একটি মন্দিরের ভিতর থেকে এক পুরোহিত-সহ তিন জনের দেহ উদ্ধার হল। মৃতদের মধ্যে দুই জন মহিলা। তিন জনেরই বয়স সত্তরের ঊর্ধ্বে। তাঁদের শরীর থেকে রক্ত তখনও ফিনকি দিয়ে বেরচ্ছিল। সোমবারের ঘটনা। অন্ধ্রপ্রদেশের অনন্তপুর জেলায় কোড়িটিকিতা গ্রামে। পুলিশের সন্দেহ, পুরোহিত-সহ তিন জনকেই বলি দেওয়া হয়েছে।

পুলিশ জানাচ্ছে, তিনটি দেহই উদ্ধার করা হয়েছে মন্দিরের ভিতর থেকে। তবে সেগুলি বিভিন্ন জায়গায় ছড়ানো ছিল। শিবলিঙ্গের গায়েও লেগে ছিল চাপ চাপ রক্ত।

তদন্তে জানা গিয়েছে, যে তিন জনের দেহ উদ্ধার করা হয়েছে, তাঁদের অন্যতম মন্দিরের ৭০ বছর বয়সী পুরোহিত শিবরামি রেড্ডি, তাঁর দিদি কে কমলাম্মা (৭৫) এবং সত্য লক্ষমাম্মা (৭০) নামে আরও এক জন মহিলা। তিন জনেরই গলার নলি কেটে দেওয়া হয়েছিল। লক্ষমাম্মা তাঁর কোনও একটি মনস্কামনা পূরণ করার জন্য বেঙ্গালুরু থেকে কোড়িটিকিতায় গিয়েছিলেন মন্দিরে একটি রাত কাটাতে।

আরও পড়ুন- বিএসএফ চৌকি বানানোর বরাতে ঘুষ, ৭ জনকে গ্রেফতার করল সিবিআই​

আরও পড়ুন- কিশোরীকে বাঁচাতে ঝিলমে ঝাঁপ জওয়ানদের​

মন্দিরের ভিতরে ওই তিনটি দেহ পড়ে থাকতে দেখে গ্রামবাসীরাই খবর দেন পুলিশে।