আগামী লোকসভা নির্বাচনে দেশের ৫০ শতাংশ ইভিএমের ক্ষেত্রে ভিভিপ্যাটের ভোটার স্লিপ গুনে দেখার আর্জি নিয়ে ফের সু্প্রিম কোর্টের দ্বারস্থ ২১ দলের বিরোধী জোট। এই নিয়ে সুপ্রিম কোর্টের আগের রায় পুনর্বিবেচনার অনুরোধও করেছে বিরোধীরা।

আগেও ইভিএমের গণনা নির্ভুল কি না, তা খতিয়ে দেখতে ভিভিপ্যাটের ভোটার স্লিপ গুনে মিলিয়ে নেওয়ার দাবি তুলেছিল বিরোধীরা। শুরুতে বিধানসভা পিছু একটি ইভিএমের ক্ষেত্রে এই মিলিয়ে নেওয়া সম্ভব বলে জানিয়েছিল নির্বাচন কমিশন। তাঁদের যুক্তি ছিল, যত বেশি ইভিএমের জন্য ভিভিপ্যাট স্লিপ মিলিয়ে দেখা হবে, তত বেশি দেরি হবে গণনায়। সব খতিয়ে দেখার পর বিধানসভা পিছু পাঁচটি ইভিএমের ক্ষেত্রে স্লিপ গুনে মিলিয়ে দেখতে হবে বলে নির্দেশ দেয় সুপ্রিম কোর্ট।

নির্বাচন কমিশনের যুক্তি ছিল, বিধানসভা পিছু একটির বদলে পাঁচটি ইভিএমের সঙ্গে ভোটার স্লিপ গুনে মিলিয়ে দেখার জন্য নির্বাচনের ফল বেরতে দেরি হবে এক ঘণ্টা। আর বিরোধীদের দাবি মেনে তা ৫০ শতাংশ আসনের ক্ষেত্রে করা হলে, ফলঘোষণা পিছিয়ে যাবে অন্তত পাঁচ দিন।

আরও পড়ুন: মুখবন্ধ খামে প্রধান বিচারপতির বিরুদ্ধে ‘ষড়যন্ত্র’-এর নথি, গোয়েন্দাদের তলব শীর্ষ আদালতে

বিরোধীরা যে এখনও ইভিএমে ভোটগণনায় পুরোপুরি বিশ্বাস রাখতে পারছেন না, তা ফের সামনে এল আজকেই। সুপ্রিম কোর্টের আগের নির্দেশের পুনর্বিবেচনা করার দাবি নিয়ে ফের সুপ্রিম কোর্টের দ্বারস্থ হল ২১ দলের বিরোধী জোট। বিরোধী দলগুলির এই দাবিকে কটাক্ষে বিঁধেছেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী। ঝাড়খণ্ডে একটি জনসভায় তিনি বলেন,‘‘আগে ওঁরা সব কিছুর জন্য মোদীকে দোষ দিতেন। এখন সেই জায়গায় সব দোষ ইভিএমকে দিচ্ছেন। নিজেদের হার বুঝতে পেরেই শুরু হয়েছে এই নতুন দোষারোপের পালা।’’

আরও পড়ুন: এন ডি তিওয়ারির ছেলে রোহিত-হত্যায় তাঁর স্ত্রীকেই গ্রেফতার করল পুলিশ

একই সঙ্গে মোদীর দাবি, ‘‘তিন দফা ভোটের পর বিরোধীরা বুঝতে পেরেছে, হার মেনে নেওয়া ছাড়া ওদের সামনে আর কোনও রাস্তা নেই।’’