• সংবাদ সংস্থা
সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে

কঠিন লড়াইয়ের সামনে বিজেপি, পাঁচ রাজ্যের বুথফেরত সমীক্ষায় টক্করে এগিয়ে রাহুল

Narendra Modi-Rahul Gandhi
পাঁচ রাজ্যে বুথফেরত সমীক্ষার ফলাফলে বিজেপি নেতৃত্বের কপালে চিন্তার ভাঁজ পড়তে পারে। গ্রাফিক: শৌভিক দেবনাথ।

লোকসভা নির্বাচনের আগেই দুশ্চিন্তা বাড়তে পারে বিজেপি নেতৃত্বের। অন্তত পাঁচ রাজ্যের বিধানসভা নির্বাচনের বুথফেরত সমীক্ষার ফলাফলে তেমনটাই ইঙ্গিত মিলছে। প্রায় সব সমীক্ষাতেই বিজেপি-র কোণঠাসা ছবিটা ফুটে উঠেছে। যদিও বুথফেরত সমীক্ষার এই ফলাফল উল্টে যেতে পারে আগামী ১১ ডিসেম্বর। ওই দিনই পাঁচ রাজ্যের ভোটের ফলাফল ঘোষণা করা হবে।

রাজস্থান, মধ্যপ্রদেশ, ছত্তীসগঢ়, তেলঙ্গানা এবং মিজোরাম— এই পাঁচ রাজ্যের মধ্যে রাজস্থানে পতন ঘটতে চলেছে বিজেপি-র বসুন্ধরা রাজে সরকারের। ওই রাজ্যে ক্ষমতায় আসতে পারে কংগ্রেস। প্রায় সব বুথফেরত সমীক্ষাতেই এমন আভাস মিলেছে। অন্য দিকে, মধ্যপ্রদেশ এবং ছত্তীসগঢ়ে হাড্ডাহাড্ডি লড়াই হবে কংগ্রেস এবং বিজেপি-র। তেলঙ্গানায় ফের ক্ষমতা দখল করতে পারে কে চন্দ্রশেখর রাওয়ের পার্টি। মিজোরামে ক্ষমতা হারাতে পারে কংগ্রেস।

ইন্ডিয়া টুডে-এএমআইয়ের সমীক্ষা অনুযায়ী, রাজস্থানে বিজেপি পাবে ৫৫-৭২টি আসন। তবে কংগ্রেস প্রার্থীরা সেখানে ১১৯-১৪১টি আসনে জয়লাভ করবেন। অন্যান্যরা পাবেন ৪-১১টি আসন। টাইমস নাও-সিএনএক্স-এর যৌথ সমীক্ষাতেও প্রায় একই ছবি ফুটে উঠেছে। ওই সমীক্ষায় বিজেপি ৮৫টি আসন জিতলেও কংগ্রেস ১০৫টি আসনে জিতবে বলে দাবি করা হয়েছে। অন্য দলগুলি পাবে ৯টি আসন। রিপাবলিক টিভি এবং জেকেবি-র যৌথ সমীক্ষায় ২০০ আসনের বিধানসভায় বিজেপি ৮৩-১০৩টি আসনে জয়ী হবে বলে দাবি করা হয়েছে। এই সমীক্ষা অনুযায়ী, কংগ্রেস অবশ্য বিজেপি-র সঙ্গে সমানে সমানে লড়বে। কংগ্রেস প্রার্থীরা রাজ্যের ৮১-১০১টি আসন জিতবেন বলে জানানো হয়েছে। অন্য প্রার্থীরা ১৫টি আসন দখল করবেন। নিউজ নেশনের সমীক্ষাতেও এগিয়ে রয়েছে কংগ্রেস। ৯৯-১০৩টি আসন দখল করতে পারেন কংগ্রেস প্রার্থীরা। অন্য দিকে বিজেপি জিততে পারে ৮৯-৯৩টি আসন।

(ইতিহাসের পাতায় আজকের তারিখ, দেখতে ক্লিক করুন — ফিরে দেখা এই দিন।)

