• চিরশ্রী মজুমদার
সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে

সেরাম সেনাপতি

ত্বক ও চুলের যত্নে সেরামের খুব নামডাক। এত জনপ্রিয়তার কারণ, তার উপাদানগুলি সেরা এবং  কাজ করার পদ্ধতি একেবারে অন্য রকম

Serum

সৌন্দর্যের সিন্দুকটির তালাচাবি হল ‘স্কিন সেরাম’। আসলে, কাচের মতো নিদাগ নিভাঁজ ত্বককে সম্পদ বললে অত্যুক্তি হয় না। এই লাবণ্য ধরে রাখতে, ত্বকের আর্দ্রতা আটকে রাখা ভীষণ জরুরি। সেরাম জলীয় ভাব বজায় রাখে, আবার বাইরে থেকে খুব দরকারি পুষ্টি উপাদানও ত্বকের ভিতর স্তর পর্যন্ত সরবরাহ করে। আর সেগুলো সেই ভিতরের পরতেই ‘লক’ করে দেয়। ফলে, ত্বকের বেশ কিছু সমস্যার সমাধান হয়। ত্বকচর্চার অন্য ক্রিম, লোশন, ময়শ্চারাইজ়ারের কার্যকারিতাও বেড়ে যায়। ত্বকের দ্যুতি অক্ষুণ্ণ হয়।

চুলে যে সেরাম লাগাই, সেটি একাধারে অনেক দিক থেকে চুলের খেয়াল রাখে। চুলকে ময়শ্চারাইজ় করে, তাকে বশে রেখে নানা স্টাইল করতে সাহায্য করে হেয়ার সেরাম। চুলের রুক্ষতা, বিবর্ণ ভাব, ডগা ফাটার মতো সমস্যাও দূর করে। স্কিন সেরামের মতো হেয়ার সেরামেও কিছু ‘অ্যাক্টিভ ইনগ্রেডিয়েন্টস’ থাকে। তাই চুল নরম ও চিকন করে তোলে সেরাম। ত্বক ও চুলের এই বন্ধু সম্পর্কে এ বার একটু বিশদে জেনে নেওয়া যাক।

 

ত্বকের  গোয়েন্দা

কিছু ঘন আর শক্তিশালী পুষ্টি উপাদানকে পাতলা আর হালকা দ্রবণে পরিণত করার ফর্মুলাকে সেরাম বলা যায়। রূপবিশেষজ্ঞরা বলেন, এর মাধ্যমে কিছু ‘স্টার’ উপাদান ত্বকের গভীরে পৌঁছে দেওয়া যায়। সেরাম অনেকটা গোয়েন্দার মতো ত্বকের নির্দিষ্ট সমস্যাকে লক্ষ করে তা মেরামত করে। দাগ-ছোপ, বয়সের কুঞ্চন, ব্রণ ইত্যাদিতে সেরাম ভীষণ কাজ দেয়। ত্বকের কোষগুলোকে এমন ভাবে নিয়ন্ত্রণ করে, যাতে তেল, জলের ভারসাম্য বজায় থাকে। মুখ ভাল ভাবে ফেসওয়াশ দিয়ে ধুয়ে, টোনার লাগিয়ে তার পর সেরাম লাগান। ২-৩ ফোঁটাই যথেষ্ট। ত্বক সেরাম শুষে নিলে, তবে ময়শ্চারাইজ়ারের পালা। সকালে ও সন্ধেয়, দিনে দু’বার মুখে ও গলায় সেরাম লাগান। দু’মাস পর ত্বকের পরিবর্তন অনুভব করতে পারবেন।

 

কার জন্য কোনটি

• অ্যান্টি-এজিং সেরাম: অতি শুষ্ক ত্বকের ক্ষেত্রে বা মুখে সদ্য স্পট, কুঁচকানো ভাব, মেচেতা দেখা দিলে, এটি বেছে নিতে পারেন। ২৫ বছর বয়স হলে এই ট্রিটমেন্ট শুরু করা ভাল। এতে রেটিনল, ক্যাফিন, গ্রিন টি ইত্যাদি থাকে। রাতে অ্যান্টি-এজিং নাইট ক্রিম মাখার আগে ব্যবহার করলে দ্বিগুণ ফল পাবেন।

