• সংবাদ সংস্থা
সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে

করোনা সংক্রমণ বাড়ছে, তাই এক বছর কোনও নতুন প্রকল্প নয়, জানাল অর্থমন্ত্রক

nirmala sitaraman
কেন্দ্রীয় অর্থমন্ত্রী নির্মলা সীতারামন। ছবি- পিটিআই।

আগামী এক বছরে দেশের কোথাও কোনও নতুন প্রকল্প চালু করবে না কেন্দ্রীয় সরকার। দেশজুড়ে করোনা সংক্রমণ বেড়ে চলার জন্য সরকারি খরচ যে ভাবে বেড়ে চলেছে, তাতে রাশ টানতেই এই সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে বলে কেন্দ্রীয় অর্থমন্ত্রকের তরফে শুক্রবার জানানো হয়েছে।

এই সময়ে অনুমোদনের জন্য নতুন কোনও প্রকল্পের অনুরোধও অর্থমন্ত্রকের কাছে না পাঠানোর নির্দেশ দেওয়া হয়েছে সবক’টি মন্ত্রককে।

কেন্দ্রীয় অর্থমন্ত্রকের একটি ‘নোট’-এ বলা হয়েছে, ‘‘কোভিড-১৯ ভাইরাস সংক্রমণের জন্য যে অতিমারি দেখা দিয়েছে, তার মোকাবিলায় সরকারি রাজস্বের উপর অভূতপূর্ব চাপ বাড়ছে, বেড়ে চলেছে। কারণ, সংক্রমণ মোকাবিলাটাই এই সময়ের সবচেয়ে বড় প্রয়োজন হয়ে উঠেছে।’’

আরও পড়ুন- দেশে ২৪ ঘণ্টায় রেকর্ড মৃত্যু, নতুন করে করোনা আক্রান্ত ৯৮৫১

আরও পড়ুন- ৮ জুন থেকে কন্টেনমেন্ট জ়োনের বাইরে রেস্তরাঁ, ধর্মস্থান,হোটেল খোলার নির্দেশকা​

শুক্রবার সকালে কেন্দ্রীয় স্বাস্থ্যমন্ত্রকের দেওয়া তথ্য অনুসারে গত ২৪ ঘণ্টায় নতুন করে করোনায় সংক্রমিত হয়েছেন ন’হাজার ৮৫১ জন। এক দিনে এত সংখ্যক মানুষ এর আগে সংক্রমিত হননি। এই বৃদ্ধির জেরে দেশে মোট কোভিড-১৯ আক্রান্ত হলেন দু’লক্ষ ২৬ হাজার ৭৭০ জন।

এই সময়ে কোন কোন প্রকল্পে ব্যয় বরাদ্দ করা হবে, কেন্দ্রীয় অর্থমন্ত্রকের তরফে সেটাও জানানো হয়েছে। তার মধ্যে প্রথমেই রয়েছে প্রধানমন্ত্রীর গরিব কল্যাণ প্যাকেজ। তা ছাড়া, হালে ঘোষিত আত্মনির্ভর ভারত নীতিতে যে সব প্রকল্প রয়েছে, সেগুলিতে ব্যয় বরাদ্দ করা হবে বলে জানিয়েছে অর্থমন্ত্রক। এগুলি ছাড়া চলতি অর্থবর্ষে আর কোনও প্রকল্পে ব্যয় বরাদ্দের প্রস্তাব অনুমোদন করা হবে না।

এ বারের কেন্দ্রীয় বাজেটে নতুন যে সব প্রকল্পের ঘোষণা করা হয়েছিল, আগামী বছরের ৩১ মার্চ পর্যন্ত সেগুলিতেও ব্যয় বরাদ্দ করা হবে না বলে জানিয়েছে অর্থমন্ত্রক।

এও জানানো হয়েছে, এই সময়ে যদি আপৎকালীন ভিত্তিতে কোনও প্রকল্পের জন্য ব্যয় বরাদ্দের প্রয়োজন হয়, তা হলে কেন্দ্রীয় ব্যয় সংক্রান্ত কেন্দ্রীয় দফতরের অনুমোদন নিয়েই এগোতে হবে।

কেন্দ্রীয় স্বাস্থ্য মন্ত্রকের দেওয়া হিসাবে, গত ২৪ ঘণ্টায় মৃত্যু হয়েছে ২৭৩ জনের। যা এক দিনে মৃত্যুর নিরিখে সর্বোচ্চ। এই নিয়ে করোনার থাবায় প্রাণ হারালেন মোট ছ’হাজার ৩৪৮ জন। এই বৃদ্ধির জেরে নেদারল্যান্ডসকে টপকে মোট মৃত্যুর নিরিখে বিশ্বের দ্বাদশ স্থানে চলে এল ভারত। করোনার জেরে দেশে সবথেকে বেশি মৃত্যু হয়েছে মহারাষ্ট্রে। এখনও অবধি দু’হাজার ৭১০ জন মারা গিয়েছেন সেখানে। এর পরই রয়েছে গুজরাত। সেখানে মারা গিয়েছেন এক হাজার ১৫৫ জন। রাজধানী দিল্লিতে ৬৫০ জনের প্রাণ কেড়েছে করোনা। এর পর রয়েছে মধ্যপ্রদেশ (৩৭৭) ও পশ্চিমবঙ্গ (৩৫৫)। শতাধিক মৃত্যুর তালিকায় রয়েছে উত্তরপ্রদেশ (২৪৫), তামিলনাড়ু (২২০), রাজস্থান (২১৩) ও তেলঙ্গানা (১০৫)।

সবাই যা পড়ছেন

সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে
আরও পড়ুন

সবাই যা পড়ছেন

আরও পড়ুন