• সংবাদ সংস্থা
সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে

শ্রমিক স্পেশালের জন্য বান্দ্রায় শ্রমিকদের ভিড়

Migrant Workers
ছবি: পিটিআই।

বাড়ি ফেরানোর দাবি তুলে গত ১৪ এপ্রিল মুম্বইয়ের বান্দ্রা টার্মিনাসে জড়ো হয়েছিলেন কয়েক হাজার পরিযায়ী শ্রমিক। আজও সেই বান্দ্রা টার্মিনাস সংলগ্ন রাস্তায় বিপুল সংখ্যক পরিযায়ী শ্রমিকের ভিড়। তবে এ বার তাঁরা এসেছিলেন শ্রমিক স্পেশাল ট্রেন ধরতে। কিন্তু নাম নথিভুক্ত না-থাকায় অনেক শ্রমিকই ওই বিশেষ ট্রেনে উঠতে পারেননি। পরে ওই ভিড় সরিয়ে দেয় পুলিশ। 

বান্দ্রা স্টেশন থেকে আজ পূর্ণিয়াগামী শ্রমিক স্পেশাল ট্রেন ছাড়ে। সেই ট্রেন ধরতে সকাল ১১টা থেকেই বিহারের পরিযায়ী শ্রমিকেরা বান্দ্রা স্টেশন সংলগ্ন টার্মিনাসে জড়ো হতে শুরু করেন। পুলিশ জানিয়েছে, বিশেষ ট্রেন ধরার জন্য কয়েকশো শ্রমিক জিনিসপত্র নিয়ে বান্দ্রা টার্মিনাসের গেটের দিকে ছুটতে থাকেন। এক সময় রীতিমতো হুড়োহুড়ি পড়ে যায়। তখন পারস্পরিক দূরত্ব বিধি পুরোপুরি শিকেয়। বান্দ্রা টার্মিনাসমুখী ওই শ্রমিক-ভিড়ের ভিডিয়ো সোশ্যাল মিডিয়ায় ভাইরাল।

পশ্চিম রেলের তরফে প্রকাশিত এক বিবৃতিতে বলা হয়েছে, আজ যাঁরা স্টেশনের বাইরে ভিড় করেছিলেন, তাঁদের অধিকাংশই ট্রেনে ওঠার জন্য নাম নথিভুক্ত করেননি। যাঁরা নাম নথিভক্তু করাননি, তাঁদের সঙ্গে রেল কর্তৃপক্ষ কোনও যোগাযোগও করেননি। শ্রমিক স্পেশালের খবর পেয়েই অনেকে চলে এসেছিলেন। পশ্চিম রেলের মুখ্য জনসংযোগ আধিকারিক রবীন্দ্র ভাকর বলেন, ‘‘যাঁরা নাম নথিভুক্ত করিয়েছিলেন, তাঁদের পরীক্ষা করে স্টেশনে ঢুকতে দেওয়া হয়। নির্ধারিত সময় বেলা ১২টায় ১৭০০ যাত্রী নিয়ে শ্রমিক স্পেশাল পূর্ণিয়ার উদ্দেশে রওনা হয়।’’

আরও পড়ুন: গাঁধী পরিবার মাঠে নামায় চাপে বিজেপি

আরও পড়ুন: কারা পাবে ঋণ, শোধ হবে তো? প্রশ্ন বিরোধীদের

গত কাল মহারাষ্ট্রের মুখ্যমন্ত্রী উদ্ধব ঠাকরে দাবি করেছিলেন, পরিযায়ী শ্রমিকদের থাকার জন্য তাঁর সরকার সুবন্দোবস্ত করেছে। তিনি বলেন, ‘‘অন্তত সাড়ে ছ’লক্ষ পরিযায়ী শ্রমিকের তিন বেলা খাওয়ার ব্যবস্থা করেছে সরকার। তবে অনেকেই বাড়ি ফিরতে চাইছেন। ইতিমধ্যেই ট্রেন ও বাসে করে পাঁচ লক্ষের বেশি পরিযায়ী শ্রমিক নিজেদের রাজ্যে ফিরে গিয়েছেন। এখনও বহু শ্রমিক ফেরার অপেক্ষায় রয়েছেন।’’ ঘরে ফিরতে চাওয়া শ্রমিকদের একটা বড় অংশকেই আজ দেখা গিয়েছে বান্দ্রা টার্মিনাস চত্বরে।

সবাই যা পড়ছেন

সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে
আরও পড়ুন

সবাই যা পড়ছেন

আরও পড়ুন