মোদীর বায়োপিকে কমিশনের নিষেধাজ্ঞা বহাল, হস্তক্ষেপ করবে না সুপ্রিম কোর্ট
সুপ্রিম কোর্টের প্রধান বিচারপতি রঞ্জন গগৈয়ের নেতৃত্বে গঠিত একটি বেঞ্চ এই রায় দেয়। প্রধান বিচারপতি ছাড়াও বিচারপতি দীপক গুপ্ত ও বিচারপতি সঞ্জীব খন্নার তিন সদস্যের ওই বেঞ্চ বলেছে, “বিষয়টি নির্বাচন কমিশনের এক্তিয়ারভুক্ত।”
Poster of PM Narendra Modi

লোকসভা ভোট চলাকালীন মুক্তি পাবে না নরেন্দ্র মোদীর বায়োপিক ‘পিএম নরেন্দ্র মোদী’। ছবি: সংগৃহীত।

প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীর বায়োপিক ‘পিএম নরেন্দ্র মোদী’ নিয়ে সুপ্রিম কোর্টে ধাক্কা খেল বিজেপি। এ নিয়ে নির্বাচন কমিশনের সিদ্ধান্তে হস্তক্ষেপ করবে না সুপ্রিম কোর্ট। শুক্রবার সাফ জানিয়ে দিল শীর্ষ আদালত। এর ফলে লোকসভা নির্বাচন পর্ব শেষ না হওয়া পর্যন্ত এ ছবি প্রদর্শনের উপর কমিশনের নিষেধাজ্ঞা বহাল থাকবে।

এ দিন সুপ্রিম কোর্টের প্রধান বিচারপতি রঞ্জন গগৈয়ের নেতৃত্বে গঠিত একটি বেঞ্চ এই রায় দেয়। প্রধান বিচারপতি ছাড়াও বিচারপতি দীপক গুপ্ত ও বিচারপতি সঞ্জীব খন্নার তিন সদস্যের ওই বেঞ্চ বলেছে, “বিষয়টি নির্বাচন কমিশনের এক্তিয়ারভুক্ত।”

যদিও শীর্ষ আদালতে ওই ফিল্মের প্রযোজকদের দাবি ছিল, সেন্সর বোর্ডের ছাড়পত্র মেলার পর বায়োপিকের উপর নিষেধাজ্ঞা জারি করার কমিশনের নির্দেশটি অসংগতিপূর্ণ। কেননা, সেন্সর বোর্ডের ছাড়পত্র মেলার পর কোনও ফিল্ম প্রদর্শনের জন্য আটকে রাখা যায় না। তবে এ দিন আদালতে সে দাবি খারিজ করে দিয়ে বলে এ বিষয়ে তারা হস্তক্ষেপ করবে না। আদালত বলেছে, “বিষয়টি হল, বায়োপিকটি এখন দেখানো যাবে কি না। এ নিয়ে নির্বাচন কমিশন ইতিমধ্যেই একটা সিদ্ধান্ত নিয়ে নিয়েছে। আমরা এ নিয়ে আর মাথা ঘামাতে রাজি নই।”

দিল্লি দখলের লড়াই, লোকসভা নির্বাচন ২০১৯

আরও পড়ুন: এই প্রথম প্রতিষ্ঠানপন্থী হাওয়া বইছে দেশে, মনোনয়ন দাখিলের আগে দাবি মোদীর

আরও পড়ুন: বালাকোটের ভিডিয়ো নেই, বলছে বায়ুসেনা

গত ১১ এপ্রিল মোদীর বায়োপিক ‘পিএম নরেন্দ্র মোদী’-র মুক্তি পাওয়ার কথা ছিল। বিজেপি-র পরিকল্পনা ছিল, বিবেক ওবেরয় অভিনীত ওই বায়োপিকটি কেন্দ্র করে দেশ জুড়ে ‘মোদী-হাওয়া’ তোলা। তবে এ নিয়ে সুপ্রিম কোর্টের দ্বারস্থ হয় কংগ্রেস। বায়োপিকটি মুক্তি পেলে তা ভোটারদের প্রভাবিত করতে পারে দাবি করে এর মুক্তি পিছিয়ে দেওয়ার আর্জি জানিয়ে সুপ্রিম কোর্টে যান কংগ্রেসকর্মী আমন পওয়ার। সুপ্রিম কোর্ট অবশ্য তখন জানিয়েছিল, এ নিয়ে এখনই সিদ্ধান্ত নেওয়া উচিত নয়। এর পর ১০ এপ্রিল নির্বাচন কমিশন বায়োপিকটি প্রদর্শনের ক্ষেত্রে সাময়িক ভাবে নিষেধাজ্ঞা জারি করে। কমিশন জানিয়েছিল, আগামী ১৯ মে পর্যন্ত অর্থাৎ লোকসভা ভোটের শেষ দফা না মিটলে ওই বায়োপিকটি কোনও বৈদ্যুতিন মাধ্যম বা প্রেক্ষাগৃহে  দেখানো যাবে না। এ নিয়ে কমিশনের যুক্তি ছিল, ভোটের সময় ফিল্মটি মুক্তি পেলে তা রাজনৈতিক পরিবেশ ও ভারসাম্য নষ্ট করতে পারে।

(ভোটের খবর, জোটের খবর, নোটের খবর, লুটের খবর- দেশে যা ঘটছে তার সেরা বাছাই পেতে নজর রাখুন আমাদেরদেশবিভাগে।)

২০১৯ লোকসভা নির্বাচনের ফল

আপনার মত