• সংবাদ সংস্থা
সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে

আর ভয় নেই, বৃষ্টির জলে আপনার ফোনও এ বার সুরক্ষিত

phone
ছবি- শাটার স্টক।

বর্ষাকালে ফোন নিয়ে বার হতে সবারই ভয় লাগে। কারণ, কোন সময় বৃষ্টির জল ফোনের ভিতরে ঢুকে ফোন নষ্ট করে দেবে তা বলা মুশকিল। কিন্তু, এখন থেকে তা নিয়ে আর চিন্তা করার প্রয়োজন নেই। জেনে নিন এই বর্ষাতে কিভাবে সুরক্ষিত রাখবেন আপনার ফোন।

১. ওয়াটার প্রুফ পাউচ : এখন বাজারে এবং বিভিন্ন অনলাইন স্টোরে ফোনের জন্য ওয়াটার প্রুফ পাউচ পাওয়া যায়। মাত্র ৯৯ টাকা থেকে শুরু হয় এই পাউচ এর দাম। জেনেরিকের ওয়াটার প্রুফ পাউচগুলিতে সাধারণত আইপিএক্স ৮ রয়েছে যা ফোনকে অনেক বেশি সুরক্ষিত করে জল থেকে। এই পাউচ থাকলেও ফোন সহজেই ব্যবহার করা যায়। অর্থাৎ, পাউচ আছে বলে যে আপনাকে বারবার ফোনটিকে পাউচ এর থেকে বার করে ব্যবহার করতে হবে তা কিন্তু নয়।

আমাজনে এটি মাত্র ৯৯ টাকায় পাওয়া যাচ্ছে কিন্তু ডেলিভারি চার্জ আলাদা করে দিতে হয়। এ ছাড়া আরও বেশি দামের ওয়াটারপ্রুফ পাউচও রয়েছে যেমন ববো ইউনিভার্সাল ওয়াটারপ্রুফ পাউচ । আমাজনে এর দাম ২৯৯ টাকা।

আরও পড়ুন :স্মার্টফোন জলে পড়ে গিয়েছে? এই দশটি জিনিস ভুলেও করবেন না

 

২.সিলিকা জেল ব্যবহৃত জিপলক পাউচ:  এইগুলিতে সাধারণত ভাবে সিলিকা জেল ব্যবহৃত হয় যা জলের আর্দ্রতা থেকে ফোনকে আরও বেশি সুরক্ষিত করে। অনলাইনে এবং বাজারে সহজেই পাওয়া যায় এই পাউচ। দামও সাধ্যের মধ্যেই থাকে।

৩. ব্লুটুথ হেড ফোন: এ ছাড়া ব্লুটুথ হেডফোন ব্যবহার করলে বৃষ্টিতে ফোন বাইরে বার করতে হবে না। খুব সহজেই ব্যাগের মধ্যে থেকেও কল রিসিভ করা যায়। বাজারে বিভিন্ন দামের বিভিন্ন কোম্পানির ব্লুটুথ হেডফোন  রয়েছে। যদিও ব্লুটুথ হেডফোনগুলিও বৃষ্টির জলে নষ্ট হয়ে যেতে পারে। তবে বৃষ্টির জলে স্মার্টফোনের তুলনায় ব্লুটুথ হেডফোনগুলি নষ্ট হওয়ার সম্ভাবনা অনেক কম ।

কিন্তু এতকিছু করা সত্ত্বেও যদি কখনো ফোন জলে পড়ে যায় অথবা ভিজে যায় সে ক্ষেত্রে ভয় পাওয়ার দরকার নেই। তারও সমাধান রয়েছে।

এইরকম সমস্যায় পড়লে সঙ্গে সঙ্গে ফোনের ব্যাটারি খুলে ফেলা উচিত। অবশ্য এখন বেশির ভাগ ফোনেই ব্যাটারি খোলার অপশন থাকে না। সে ক্ষেত্রেও ভয় পাওয়ার দরকার নেই। সেই সময় কিছু নিয়ম মানলেই চলবে। যেমন জলে ফোন ভিজে গেলে তা কখনই সঙ্গে সঙ্গে চার্জে বসানো উচিত নয়। আর ভুল করেও ফোন থেকে জল ঝরানোর জন্য হেয়ার ড্রাইয়ার ব্যবহার করবেন না। বরং সেই সময় এক গামলা শুকনো চালের মধ্যে ফোনটি রেখে দিন এবং সারারাত ও ভাবেই ফোনটি থাকতে দিন। অথবা সিলিকা জেল জিপ লক পাউচ এর মধ্যে ফোনটি রেখে দিন যতক্ষণ পর্যন্ত না জল শুকিয়ে যাচ্ছে।

তবে বেশি জল ঢুকে গেলে অবশ্যই তা সঙ্গে সঙ্গে কোনও ফোনের সার্ভিস সেন্টারে নিয়ে গিয়ে দেখানো উচিত।

আরও পড়ুন :বৃষ্টি পড়লেই রেনকোটে আশ্রয়? ত্বকের সংক্রমণ এড়াতে অবশ্যই খেয়াল রাখুন এই সব​

সবাই যা পড়ছেন

সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে
আরও পড়ুন

সবাই যা পড়ছেন

আরও পড়ুন