• সংবাদ সংস্থা
সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে

অমিত শাহের করোনা রিপোর্ট নেগেটিভ, এ বার জানালেন নিজেই

Amit Shah
করোনামুক্ত আমিত শাহ। —ফাইল চিত্র

এ বার আর মনোজ তিওয়ারি বা অন্য কেউ নন। কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী নিজেই জানালেন, তিনি করোনা নেগেটিভ। টুইটারে এই খবর জানিয়ে অমিত শাহ লিখেছেন, চিকিৎসকদের পরামর্শ মতো আরও কয়েক দিন হোম-আইসোলেশনে থাকবেন।

গত ২ অগস্ট করোনার পরীক্ষার রিপোর্ট পজিটিভ ধরা পড়েছিল অমিত শাহের। তার পরেই তিনি ভর্তি হন দিল্লির কাছে গুরুগ্রামের মেদান্ত হাসপাতালে। সেখানেই ১০-১২ দিন চিকিৎসায় সুস্থ হয়ে ওঠার পর ফের তাঁর করোনা পরীক্ষা করা হয়। শুক্রবার সেই পরীক্ষায় রিপোর্ট নেগেটিভ এসেছে বলে হাসপাতাল সূত্রেও জানা গিয়েছে। এর পর থেকে তিনি বাড়িতে আইসোলেশনে থাকতে পারবেন বলে চিকিৎসকরা জানিয়েছেন।

অন্য দিকে টুইটারে অমিত শাহ লিখেছেন, ‘‘আজ আমার করোনাভাইরাস পরীক্ষার রিপোর্ট নেগেটিভ এসেছে। ঈশ্বরকে ধন্যবাদ জানাই। যাঁরা আমার ও আমার পরিবারের জন্য প্রার্থনা করেছেন, তাঁদের আন্তরিক ধন্যবাদ জানাই। চিকিৎসকদের পরামর্শ মতো আর কয়েকদিন নিভৃতবাসে থাকব।’’ হাসপাতাল কর্তৃপক্ষকেও ধন্যবাদ জানিয়ে শাহ লিখেছেন, মেদান্ত হাসপাতালের যে সব চিকিৎসক, নার্স ও স্বাস্থ্যকর্মীরা আমাকে করোনার সংক্রমণমুক্ত হতে সাহায্য করেছেন, এবং যাঁরা চিকিৎসা করেছেন, তাঁদের সবাইকে ধন্যবাদ।’’

আরও পড়ুন: স্থিতিশীল প্রণব মুখোপাধ্যায়, সাড়া দিচ্ছেন চিকিৎসায়, জানালেন ছেলে অভিজিৎ

কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহের করোনা পরীক্ষার রিপোর্ট নেগেটিভ এসেছে বলে কয়েক দিন আগেই টুইট করেছিলেন দিল্লির বিজেপি সভাপতি মনোজ তিওয়ারি। সেই টুইটের খবরের ভিত্তিতে বিভিন্ন সংবাদ মাধ্যমে খবরও করা হয়। কিন্তু পরে কেন্দ্রের তরফে জানানো হয়, অমিত শাহের দ্বিতীয় বার করোনা পরীক্ষাই হয়নি। ফলে নেগেটিভ আসার প্রশ্নই নেই। এ নিয়ে অস্বস্তিতে পড়েছিল বিজেপি নেতৃত্ব।

আরও পড়ুন: টিকায় বেনিয়মের অভিযোগ তুলে রুশ স্বাস্থ্যমন্ত্রকের পদ ছাড়লেন চিকিৎসক

অমিত শাহের করোনা রিপোর্ট পজিটিভ আসার দিন দুয়েক আগেই কেন্দ্রীয় মন্ত্রিসভার বৈঠকে যোগ দিয়েছিলেন অমিত শাহ। নয়া জাতীয় শিক্ষানীতি নিয়ে আলোচনায় ওই বৈঠকে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী-সহ প্রতিরক্ষামন্ত্রী রাজনাথ সিংহ, অর্থমন্ত্রী নির্মলা সীতারামণের মতো শীর্ষ মন্ত্রীরাও ছিলেন।

 

সবাই যা পড়ছেন

সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে
আরও পড়ুন

সবাই যা পড়ছেন

আরও পড়ুন