দেশের প্রধান বিচারপতিকে কালিমালিপ্ত করতে যে ‘ষড়যন্ত্র’-এর অভিযোগ উঠেছে, তার শেষ দেখে ছাড়ার কথা জানাল সুপ্রিম কোর্ট। উৎসব বইন্স নামের যে আইনজীবী প্রধান বিচারপতি রঞ্জন গগৈ-এর বিরুদ্ধে ‘ষড়যন্ত্র’ চলছে বলে অভিযোগ করেছিলেন, তিনিও আজ আদালতে এই ষড়যন্ত্রের আরও নথি আছে বলে জানিয়েছেন। বৃহস্পতিবার সকালের মধ্যে তাঁকে এই সমস্ত নথি সহ আরও একটি হলফনামা জমা দেওয়ার নির্দেশ দিয়েছে শীর্ষ আদালত।

দেশের বিচারব্যবস্থা নিয়ে বাড়তে থাকা উত্তাপের মধ্যেই আজ জড়িয়ে গিয়েছে আদালতেরই দুই বরখাস্ত হওয়া কর্মীর নাম। অনিল অম্বানির একটি মামলায় রায় বদলে দেওয়ার অভিযোগ উঠেছিল এই দুই কর্মীর বিরুদ্ধে। তার পরই বরখাস্ত করা হয়েছিল এই দুই কোর্ট মাস্টারকে। এই দুই কর্মীর সাজশেই প্রধান বিচারপতি রঞ্জন গগৈ-এর বিরুদ্ধে ষড়যন্ত্র করা হচ্ছে বলে অভিযোগ করেছেন আইনজীবী উৎসব বইন্স। তাঁকে এই সংক্রান্ত সমস্ত তথ্যপ্রমাণ বৃহস্পতিবার সকালের মধ্যে আদালতে জমা দেওয়ার নির্দেশ দিয়েছে অরুণ মিশ্র নেতৃত্বাধীন তিন সদস্যের ডিভিশন বেঞ্চ। বিচারপতি অরুণ মিশ্র আজ বলেছেন, ‘‘বিষয়টি অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ। তাই আমরা গুরুত্ব সহকারেই পুরো বিষয়টি দেখছি।’’ আগামীকাল ফের এই মামলার শুনানি।

একই সঙ্গে তিন সদস্যের এই বিশেষ বেঞ্চ জানিয়েছে, ‘‘দেশের বিচারব্যবস্থাকে কালিমালিপ্ত করার যে অভিযোগ উঠেছে, আমরা তার শেষ দেখে ছাড়ব। এরা সক্রিয় হয়ে উঠলে আমাদের সবার অস্তিত্ব বিপন্ন হয়ে যাবে।’’

আরও পড়ুন: গির্জায় হামলা হতে পারে, বিস্ফোরণের দু’ঘণ্টা আগেই শ্রীলঙ্কাকে সতর্ক করেছিল ভারত

একই সঙ্গে শীর্ষ আদালত স্পষ্ট ভাবে জানিয়েছে, ‘‘ প্রধান বিচারপতির বিরুদ্ধে যৌন হেনস্থার অভিযোগ এবং বিচারব্যবস্থার বিরুদ্ধে ষড়যন্ত্র, দু’টি অভিযোগের ক্ষেত্রেই তদন্ত তার নিজস্ব পথে চলবে।’’

দেশের সর্বোচ্চ আদালতের প্রধান বিচারপতি রঞ্জন গগৈ-এর বিরুদ্ধে কোনও ‘ষড়যন্ত্র’ করা হচ্ছে কি না, তা খতিয়ে দেখতে আজ দুপুরেই সিবিআই-এর দুই যুগ্ম অধিকর্তা, দিল্লির পুলিশ প্রধান এবং ইন্টেলিজেন্স ব্যুরোকে ডেকে পাঠায় সুপ্রিম কোর্টে। শীর্ষ আদালতের ‘জাজেস চেম্বারে’ তাঁদের ডেকে কথা বলে বিচারপতি অরুণ মিশ্র নেতৃত্বাধীন বিশেষ বেঞ্চ। তার আগে মুখবন্ধ খামে সমস্ত ষড়যন্ত্রের বিভিন্ন তথ্যপ্রমাণ আদালতে জমা দেন আইনজীবী উৎসব বইন্স।  

আরও পড়ুন: এন ডি তিওয়ারির ছেলে রোহিত-হত্যায় তাঁর স্ত্রীকেই গ্রেফতার করল পুলিশ

পাশাপাশি, প্রধান বিচারপতির বিরুদ্ধে যে মহিলা যৌন হেনস্থার অভিযোগ এনেছিলেন, তাঁকেও নোটিস পাঠিয়েছে বিচারপতি এ এস ববদে নেতৃত্বাধীন তিন সদস্যের তদন্তকারী প্যানেল। প্যানেলের অন্য দুই সদস্য বিচারপতি ইন্দিরা বন্দ্যোপাধ্যায় এবং বিচারপতি এন ভি রামান্নার উপস্থিতিতে তাঁকে আগামী ২৬ এপ্রিল হাজিরার নির্দেশ দেওয়া হয়েছে।

ঘটনার সূত্রপাত প্রধান বিচারপতি রঞ্জন গগৈ-এর বিরুদ্ধে সুপ্রিম কোর্টের এক প্রাক্তন মহিলা কর্মী যৌন হেনস্থার অভিযোগ আনার পর থেকেই। এর এক দিন পরই উৎসব বইন্স নামের এক আইনজীবী দাবি করেন, প্রধান বিচারপতিকে কালিমালিপ্ত করার উদ্দেশ্যে মামলা লড়ার জন্য তাঁকে দেড় কোটি টাকা দেওয়ার প্রস্তাব দেওয়া হয়েছিল। এই মামলায় সুপ্রিম কোর্টের এক প্রাক্তন মহিলা কর্মীর হয়ে লড়ার কথা ছিল তাঁর। এই জন্য সমস্ত তথ্যপ্রমাণও তাঁর কাছে আছে বলেও দাবি করেছেন উৎসব। এই অভিযোগের সারবত্তা খতিয়ে দেখতে তাঁকেও নোটিস পাঠায় শীর্ষ আদালত।