বিয়ের প্রস্তাবে সাড়া দেননি। তার জেরে প্রকাশ্য দিবালোকে নৃত্যশিল্পীর ওপর অ্যাসিড হামলা। দৃষ্টিশক্তি হারাতে বসেছেন তিনি। হামলাকারী যুবককে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ। জেরায় অপরাধ কবুল করেছে সে।

বছর একুশের আক্রান্ত ওই তরুণীর নাম রূপালি নিরাপুরে। টেলিভিশনের একাধিক রিয়্যালিটি শো-তে অংশ গ্রহণ করেছেন। হামলাকারী তাঁর পরিচিত মহেন্দ্র ওরফে মনু সেন।

নাচের ক্লাসে আলাপ দু'জনের। রূপালিকে একাধিকবার বিয়ের প্রস্তাব দেয় মনু। তবে প্রতিবারই তিনি তা প্রত্যাখ্যান করেন। তাতেই নাকি মেজাজ হারায় মনু। প্রতিশোধ নিতে উঠে পড়ে লাগে।

সম্প্রতি মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রে একটি অনুষ্ঠানে যোগ দেওয়ার ডাক পান। মঙ্গলবার রাতে রওনা দেওয়ার কথা ছিল তাঁর। সেই মতো গোছগাছে ব্যস্ত ছিলেন। সেই সময় দুপুর ১২টা বেজে ৪০ মিনিটে তাঁকে ফোন করে দেখা করতে বলে মনু। জানায়, তাঁর বাড়ির বাইরেই দাঁড়িয়ে রয়েছে সে। প্রথমে রাজি না হলেও, বার বার অনুরোধে বাড়ি থেকে বেরিয়ে আসেন রূপালি।

রাস্তার ওপরই গ্লাসে অ্যাসিড নিয়ে দাঁড়িয়েছিল মনু। কাপড়ে মুখ ঢাকা ছিল তার। রূপালি কাছে আসতেই তাঁর মুখে ছুঁড়ে দিয়ে পালিয়ে যায়। রাস্তায় পডে় কাতরাতে থাকেন রূপালি। পরিবারের লোকজন ও স্থানীয় বাসিন্দারা তাঁকে তড়িঘড়ি হাসপাতালে নিয়ে যান।

অ্যাসিডে তাঁর মুখে কোনও দাগ পড়েনি।পুড়েও যায়নি। তবে ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে চোখ দুটি। চিকিৎসকরা জানিয়েছেন, ক্ষতিকারক রাসায়নিকের সংস্পর্শে তাঁর চোখের কর্নিয়া ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে। ইতিমধ্যেই ২৫ শতাংশ দৃষ্টিশক্তি হারিয়েছেন তিনি। অ্যাসিডে কোন ধরনের রাসায়নিক ছিল তা এখনও পর্যন্ত জানা যায়নি।

মনুর বিরুদ্ধে পুলিশকে বয়ান দেন রূপালির বাবা। তাঁদের বাড়ির বাইরে লাগানো সিসিডিভি ফুটেজেও গোটা ঘটনা ধরা পড়ে। যার ভিত্তিতে মনুকে গ্রেপ্তার করে পুলিশ। জেরায় অপরাধ কবুল করেছে সে। ২০ টাকা দিয়ে সে ওই অ্যাসিড কিনেছিল বলে জানিয়েছে।