মধ্যপ্রদেশে কংগ্রেস এবং বিজেপি-র মধ্যে বিধানসভা দখলের লড়াইটা সমানে সমানে হবে বলেই আভাস মিলেছে সমীক্ষায়। সেখানে শিবরাজ সিংহ চৌহানের বিজেপি-র সঙ্গে কড়া টক্কর দিচ্ছে কংগ্রেস দল। ইন্ডিয়া টুডে-এএমআইয়ের সমীক্ষায় দেখা গিয়েছে, বিজেপি-র ১০২-১২০টির পাশাপাশি কংগ্রেস প্রার্থীরাও ১০৪-১২২টি আসনে জয়লাভ করবেন। অন্যান্য জিতবেন ৪-১১টি আসন। যদিও টাইমস নাও-সিএনএক্সয়ের সমীক্ষায় দেখা গিয়েছে, এই রাজ্যে ১২৬টি আসন দখল করবে শিবরাজের দল। কংগ্রেস পেতে পারে ৮৯টি আসন। অন্যান্যরা ১৫টি আসন দখল করবে। তবে রিপাবলিক টিভি-জেকেবি, নিউজ নেশন, ইন্ডিয়া নিউজ-এমপি নেতা-র সমীক্ষাতেও বিজেপি-র সঙ্গে কংগ্রেসের হাড্ডাহাড্ডি লড়াইয়ের কথা বলা হয়েছে।

গ্রাফিক: শৌভিক দেবনাথ।

মধ্যপ্রদেশের মতো ছত্তীসগঢ়েও একই ভাবে লড়াই হবে বলে জানিয়েছে সমীক্ষাগুলি। সে রাজ্যে ইন্ডিয়া টুডে-এএমআইয়ের যৌথ সমীক্ষায় ২১-৩১টি আসনে বিজেপি-র জয় হলেও ৫৫-৬৫টি আসনে কংগ্রেস জিতবে বলে দাবি করা হয়েছে। মধ্যপ্রদেশ এবং ছত্তীসগঢ়ে কোনও দলই স্পষ্ট ভাবে সংখ্যাগরিষ্ঠতা লাভ করবে না। বরং ওই দু’রাজ্যেই জোট সরকার গড়ার প্রবল সম্ভাবনা রয়েছে।

আরও পড়ুন: মোদীর ভারতে রহস্যময় শক্তি আছে ভোটযন্ত্রের, কটাক্ষ রাহুলের

তবে তেলঙ্গানায় ফের ক্ষমতায় আসতে পারে কেসিআর সরকার। এমনটাই মত সমীক্ষার। নির্ধারিত সময়ের আগেই বিধানসভা নির্বাচনে গিয়েছে তেলঙ্গানা। ইন্ডিয়া টুডে-এএমআইয়ের যৌথ সমীক্ষায় প্রকাশ, ওই রাজ্যের ১১৯টি আসনবিশিষ্ট বিধানসভায় ৭৯-৯১টি আসন জিতবে কেসিআর-এর দল তেলঙ্গানা রাষ্ট্র সমিতি (টিআরএস)। কংগ্রেস, টিডিপি জোটের মিলবে ২১-৩৩টি আসন। অন্যান্যরা পাবে ৫-১০টি আসন।

আরও পড়ুন: সেমিফাইনালের শেষ দফা: রাজস্থানে সকাল ১১টা পর্যন্ত ভোট পড়ল ২২ শতাংশ

মিজোরামে কংগ্রেস ক্ষমতা হারাতে পারে বলে দাবি করা হয়েছে সমীক্ষায়। তবে রিপাবকলিক টিভি-সি ভোটারসের যৌথ সমীক্ষা অনুযায়ী, ওই রাজ্যের ৪০টি বিধানসভা আসনে কংগ্রেস জিতবে ১৪-১৮টি আসন। এমএনএফ ১৬-২০টি আসনের দখল নেবে। অন্যান্যরা ৩-১০টি আসন জিততে পারে।

(ভোটের খবর, জোটের খবর, নোটের খবর, লুটের খবর- দেশে যা ঘটছে তার সেরা বাছাই পেতে নজর রাখুন আমাদের দেশ বিভাগে।)

সবাই যা পড়ছেন

সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে
আরও পড়ুন

সবাই যা পড়ছেন

আরও পড়ুন