১৩ বছরের মানসিক ভারসাম্যহীন কিশোরীকে লাগাতার ধর্ষণ করার অভিযোগ উঠল দুই ব্যক্তির বিরুদ্ধে। উত্তরপ্রেদেশের মেরঠের একটি গ্রামের এই ঘটনায় বছর তিরিশের এক ব্যক্তিকে রবিবার গ্রেফতার করেছে পুলিশ। অপর এক অভিযুক্ত এবং ধর্ষণে সাহায্য করা এক মহিলার খোঁজ চালাচ্ছে পুলিশ।

পুলিশ সূত্রে খবর, ওই দুই অভিযুক্তের একটি দোকান ছিল। সেই দোকানেই ওই কিশোরীকে নিয়ে যেত অভিযুক্ত মহিলা। তার পর দোকানের শাটার বন্ধ করে মেয়েটির উপর পালা করে অত্যাচার চালাত ওই দুই ব্যক্তি। বেশ কয়েক মাস ধরে চলে এই ঘটনা।

বিষয়টি সামনে আসে কিশোরী অসুস্থ হয়ে পড়ার পর। প্রাথমিক স্বাস্থ্যকেন্দ্রে নিয়ে গেলে চিকিৎসকরা জানান, কিশোরী চার মাসের গর্ভবতী। এর পরই গত শনিবার রাতে মেরঠের পুলিশ সুপারের সঙ্গে দেখা করে অপরাধীদের গ্রেফতারের দাবি জানান নির্যাতিতার বাড়ির লোক। তার পরই স্থানীয় পুলিশকে প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ নেওয়ার নির্দেশ দেন তিনি।

এই ঘটনার তদন্তকারী অফিসার বলেছেন, “এক মহিলার সাহায্যে দোকানের শাটার বন্ধ করে ওই কিশোরীকে ধর্ষণ করত ওই দুই ব্যক্তি।”তাদের বিরুদ্ধে ভারতীয় দণ্ডবিধির ৩৭৬ ধারা ও পকসো আইনে মামলা রুজু করা হয়েছে বলেও জানিয়েছেন ওই অফিসার। ম্যাজিস্ট্রেটের উপস্থিতিতে নির্যাতিতার জবানবন্দিও নেওয়া হয়েছে বলে জানিয়েছেন তিনি। 

আরও পড়ুন: খাবার নিয়ে বচসা, দুই জওয়ানকে রাস্তায় ফেলে পেটালো হোটেলকর্মীরা