• নিজস্ব প্রতিবেদন
সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে

সুস্থ ৬০%, তবু রোগী বাড়ল আরও ২০,০০০

Coronavirus
ছবি: পিটিআই।

দেশে ২৪ ঘণ্টায় করোনা-আক্রান্তের সংখ্যা এই প্রথম ২০ হাজার পেরোল। 

২০,৯০৩টি নতুন সংক্রমণে মোট আক্রান্তের সংখ্যা এখন ৬.২৫ লক্ষের বেশি। আরও ৩৭৯ জনের মৃত্যুতে দেশে মোট মৃতের সংখ্যা হয়েছে ১৮,২১৩। কেন্দ্রীয় স্বাস্থ্য মন্ত্রকের পরিসংখ্যান অনুযায়ী, আজ সকাল পর্যন্ত অ্যাক্টিভ রোগীর সংখ্যা ২,২৭,৪৩৯। সুস্থের সংখ্যা ৩.৭৯ লক্ষ পেরিয়েছে। আরোগ্যের হার ৬০.৭৩ শতাংশে পৌঁছেছে। স্বাস্থ্য মন্ত্রকের বক্তব্য, দ্রুত সংক্রমণ ধরা পড়া এবং ‘পরীক্ষা, চিহ্নিতকরণ, চিকিৎসা’, এই তিন পর্যায়ে যথাযথ পদক্ষেপের ফলেই পরিস্থিতির উন্নতি হচ্ছে। গত ২০ ঘণ্টায় ২০ হাজার নতুন সংক্রমণ যেমন ধরা পড়েছে, তেমনই ২০,০৩৩ জন কোভিড রোগী সুস্থ হয়ে ছাড়া পেয়েছেন বলেও মন্ত্রক জানিয়েছে।

করোনা পরিস্থিতি পর্যালোচনায় আজ ফের সমস্ত রাজ্যের সঙ্গে বৈঠক করেন ক্যাবিনেট সচিব। কেন্দ্র জানিয়েছে, ১ এপ্রিল থেকে রাজ্যগুলিকে ২.০২ কোটির বেশি এন-৯৫ মাস্ক, ১.১৮ কোটির বেশি পিপিই কিট এবং ১১,৩০০ ‘মেক ইন ইন্ডিয়া’ ভেন্টিলেটর পাঠানো হয়েছে। পাঠানো হয়েছে ৬.১২ কোটি হাইড্রক্সিক্লোরোকুইন ট্যাবলেটও। আজ এক দিনে সর্বোচ্চ সংক্রমণের রেকর্ড গড়েছে মহারাষ্ট্র। ৬,৩৩০ জন নতুন রোগীর সন্ধান গত ২৪ ঘণ্টায় মিলেছে বলে স্থানীয় প্রশাসন জানিয়েছে। মোট রোগী ১.৮৬ লক্ষ। সংবাদ সংস্থা জানিয়েছে, তামিলনাড়ুতে মোট রোগীর সংখ্যা সকালের সরকারি হিসেবে ৯৮ হাজার থাকলেও সারা দিনে তা এক লক্ষ পেরিয়ে গিয়েছে। 

প্রথম পাঁচ

       রাজ্য                    আক্রান্ত                         মৃত
    মহারাষ্ট্র               ১,৮৬,৬২৬                 ৮১৭৮
    তামিলনাড়ু              ৯৮,৩৯২                  ১৩২১
    দিল্লি                         ৯২,১৭৫                   ২৮৬৪
    গুজরাত                  ৩৩,৯১৩                   ১৮৮৬
    উত্তরপ্রদেশ             ২৪,৮২৫                     ৭৩৫

                            পশ্চিমবঙ্গ ৬ নম্বরে
             • আক্রান্ত: ১৯,৮১৯    • মৃত: ৬৯৯       

                                                (সূত্র: কেন্দ্রীয় স্বাস্থ্য মন্ত্রক)

আরও পড়ুন: ট্রোজান হর্স’! বিদ্যুৎক্ষেত্রে চিনা সরঞ্জাম আমদানি নয়​

আরও পড়ুন: আবার ফিরল সেই টাকা ফেরানোর দৃশ্য, ভাবমূর্তি উজ্জ্বল হচ্ছে কি? ধন্দ তৃণমূলেই

প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী আজ লাদাখ থেকে ফিরে মুখ্যমন্ত্রী সর্বানন্দ সোনোয়ালকে ফোন করে অসমের করোনা পরিস্থিতি নিয়ে খবর নেন। ওই রাজ্যে আক্রান্তের সংখ্যা সাড়ে ন’হাজার পার করে দ্রুত দশ হাজারের দিকে যাচ্ছে। এর মধ্যেই আজ গুয়াহাটি মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে প্লাজ়মা ব্যাঙ্ক চালু হয়েছে। প্রথম প্লাজ়মা-দাতা হলেন, করোনা সারিয়ে সুস্থ হয়ে ওঠা ওই হাসপাতালেরই চিকিৎসক লিথিকেশ। স্বাস্থ্যমন্ত্রী হিমন্তবিশ্ব শর্মা সুস্থ হয়ে-ওঠা রোগীদের প্লাজ়মা দানে এগিয়ে আসার আহ্বান জানান।

দেশে আক্রান্ত 

৬,২৫,৫৪৪
মৃত     ১৮,২১৩
সুস্থ     ৩,৭৯,৮৯১

(শুক্রবারের করোনা বুলেটিন। সূত্র: কেন্দ্রীয় স্বাস্থ্য মন্ত্রক)

দেশে রোজ গড়ে ১৯-২০ হাজার নতুন রোগী। আন্তর্জাতিক সমীক্ষার রাতের পরিসংখ্যান ধরলে, মোট আক্রান্তের সংখ্যায় রাশিয়ার থেকে ভারত আর ৩০-৩২ হাজার পিছিয়ে আছে। রোগী বাড়ছে ভ্লাদিমির পুতিনের দেশেও। তবু প্রশ্নটা উঠছে। এই সপ্তাহের মধ্যেই বিশ্ব-তালিকায় তিন নম্বরে পৌঁছে যাবে ভারত?

সবাই যা পড়ছেন

সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে
আরও পড়ুন

সবাই যা পড়ছেন

আরও পড়ুন