ফের বিতর্কে হরিয়ানার মুখ্যমন্ত্রী মনোহরলাল খট্টর। এ বার কংগ্রেস সভাপতি সনিয়া গাঁধীকে নিয়ে আপত্তিকর মন্তব্যের জেরে সমালোচনার মুখে পড়লেন তিনি। হরিয়ানায় একটি নির্বাচনী জনসভায় কংগ্রেসকে আক্রমণ করতে গিয়ে সনিয়াকে কার্যত ‘মৃত ইঁদুর’ আখ্যা দেন খট্টর। এর পরই খট্টর-সহ বিজেপির বিরুদ্ধে নিন্দায় সরব হন কংগ্রেস নেতারা। তাঁদের অভিযোগ, খট্টরের মন্তব্যে বিজেপির নারীবিরোধী মনোভাব ফুটে উঠেছে। ওই মন্তব্যের জন্য খট্টরকে ক্ষমা চাইতে হবে বলেও দাবি তুলেছে কংগ্রেস।

রবিবার হরিয়ানার সোনিপতে একটি নির্বাচনী জনসভায় ওই মন্তব্য করেন হরিয়ানার মুখ্যমন্ত্রী। তিনি বলেন, ‘‘লোকসভা ভোটে হারের পর রাহুল (রাহুল গাঁধী) দলের সভাপতির পদ থেকে ইস্তফা দিয়েছিলেন। এবং বলেছিলেন, গাঁধী পরিবার থেকে কেউ কংগ্রেসের নয়া সভাপতি হবেন না। আমরা সেই সিদ্ধান্তকে স্বাগত জানিয়েছিলাম। পরিবারতান্ত্রিক রাজনীতির সমাপ্তি তো ভাল কথা। তার পর তাঁরা গোটা দেশের নতুন সভাপতির খোঁজ শুরু করেন। তিন মাস পর, তাঁরা সনিয়া গাঁধীকে সভাপতি হিসাবে বেছে নেন। এটা যেন পাহাড় খোঁড়ার পর ইঁদুর বেরোল, তা-ও আবার মরা (খোদা পাহাড়, নিকলি চুহিয়া, ও ভি মরি হুয়ি... )।’’

হরিয়ানার মু্খ্যমন্ত্রী খট্টরের এই মন্তব্যের তীব্র নিন্দা করেছে কংগ্রেস। খট্টরের এই মন্তব্য অত্যন্ত আপত্তিকর বলে তাঁকে ক্ষমা চাইতে হবে বলেও দাবি করেন তারা। টুইটারে কংগ্রেসের তরফে লেখা হয়েছে, ‘বিজেপির মুখ্যমন্ত্রী যে মন্তব্য করেছেন, তা সস্তা ও আপত্তিকর তো বটেই, এতে বিজেপির নারীবিরোধী চরিত্রই ফুটে উঠেছে। আমরা হরিয়ানার মুখ্যমন্ত্রীর নিন্দা করছি এবং অবিলম্বে তাঁর ক্ষমাপ্রার্থনার দাবি জানাচ্ছি।’

আরও পড়ুন: সঙ্ঘ রুখতে সিপিআইয়ের হাতে এ বার বেদ-পুরাণ

আরও পড়ুন: জিয়াগঞ্জ হত্যাকাণ্ড: মুখোমুখি জেরার সময়ে ঝগড়ায় জড়াল সৌভিক

কংগ্রেসের বিরুদ্ধে আক্রমণ করতে গিয়ে এর আগেও বিতর্কে জড়িয়েছেন খট্টর। চলতি মাসের গো়ড়ায় অম্বালা জেলায় একটি জনসভায় তিনি বলেছিলেন, ‘‘আমাদের কাছে দেশ সব সময় অগ্রাধিকার পায়। অন্য দিকে, কংগ্রেস নেতাদের কাছে তাঁদের নেতারা অগ্রাধিকার পান। আমরা বলি, ‘ভারতমাতা কি জয়!’, আর কংগ্রেসের কিছু নেতা বলেন, ‘সনিয়া গাঁধী কি জয়!’

শুধুমাত্র রাজনৈতিক নেতাদের নিয়েই নয়, এর আগে মহিলাদের বিরুদ্ধেও আপত্তিকর মন্তব্য করে বিতর্কে জড়িয়েছেন খট্টর। গত বছরের নভেম্বরে তিনি মন্তব্য করেছিলেন, ‘‘পুরনো প্রেমিককে ফিরে পেতেই ধর্ষণের অভিযোগ করেন মহিলারা।’’ চলতি বছরের অগস্টে কাশ্মীরের বিশেষ মর্যাদা বিলোপের পর তাঁর মন্তব্য ছিল, ‘‘এখন কেউ কেউ বলছেন, কাশ্মীর খুলে গিয়েছে, সেখান থেকে বউ আনবেন।’’ এ ধরনের মন্তব্যের পর বার বারই সমালোচিত হয়েছেন খট্টর। এ বার ফের আপত্তিকর মন্তব্য করে শিরোনামে হরিয়ানার মুখ্যমন্ত্রী।