কেন্দ্রীয় প্রতিরক্ষামন্ত্রী রাজনাথ সিংহ আগেই হুঁশিয়ারি দিয়েছিলেন, পাকিস্তানের সঙ্গে এর পর যদি কোনও আলোচনা করতেই হয়, তা হলে সেটা হবে শুধুমাত্র পাক অধিকৃত কাশ্মীর নিয়ে। এ বার আরও কড়া সুর শোনা গেল কেন্দ্রীয় প্রতিমন্ত্রী রামদাস অটওয়ালের গলায়। বরং আরও এক ধাপ এগিয়ে তাঁর হুঁশিয়ারি, পাকিস্তান যদি নিজের ভাল চায়, তা হলে পাক অধিকৃত কাশ্মীরকে ভারতের হাতে তুলে দিক।

রামদাসের দাবি, পাক অধিকৃত কাশ্মীরের মানুষ সুখে নেই, এমনই কয়েকটি রিপোর্ট সম্প্রতি সামনে এসেছে। সেই রিপোর্টে বলা হয়েছে, পাক অধিকৃত কাশ্মীরের লোকেরা ভারতের সঙ্গে জুড়তে চায়। সেই রিপোর্টের প্রসঙ্গ তুলে শুক্রবার পাকিস্তানকে এমনই হুঁশিয়ারি দিতে শোনা গিয়েছে তাঁকে। অটওয়ালে বলেন, “পাকিস্তান যদি যুদ্ধ না চায় এবং ইমরান খান যদি তাঁর দেশের স্বার্থের কথা ভাবেন, তা হলে এখনই পাক অধিকৃত কাশ্মীরকে ভারতকে হস্তান্তর করা উচিত।”

পাশাপাশি তিনি এটাও বলেন, “পাক অধিকৃত কাশ্মীরকে ভারতের হাতে তুলে দিলে সেখানে শিল্প গড়ে তোলা হবে। শুধু তাই নয়, বাণিজ্যের পাশাপাশি দারিদ্র ও বেকারত্ব দূরীকরণেও পাকিস্তানকে সাহায্য করা হবে।”

আরও পড়ুন: মার্কিন অর্থে পাকিস্তানে জঙ্গি প্রশিক্ষণ: ইমরান

আরও পড়ুন: বাড়িতেই পড়ছে কাশ্মীরি পড়ুয়ারা 

কাশ্মীর ইস্যু নিয়ে বার বার আন্তর্জাতিক মহলে দরবার করেছে পাকিস্তান। প্রথমে রাষ্ট্রপুঞ্জের নিরাপত্তা পরিষদ, তার পর রাষ্ট্রপুঞ্জের সাধারণ সভা, এমনকি আন্তর্জাতিক আদালতেও কাশ্মীর প্রসঙ্গ টেনে নিয়ে গিয়েছে তারা। কিন্তু সব জায়গাতেই হতাশ হয়ে ফিরতে হয়েছে। এ প্রসঙ্গে অটওয়ালে বলেন, “পাকিস্তান বার বারই কাশ্মীর ইস্যু খুঁচিয়ে তুলেছে। কিন্তু প্রতি বারই ব্যর্থ হয়েছে।”

এর পর রামদাস কাশ্মীর প্রসঙ্গ টেনে আনেন। ৩৭০ অনুচ্ছেদ রদের পর কাশ্মীরে সম্পূর্ণ শান্তি ফিরে এসেছে বলেই দাবি করেন তিনি। পাশাপাশি তিনি এটাও জানান, এত দিন ধরে যে আইন প্রয়োগ করা সম্ভব হয়নি, এ বার সেটাই করেছে কেন্দ্র। আর কেন্দ্রের এই পদক্ষেপ জম্মু-কাশ্মীরের উন্নয়নে যথেষ্ট সাহায্য করবে বলেও মত তাঁর।