।

আরও পড়ুন: বর্ষায় চুল পড়া নিয়ে নাজেহাল ? রইল কিছু সহজ টিপস

আরও পড়ুন: এ সব কাজে কখনও ডিমের সাহায্য নিয়েছেন? এ বার মুশকিল আসান করবে এই খাদ্য

অনেকেই মেক আপের অজুহাতে সানস্ক্রিন এড়িয়ে যান। কিন্তু এটা কোনও অজুহাত হতেই পারে না। মেক আপের আগে লাগিয়ে নিন সানস্ক্রিন। কসমেটিক্স-এর জিনিসপত্র কিনুন দেখেশুনে। দাম বেশি হলেও বেছে নিন সেইসব প্রডাক্ট, যার মধ্যে সানস্ক্রিন রয়েছে। অয়েলি স্কিন যাঁদের, তাঁরাও সানস্ক্রিনকে এড়িয়ে যাবেন না। চিটচিটে লাগছে বলে অনেকেই তৈলাক্ত ত্বকে সানস্ক্রিন ব্যবহার করেন না। ফলে ক্ষতি হয় ত্বকের। অয়েলি স্কিনের জন্য ওয়াটার বেসড সানস্ক্রিন বেছে নিন। এতে আপনার শ্যাম আর কুল, দুই-ই থাকবে। ত্বক চটচটে হবে না। আবার প্রতিরোধ করতে পারবেন অতিবেগুনি রশ্মিকেও।

ত্বকের জৌলুসের উপর অনেকটাই নির্ভর করে অন্যের চোখে আপনার বয়স। হাতের কাছেই যখন রয়েছে মুশকিল আসান, তখন শুধুশুধু বুড়িয়ে যাবেন কেন ? আপনার ত্বককে বরং দিন নিরাপদ ছাতার আব্রু।