• অ্যান্টিঅক্সিড্যান্ট সেরাম: যাঁদের ত্বক রোদ-ঝড়-জলের ঝাপটা সহ্য করে, তাঁদের জন্য আদর্শ। সব ধরনের ত্বকেই সেরামটি চলবে। ভিটামিন এ, সি, ই, মেলাটোনিন থাকায় পরিবেশের ফ্রি র্যাডিক্যালস থেকে ত্বককে রক্ষা করে। বাইরে বেরোনোর আগে এটি মেখে সানস্ক্রিন লাগান।

• হাইড্রেটিং সেরাম: শুষ্ক ত্বকের জন্য দারুণ। কিন্তু তৈলাক্ত ত্বকেও (ব্রণ হলেও) চলবে। কারণ এতে ত্বকে হাইড্রেশন হয়। কিন্তু কোনও গ্রন্থি থেকে অতিরিক্ত তেল বেরোয় না। এতে পেপটাইড, হাইঅ্যালিউরোনিক অ্যাসিড থাকে। ত্বকের কোনও অংশ বেশি শুকনো মনে হলে (ড্রাই স্পট), সেখানে ঘন করে লাগান।

• কারেক্টিং সেরাম: যাঁদের ত্বকের রোমকূপ বড়, ছোপ রয়েছে,

ত্বকের রং ও ঔজ্জ্বল্য সব জায়গায় সমান নয়, তাঁদের জন্য বিশেষ কার্যকর। এতে ভিটামিন সি, গ্লাইকোলিক অ্যাসিড থাকে। ত্বক মসৃণ করতে জুড়ি নেই।

 

চুল পালিশ

সাধারণত, হেয়ার সেরাম তৈরি হয় সিলিকন দিয়ে। এটি চুলের উপরে আস্তরণ তৈরি করে। তাই স্টাইলিং প্রডাক্ট ব্যবহারের আগে সেরাম লাগিয়ে নেওয়ার পরামর্শ দেওয়া হয়। এতে চুলের ভিতরের অংশ সরাসরি উত্তাপের সংস্পর্শে আসে না। ফলে চুলের ক্ষতি হয় না। হেয়ার সেরামেও কিছু দারুণ ক্ষমতাধর উপাদান থাকে, যা চুলের গভীরে গিয়ে পুষ্টি জোগায়। ফলে, চুল রেশমের মতো উজ্জ্বল হয়ে ওঠে। নিয়মিত ব্যবহারে চুল মসৃণ থাকে। জট পড়ে না, রুক্ষ বা ভঙ্গুর হয় না। বেরোনোর আগে সেরাম লাগিয়ে নিলে তা চুলের বর্মের কাজ করবে। চুলকে পরিবেশের ধুলো, ময়লা, তাপ বা জল স্পর্শও করতে পারবে না। সেরামকে বিউটিশিয়ানরা হেয়ার পলিশিংয়ের প্রাথমিক ধাপ বলেন।

শ্যাম্পু করার পর চুলের জল ঝরিয়ে নিন। ভেজা চুলেই সেরাম লাগানোর বিধি। ২-৩ ফোঁটা (লম্বা, ঘন চুলে বড় জোর ৫ ফোঁটা) সেরাম হাতের তালুতে নিয়ে ৫-৬ সেকেন্ড অপেক্ষা করুন। আবহাওয়ার সংস্পর্শে এসে ঘন দ্রবণটি একটু পাতলা হবে। এ বার চুলের ডগা থেকে মধ্যিখান পর্যন্ত সেরাম লাগিয়ে নিন। চুল ব্রাশ করে নিলে সব জায়গায় সেরাম পৌঁছবে। তবে, স্ক্যাল্পে সেরাম লাগাবেন না। চিটচিটে হয়ে যেতে পারে। চর্মরোগবিশেষজ্ঞ ডা. সন্দীপন ধর বলছেন, যাঁদের চুল তৈলাক্ত তাঁদের সেরামের প্রয়োজন নেই। অন্যরা সপ্তাহে তিন-চার বার ব্যবহার করতেই পারেন।

ভুলেও এ ভুল নয়

• ত্বকের রোজকার যত্নে যখন আর ফল হয় না, তখন অনেকে সেরাম লাগানোর কথা ভাবেন। সেরাম কিন্তু ত্বকচর্চার গুরুত্বপূর্ণ ধাপ। ক্লেনজ়িং-টোনিং-সেরাম-ক্রিম বা ময়শ্চারাইজ়ার—সারণিটি মনে রাখুন

