টাকা ধার নিয়েছিলেন মহিলা। কিন্তু সময়ে শোধ দিতে পারেননি। এই ছিল ‘অপরাধ’। এই ‘অপরাধ’-এর জন্য তাঁকে বাড়ি থেকে বের করে রাস্তায় ফেলে নির্মমভাবে পেটাল স্থানীয় কংগ্রেস কাউন্সিলরের ভাই। আর টাকার জন্য মহিলাকে রাস্তায় ফেলে পেটানোর সেই ভিডিয়ো সোশ্যাল মিডিয়ায় ছড়িয়ে পড়তেই সমালোচনার ঝড় ওঠে।

টাকার জন্য মহিলার এই সম্মানহানির ঘটনা সম্প্রতি ঘটেছে পঞ্জাবের মুক্তসার শহরে। মহিলা নিগ্রহে অভিযুক্ত ব্যক্তির দাদা মুক্তসার মিউনিসিপাল কর্পোরেশনের একজন কংগ্রেস কাউন্সিলর। তাঁর নাম রাকেশ চৌধরি।আরতাঁর ভাইয়ের নাম সুরেশ চৌধরি।

ভাইরাল হওয়া সেই ভিডিয়োতে দেখা যাচ্ছে, ওই মহিলাকে জোর করে বাড়ি থেকে বার করে আনছেন কংগ্রেস কাউন্সিলরের ভাই। তার পর রাস্তার উপর ফেলে মারছেন লাঠি-বেল্ট দিয়ে। সেই সঙ্গে চলছে মহিলার পেটে একের পর এক লাথি। এই সময় এক অপর এক মহিলা সুরেশকে আটকানোর চেষ্টা করলে সেই মহিলাকেও বেশ কয়েক ঘা খেতে হয় সুরেশের হাতে।মহিলাকে পেটানোর ৪৫ সেকেন্ডের এই ভিডিয়ো নিয়েই এখন উত্তাল নেট দুনিয়া। 

আরও পড়ুন: বিয়েতে নারাজ নাবালিকা মেয়েকে ছুরি দিয়ে কোপালেন বাবা!

জানা গিয়েছে, ওই মহিলা সুরেশের কাছ থেকে ২৩ হাজার টাকা ধার নিয়েছিলেন। সেই টাকা ফেরত নিয়েই এই কাণ্ড। এই ঘটনার পর সুরেশ-সহ ছ’জন অভিযুক্তকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। এ ছাড়াও আরও চার জনের খোঁজ চলছে বলে জানিয়েছেন সিনিয়র পুলিশ অফিসার মনজিৎ সিংহ ধেসি। মার খাওয়ার পর অসুস্থ হয়ে পড়েন ওই মহিলা। তাঁকে মুক্তসারের সিভিক হাসপাতালে ভর্তি করানো হয়েছে। তবে মহিলার অবস্থা এখন বিপন্মুক্ত বলে জানিয়েছেন ওই পুলিশ অফিসার। টুইটারে এই ঘটনার নিন্দা করেছেন পঞ্জাবের মুখ্যমন্ত্রী অমরিন্দর সিংহ। 

 

আরও পড়ুন: ছেলে মেয়ের সামনেই স্ত্রীকে পিটিয়ে মারল স্বামী