এক বছরও হয়নি, ফাইটার জেট দুর্ঘটনায় মৃত্যু হয়েছে স্বামীর। তবে মর্মান্তিক সেই স্মৃতিতে ভেঙে পড়লেও থেমে থাকেননি স্ত্রী। বরং স্বামীর মতোই ভারতীয় বায়ুসেনায় যোগ দিতে চান স্কোয়াড্রন লিডার সমীর অবরোলের স্ত্রী গরিমা অবরোল।

বায়ুসেনার যোগদানের প্রাথমিক পরীক্ষাতে ইতিমধ্যেই সফল হয়েছেন গরিমা। বারাণসীতে সার্ভিসেস সিলেকশন বোর্ড (এসএসবি)-এর প্রাথমিক বাধা উতরোনর পর তেলঙ্গানার ডান্ডিগালে বায়ুসেনার অ্যাকাডেমিতে ট্রেনিং শুরু হবে তাঁর। এর পর আগামী বছরের জানুয়ারিতে বায়ুসেনায় যোগদানের সুযোগ পাবেন তিনি।

গরিমার সাম্প্রতিক ট্রেনিংয়ের ছবি-সহ টুইটারে এ কথা জানিয়েছেন বায়ুসেনার অবসরপ্রাপ্ত এয়ার মার্শাল অনিল চোপড়া। ওই টুইটারে গরিমাকে ‘এক ব্যতিক্রমী নারী’ হিসাবে উল্লেখ করেছেন এয়ার মার্শাল।  

আরও পড়ুন: পাক আকাশে ভারতীয় উড়ানে নিষেধাজ্ঞা উঠল, বালাকোট অভিযানের পর এই প্রথম

১ ফেব্রুয়ারি বেঙ্গালুরুর হিন্দুস্থান এরোনটিক্স লিমিটেড (হ্যাল) বিমানবন্দরে মিরাজ ফাইটার জেট দুর্ঘটনায় মারা যান গরিমার স্বামী স্কোয়াড্রন লিডার সমীর অবরোলের (৩৩) এবং স্কোয়াড্রন লিডার সিদ্ধার্থ নেগির (৩১)। মিরাজ ২০০০ ফাইটার জেট নিয়ে পরীক্ষামূলক উড়ানের সময় ওই দুর্ঘটনা ঘটে। টেকএঅফের সময়ই রানওয়েতেই ফাইটার জেটে আগুন জ্বলে ওঠে। এর পর বিমানবন্দরের পাঁচিলে ধাক্কা লেগে তাতে ভয়ানক বিস্ফোরণ ঘটে এবং তা ভেঙে পড়ে।

আরও পড়ুন: বিধানসভায় থাকতে জোর করছেন স্পিকার, সুপ্রিম কোর্টে বললেন কর্নাটকের বিদ্রোহী বিধায়করা

মিরাজ ফাইটার জেট দুর্ঘটনায় মৃত্যু হয় স্কোয়াড্রন লিডার সিদ্ধার্থ নেগি (বাঁ-দিকে) এবং স্কোয়াড্রন লিডার সমীর অবরোলের। ছবি: সংগৃহীত।

ওই দুর্ঘটনার পর সোশ্যাল মিডিয়ায় ভারতীয় বায়ুসেনার সমালোচনা মুখর হন গরিমা। সেকেলে যন্ত্র ব্যবহার করে বায়ুসেনার কর্মীদের জীবন বিপদের মুখে ঠেলে দেওয়া হচ্ছে বলে অভিযোগও করেন তিনি। তবে সে সমস্ত অতীতে ঠেলে এ বার বায়ুসেনাতেই যোগ দিতে চান গরিমা।

এবার শুধু খবর পড়া নয়, খবর দেখাও।সাবস্ক্রাইব করুনআমাদেরYouTube Channel - এ।