• হেয়ার সেরাম তেল বা কন্ডিশনারের বিকল্প নয়। এটি চুলের ময়শ্চারাইজ়ার। তবে অনেকের ক্ষেত্রেই হেয়ার সেরাম কন্ডিশনারের চেয়েও ভাল কাজ করে। তার কারণ শ্যাম্পু করার পর চুলের কিউটিকল উন্মুক্ত হয়ে যায়। কন্ডিশনার সেটা পুরোপুরি ঢেকে মসৃণ করে দিতে পারে না। এই কাজটি সেরাম খুবই ভাল পারে। শ্যাম্পুর পর পাতলা কন্ডিশনার লাগিয়ে, একটু পরে উপযুক্ত সেরাম লাগানোই সবচেয়ে ভাল

বুঝে নিন, বেছে নিন

• রুক্ষশুষ্ক, খয়াটে চুল হলে (ফ্রিজ়ি) রোজ়উড, ক্যাস্টর অয়েল দিয়ে তৈরি সেরাম বাছুন। যে সেরামে কেরাটিন আছে, সেটি ডগা ফাটায় খুব কাজে দেবে। এই ধরনের চুলের বেশি যত্ন প্রয়োজন। এ ক্ষেত্রে এক দিন অন্তর সেরাম লাগাতে পারেন।

• দূষণে নির্জীব চুলের প্রাণ ফিরিয়ে দেয় ল্যাভেন্ডার ও হোহোবা অয়েল সমৃদ্ধ সেরাম। চুল খুব শুষ্ক লাগলে ক্রিমি সেরাম বাছবেন। সারা রাত লাগিয়ে রাখলে ভাল ফল পাবেন।

• যাঁরা প্রায়ই চুলে নানা রকম স্টাইল করেন এবং যাঁদের চুলে কালারিং বা অন্য কোনও ট্রিটমেন্ট করা হয়েছে তাঁরা হোহোবা, আর্গন, অলিভ অয়েল এবং গ্রিন টি-র গুণে ভরা সেরাম বেছে নিন। এতে চুল ঘনও হবে।

• কোঁকড়া চুলের বাড়তি আর্দ্রতা প্রয়োজন। না হলে চুল দ্রুত উসকোখুসকো এবং রুক্ষ দেখাবে। এ ক্ষেত্রে বাদাম তেল, হোহোবা, আর্গন তেলের সেরাম কাজে দেবে।

• চুলে চটজলদি ঝিলিক আনতে আমন্ড অয়েল, অ্যাভোকাডো অয়েল দেওয়া ‘ভাইটালাইজ়িং সেরাম’ লাগিয়ে নিন।

 

বাড়িতে বানান

• ত্বকের জন্য: অ্যালো ভেরা জেল, ভিটামিন ই তেল, এসেনশিয়াল অয়েল (ল্যাভেন্ডার বা পিপারমিন্ট) সম পরিমাণ নিয়ে ব্লেন্ড করুন। এতে একটি গোটা পাতিলেবুর রস, এক চা চামচ মধু মেশান। স্বাভাবিক ত্বকের জন্য এই সেরাম ব্যবহার করতে পারেন। তৈলাক্ত ত্বকের ক্ষেত্রে আধ চা চামচ মধু মেশাবেন। শুষ্ক ত্বকের জন্য আধখানা লেবুর রস দেবেন। সংবেদনশীল ত্বকের ক্ষেত্রে আধ চা চামচ লেবুর রস যথেষ্ট। কাচের বোতলে ঢেলে মিশ্রণটি ফ্রিজে রাখুন।

• হেয়ার সেরাম: দুই টেবিল চামচ অ্যালো ভেরা জেল, এক টেবিল চামচ এক্সট্রা ভার্জিন কোকোনাট অয়েল, এক গ্লাস গোলাপজল ও একটি ভিটামিন ই ক্যাপসুল ব্লেন্ড করে নিন। কাচের স্প্রে বোতলে রাখুন। হিট প্রোটেক্টিং সেরাম বা ইনস্ট্যান্ট শাইনিং সেরাম হিসেবে এটি ব্যবহার করতে পারেন। ভেজা চুলে স্প্রে করবেন।

ত্বক ও চুলের সেরাম সস্তা না হলেও প্রতিবার সামান্য পরিমাণেই লাগে। অনেক দিন চলে। আপনার রূপের দেখভালের দায়িত্ব সেরামকে দিয়েই দেখুন না! দু’-তিন বিন্দু মাত্র! তাতেই আপনার ত্বক আর চুলে জ্বলে উঠবে হাজার ওয়াটের দীপ্তি।

সবাই যা পড়ছেন

সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে
আরও পড়ুন

সবাই যা পড়ছেন

আরও পড়ুন