দিল্লির বায়ু দূষণ নিয়ে আগেই নানা রকম আশঙ্কা তৈরি হয়েছিল। এ বার সেই আশঙ্কা আরও বাড়িয়ে দিল সাম্প্রতিক এক গবেষণা। যাতে চিকিৎসকরা জানিয়েছেন, দিনে ১৫-২০টি সিগারেট খেলে ফুসফুসের যতটা ক্ষতি হয়, বায়ু দূষণের জেরে সাধারণ মানুষের অবস্থা সে রকমই।

স্যর গঙ্গারাম হাসপাতালের ফুসফুস বিশেষজ্ঞ অরবিন্দ কুমারপ্রায় ৩০ বছর ধরে চিকিৎসার সঙ্গে যুক্ত।তাঁর  পর্যবেক্ষণ, বর্তমানে কম বয়সীদের ফুসফুসে যে ভাবে কালো দাগ দেখা যাচ্ছে, তা আগে কোনওদিন দেখিনি। এটা খুবই আতঙ্কের। তাঁর কথায়, দিনে ১৫-২০টি সিগারেট খেলে যে প্রভাব পড়ে, অনেকটা সে রকমই ক্ষতিকারক পরিস্থিতি তৈরি হয়েছে।

দূষণ মোকাবিলায় ইতিমধ্যেই কঠোর পদক্ষেপ করেছে দিল্লি প্রশাসন। গত বৃহস্পতিবার থেকে দিল্লিতে শুরু হয়েছে ১০ দিনের দূষণ জনিত আপৎকালীন ব্যবস্থা। বন্ধ রাখা হয়েছে সব রকম নির্মাণ কাজ, কয়লা নির্ভর শিল্প ও কল-কারখানা। ব্যক্তিগত গাড়ির বদলে গণ পরিবহণ ব্যবহারের আর্জি জানানো হয়েছে। তার জন্য বাড়িয়ে দেওয়া হয়েছে সব রকম গণ পরিবহণের সংখ্যা। চলছে অতিরিক্ত ট্রেন ও মেট্রো।

আরও পড়ুন: রাজধানীতে নাভিশ্বাস! ১০ দিনের ‘পলিউশন ইমার্জেন্সি’ ঘোষণা, বন্ধ নির্মাণ, গণ পরিবহণে জোর

দূষণের নিয়ম ভঙ্গ করলে ফৌজদারি আইনে মামলা দায়েরের সুপারিশ করেছে দিল্লির দূষণ নিয়ন্ত্রণ কর্তৃপক্ষ। দিল্লির পাশাপাশি পঞ্জাব এবং হরিয়ানাতেও এই নিয়ম কার্যকর করার নির্দেশিকা জারি করেছে কেন্দ্রীয় দূষণ নিয়ন্ত্রণ পর্ষদ। দিল্লি সরকারের তরফে জানিয়ে দেওয়া হয়েছে, দূষণ-যুদ্ধে তারা সব রকম ভাবে প্রস্তুত।