দেশে সরকারি ভাবে প্রবেশ করছে বর্ষা। আগামিকাল শনিবারের মধ্যেই তার ঢুকে পড়ার কথা। কেন্দ্রীয় আবহাওয়া দফতর শুক্রবার জানিয়েছে, ২৪ ঘণ্টার মধ্যেই কেরলের উপকূলে ঢুকে পড়বে দক্ষিণ-পশ্চিম মৌসুমী বায়ু। তার জেরে কেরলের চারটি জেলায় লাল সতর্কতা জারি করেছে আবহাওয়া দফতর। সেই অনুযায়ী প্রস্তুত রয়েছে বিপর্যয় মোকাবিলা বাহিনীও। স্বাভাবিক নিয়ম মেনেই এ রাজ্যে বর্ষা আসতে আরও ৭ থেকে ১০ দিন সময় লাগবে বলে জানিয়েছে আলিপুর আবহাওয়া দফতর।

দক্ষিণ-পশ্চিম মৌসুমী বায়ুর প্রভাবেই বর্ষাকালে দেশে বৃষ্টি হয়। সাধারণত জুনের প্রথম সপ্তাহে আরব সাগর থেকে কেরল উপকূল দিয়ে ভারতে প্রবেশ করে এই মৌসুমী বায়ু। সব পরিস্থিতি অনুকুল থাকলে কেরল থেকে কলকাতা পৌঁছতে সাধারণত মৌসুমী বায়ুর সময় লাগে প্রায় ৭ থেকে ১০ দিন। শুক্রবার কেন্দ্রীয় আবহাওয়া দফতর জানিয়েছে, আগামী ২৪ ঘণ্টার মধ্যেই কেরলের উপকূলে পৌঁছে যাবে মৌসুমী বায়ু।

এই মৌসুমী বায়ুর প্রভাবেই কেরলের প্রায় সর্বত্র বজ্রবিদ্যুৎ-সহ ভারী থেকে অতি ভারী বৃষ্টির পূর্বাভাসও দিয়েছেন আবহবিদরা। সেই সঙ্গে থাকবে দমকা হাওয়া। তার জেরে আগামী ১০ জুন ত্রিসূর এবং ১১ জুন এর্নাকুলাম, মল্লপুরম এবং কোঝিকোড় জেলায় চূড়ান্ত সতর্কতা জারি করা হয়েছে। সতর্ক থাকতে বলা হয়েছে অন্যান্য জেলার প্রশাসনকেও। ৭ থেকে ১১ জুন সমুদ্রে মাছ ধরতে যাওয়ার উপর জারি হয়েছে নিষেধাজ্ঞা।

আরও পড়ুন: গজলডোবায় জমি বিক্ষোভে মন্ত্রী গৌতম দেবকে গো ব্যাক ধ্বনি, কালো পতাকা

আরও পড়ুন: অন্তর্বর্তীকালীন জামিন পেলেন ‘বিদেশি’ ঘোষিত সানাউল্লা, এনআরসি-কে নোটিস আদালতের

এমনিতে ৯ জুনের মধ্যে এ রাজ্যে বর্ষার আগমণ ঘটে। কিন্তু এ বছর কার্যত সেটা আর সম্ভব নয়। আলিপুর আবহাওয়া দফতরের আধিকারিকরা জানিয়েছেন, এ বছর কেরলেই দেরিতে বর্ষা প্রবেশ করায় এ রাজ্যেও তার প্রভাব পড়তে চলেছে। কেরলে বর্ষা ঢোকার পর তার পরই স্পষ্ট হবে, কবে থেকে এ রাজ্যে বর্ষার মরসুম শুরু হবে। এ বিষয়ে আলিপুর আবহাওয়া দফতরের অধিকর্তা গণেশকুমার দাস বলেন, ‘‘রাজ্যে বর্ষা ঢুকতে দেরি হবে। কেরলে বর্ষা ঢোকার পরেই বলা যাবে, এ রাজ্যে কত দিনের মধ্যে বর্ষা আসবে।’’

কেন্দ্রীয় আবহাওয়া দফতর সূত্রে জানা গিয়েছে, আগামী ৯ জুন কেরল-কর্নাটকের দক্ষিণ-পূর্ব উপকূল বরাবর আরব সাগরের উপর একটি নিম্মচাপ অক্ষরেখা তৈরি হওয়ার উপযুক্ত পরিবেশ তৈরি হয়েছে। সেটি ধীরে ধীরে উত্তর এবং উত্তর পশ্চিমের দিকে অগ্রসর হবে। এবং আরও গভীর হবে। ফলে আগামী ৪৮ ঘণ্টার মধ্যে উত্তর-পূর্বের রাজ্যগুলিতেও মৌসুমী বায়ু অগ্রসর হওয়ার সম্ভাবনা রয়েছে।