গরমের ঘামে তো বটেই বর্ষা বা শরতের ভ্যাপসা গরমেও এই সমস্যার মুখোমুখি হয়ে থাকেন কমবেশি প্রায় সব মহিলাই। মেক আপের গুরুত্বপূর্ণ অংশ যেখানে চোখ, সেখানে চোখের মেকআপ রক্ষা করতে স্মাজ প্রুফ কাজল বা আইলাইনারের খোঁজ করতে হয়। গরমে কাজল ঘেঁটে যাওয়া বা স্মাজ করে যাওয়ার এই সমস্যা ঠেকাতে বেশ খরচ করে স্মাজ প্রুফ কাজল বা আইলাইনার কিনতে হয়।

কিন্তু তাতেও সমস্যা মেটে না। নামীদামি সংস্থার কাজল বা আইলাইনার কিনলেও যে সব সময় স্মাজ হওয়া আটকানো যায়, এমনটা একেবারেই নয়। দশ-বারো ঘণ্টা কাজল বা আইলাইনার ঘাঁটবে না— এমন প্রতিশ্রুতি নানা সংস্থা দিলেও, অনেক সময় দেখা যায়, খুব দামি কিছু প্রসাধনী ছাড়া একটা সময়ের পর ঘেঁটে যায় প্রায় সব কাজল-আইলাইনার।

এ ছাড়া যে সব দামি কাজল বা আইলাইনার একেবারেই ঘাঁটে না, তাতে মিশে থাকে ক্ষতিকর রাসায়নিক, যা ত্বকের জন্য ভাল নয়। তাই কাজল বা আইলাইনার পরার আগে কিছু নিয়ম মানলে স্মাজের ভয় আর থাকে না। কী কী করলে তা সম্ভব?

আরও পড়ুন: মেদ ঝরাতে চান? বিপাকক্রিয়ার হার বাড়িয়ে তুলুন এই সব উপায়ে

ড্রাই ফ্রুটসে লুকিয়ে মেদ ঝরানোর মন্ত্র, কিন্তু কতটুকু খাবেন?

  • কাজল পরার আগে চোখের পাশের অংশে ভাল করে সিসি ক্রিম লাগিয়ে নিন। এগুলি চোখের চারপাশের অতিরিক্ত তেল ও আর্দ্রতা শুষে নেয়।

  • যে দিন কাজল বা আইলাইনার পরবেন, সে দিন  সাজগোজের বেশ কয়েক ঘণ্টা আগে একটু বরফের কুচি কোনও সুতির কাপড়ে মুড়ে চোখের চারপাশে চেপে মাসাজ করুন। ত্বকের তেলা ভাব কাটবে।

  • চোখের ওয়াটারলাইনে কাজল পরুন। এখানে কাজল বা লাইনার পরলে স্মাজ হওয়ার ভয় থাকে না।

  • কাজল পরার পর একটু শুকোতে দিন চোখ। সব সময় ওয়াটারপ্রুফ কাজল ও আইলাইনার ব্যবহার করুন।

  • কাজল পরার আগে চোখে কমপ্যাক্টের পাফ বুলিয়ে নিন। এতে চোখের আর্দ্রতা সরে যায়। কাজল ও আইলাইনার বেশি ক্ষণ টিকে থাকে।