লোকসভা ভোটের মুখে মন্ত্রী-সহ কর্নাটকের বিভিন্ন শিল্পপতি, ব্যবসায়ী, আমলা ও খনিমালিকদের বাড়িতে আয়কর হানাদারির ঘটনা ঘটল। বৃহস্পতিবার ভোর থেকেই আয়কর কর্তারা তল্লাশি চালালেন ক্ষুদ্রসেচ মন্ত্রী সি এস পুট্টারাজু ও তাঁর ভাইপোর বাড়ি, মুখ্যমন্ত্রী এইচ ডি কুমারস্বামীর ভাই পূর্তমন্ত্রী এইচ ডি রেভান্নার সহযোগীদের বাড়ি ও অফিস-সহ বিভিন্ন শিল্পপতি ও আমলার বাড়ি ও অফিসে। ওই হানাদারির পর কর্নাটকে জেডিএস-কংগ্রেস জোট সরকারের মুখ্যমন্ত্রী এইচ ডি কুমারস্বামী বলেন, ‘‘ভোটের আগে এটাই প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীর আসল সার্জিক্যাল স্ট্রাইক।’’

ভোটের মুখে বিরোধী নেতাদের বিপদে ফেলার ব্যাপারে কেন্দ্রের যাবতীয় অভিসন্ধি ‘মমতার (পশ্চিমবঙ্গের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়) মতোই মোকাবিলা’ করার হুমকি দিয়েছিলেন কর্নাটকের মুখ্য়মন্ত্রী, গত কাল। তার ২৪ ঘণ্টার মধ্যেই আয়কর হানাদারির ঘটনা ঘটল। কিছু দিন আগে কলকাতার তদানীন্তন পুলিশ কমিশনার রাজীব কুমারের বাড়িতে সিবিআই হানার প্রতিবাদে ধর্নায় বসেন পশ্চিমবঙ্গের মুখ্যমন্ত্রী।

আয়কর দফতরের তরফে অবশ্য কর্নাটকের মুখ্যমন্ত্রীর অভিযোগ এ দিন অস্বীকার করা হয়েছে। বলা হয়েছে, ‘তল্লাশি চালানো হয়েছে শিল্পপতি, ব্যবসায়ী, আমলা, বড় বড় খনিমালিক, চলচ্চিত্রশিল্পের সঙ্গে জড়িত লোকজনের বাড়ি ও অফিসে।

সংবাদ সংস্থা জানাচ্ছে, বৃহস্পতিবার ভোর থেকেই আয়কর কর্তারা তল্লাশি চালান কর্নাটকের মান্ডিয়া জেলায় ক্ষুদ্রসেচ মন্ত্রী সি এস পুট্টারাজু ও মাইসুরুতে তাঁর ভাইপোর বাড়িতে। এই মান্ডিয়া জেলা থেকেই এ বার লোকসভা নির্বাচনে কংগেরেস-জেডিএস জোটের প্রার্থী হয়েছেন মুখ্যমন্ত্রী কুমারস্বামীর ছেলে নিখিল। এই জেলার দায়িত্বে রয়েছেন পুট্টারাজু।

তল্লাশি হয়েছে মুখ্যমন্ত্রী কুমারস্বামীর ভাই, রাজ্যের পূর্তমন্ত্রী এইচ ডি রেভান্নার সহযোগীদের বাড়িতেও। রেভান্নার ছেলে প্রাজ্জ্বল এ বার ক‌ংগ্রেস-জেডিএস জোটের প্রার্থী হয়েছেন হাসন লোকসভা কেন্দ্রে।

আরও পড়ুন- দেশের কোথাও জঙ্গি ঘাঁটি নেই! ভারতের ডসিয়েরের জবাব দিল পাকিস্তান​

আরও পড়ুন- ‘ঘোড়া কেনাবেচা’র অডিয়ো টেপে তোলপাড় কর্নাটক, বিচার বিভাগীয় তদন্তের দাবি ইয়েদুরাপ্পার​

গতকাল আয়কর কর্তারা তল্লাশি চালিয়েছিলেন প্রভাকর রেড্ডি নামে এক জেডিএস নেতার বাড়িতে।