• সংবাদ সংস্থা
সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে

৮৭ কোটি টাকা হাতাতে গিয়ে নিজের পকেটই কাটলেন বিজয়!

Fine
প্রতীকী ছবি।

বেকার। নামধারী কোনও ডিগ্রিও নেই যে বড়সড় একটা চাকরি জোটাবেন। কিন্তু মাথায় বুদ্ধি নেহাত কম নয়। ভেবেছিলেন বেকারত্বের দায় কর্মসংস্থান কেন্দ্রের উপর চাপিয়ে মোটা টাকা ক্ষতিপূরণ আদায় করবেন। অল্পস্বল্প নয়,৮৭ কোটি টাকা ক্ষতিপূরণ দাবি করে মামলা ঠুকে দিয়েছিলেন বিজয় কুমার।

জাতীয় ক্রেতা সুরক্ষা কমিশনে মামলা করেছিলেন বিজয় কুমার নামে ওই ব্যক্তি। মামলায় সারবত্তা নেই বুঝে তাঁর বিরুদ্ধেই রায় দেয় কমিশন। মামলা করার জন্য ১০০ টাকা জরিমানা দেওয়ার নির্দেশ দিয়েছে তাঁকে।

হরিয়ানার পাচকুলার বাসিন্দা বিজয় কুমার। বিজয়ের চাকরি নেই। পড়াশোনাও জানেন না। নাম লিখিয়েছিলেন সরকারি কর্মসংস্থান কেন্দ্রে। চাকরি না পেয়ে ফন্দি আঁটেন মামলা করার। সরকারি কর্মসংস্থান কেন্দ্রের বিরুদ্ধে তাঁর অভিযোগ, ওই কেন্দ্র তাঁকে কোনও চাকরি দিতে পারেনি। তাঁর অভিযোগ, কেন তাঁকে চাকরি দেওয়া হয়নি, তথ্য জানার অধিকার আইনে (আরটিআই) কর্মসংস্থান কেন্দ্রের কাছে তিনি জানতে চেয়েছিলেন। কিন্তু সে তথ্যও তাঁকে দেওয়া হয়নি।

আরও পড়ুন: বিয়ে করতে হিন্দু হয়েছিলেন মুসলিম যুবক, কিন্তু স্ত্রী ফিরলেন বাপের ঘরেই

কিন্তু সব দিক খতিয়ে দেখার পর তাঁর বিরুদ্ধেই রায় দেয় কমিশন। কারণ তিনি যে আরটিআই করেছিলেন, তার কোনও নির্দিষ্ট প্রমাণ কমিশনকে দিতে পারেননি বিজয়। মিথ্যা মামলা করার জন্য বিজয়কে ১০০ টাকা জরিমানা করে কমিশন। যে কোনও নথিভুক্ত সংস্থায় সেই ১০০ টাকা দিয়ে তার রসিদ কমিশনের কাছে জমা দিতে বলা হয়েছে তাঁকে।

কমিশনের বক্তব্য, ন্যাশনাল কনজিউমার কমিশন গ্রাহকের স্বার্থ সুরক্ষা করে থাকে। তার অপব্যবহার করার জন্যই ১০০ টাকা জরিমানা করা হয়েছে।

সবাই যা পড়ছেন

সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে
আরও পড়ুন

সবাই যা পড়ছেন

আরও পড়ুন