আইএনএক্স মিডিয়া দুর্নীতি মামলায় পি চিদম্বরমের জামিন মঞ্জুর করল সুপ্রিম কোর্ট। এক লক্ষ টাকার ব্যক্তিগত বন্ডে তাঁর জামিন মঞ্জুর হয়েছে। তবে এখনই ছাড়া পাচ্ছেন না প্রাক্তন অর্থমন্ত্রী তথা প্রবীণ এই কংগ্রেস নেতা। আগামী ২৪ অক্টোবর পর্যন্ত এনফোর্সমেন্ট ডিরেক্টরেটের (ইডি) হেফাজতে থাকতে হবে তাঁকে।

এর আগে, গত ৩০ সেপ্টেম্বর দিল্লি হাইকোর্ট চিদম্বরমের জামিনের আর্জি খারিজ করে দেয়। এ দিন দিল্লি হাইকোর্টের সেই রায় বাতিল করে শীর্ষ আদালতের বিচারপতি আর ভানুমতী নেতৃত্বাধীন তিন বিচারপতির ডিভিশন বেঞ্চ।

তবে জামি মঞ্জুর হলেও, আদালতের অনুমতি ছাড়া দেশের বাইরে যেতে পারবেন না চিদম্বরম। তদন্তের প্রয়োজনে যখনই ডেকে পাঠানো হবে, গোয়েন্দাদের সামনে হাজিরা দিতে হবে তাঁকে।

আরও পড়ুন: ভবিষ্যতে ভারতের প্রধানমন্ত্রী! অমিত বলছেন, এমন কথা আবার কেন?​

অন্য দিকে, আইএনএক্স মামলায় জামিন পেলেও, চিদম্বরমের বিরুদ্ধে অন্য যে সমস্ত মামলা চলছে, শীর্ষ আদালতের এই রায়ের পর সেগুলি থেকেও কোনওরকম ছাড় পাবেন না তিনি।

আইএনএক্স দুর্নীতি মামলায় গত ২১ অগস্ট পি চিদম্বরমকে গ্রেফতার করে কেন্দ্রীয় গোয়েন্দা সংস্থা সিবিআই। শিনা বরা হত্যাকাণ্ডে অভিযুক্ত পিটার ও ইন্দ্রাণী মুখোপাধ্যায়ের সংস্থাকে অন্যায় ভাবে বিদেশি অনুদান পাইয়ে দেওয়ার অভিযোগ তাঁর বিরুদ্ধে। এই মামলায় চিদম্বরমের ছেলে কার্তির বিরুদ্ধেও চার্জশিট গঠন করেছে সিবিআই।

আরও পড়ুন: মহারাষ্ট্র-হরিয়ানায় বিরোধীদের কুপোকাত করে ফের গেরুয়া, বলছে দু’রাজ্যের সমীক্ষাই​

বিশেষ আদালতের নির্দেশে গত সপ্তাহেই তিহাড় জেল থেকে সরিয়ে নিয়ে যাওয়া হয় পি চিদম্বরমকে। এই মুহূর্তে ইডি-র হেফাজতে রয়েছেন তিনি। তদন্তকারী সংস্থাকে চিদম্বরমকে জিজ্ঞাসাবাদের অনুমতি দিলেও, চিদম্বরম বাড়ির খাবার খেতে পারবেন বলে জানিয়েছে আদালত। সেখানে আলাদা কুঠুরিতে পশ্চিমি ধাঁচে তৈরি শৌচাগার ব্যবহার করার সুবিধা পাচ্ছেন চিদম্বরম। পাচ্ছেন নিজের চশমা এবং ওষুধও। চিদম্বরম শীতাতপ নিয়ন্ত্রণ যন্ত্রের আবেদন জানালেও, তা খারিজ করে দিয়েছে ইডি। প্রতিদিন আধ ঘণ্টার জন্য পরিবারের লোকজনের সঙ্গে দেখা করতে পারেন তিনি।