জম্মু-কাশ্মীর নিয়ে টানাপড়েন চলছে আন্তর্জাতিক মহলেও। তার মধ্যেই নাম না করে পাকিস্তানকে তীব্র আক্রমণ করলেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী। সন্ত্রাসে মদত জোগানোয় পড়শি দেশকে সন্ত্রাসের ‘আঁতুড়’ বলে উল্লেখ করলেন তিনি।

বুধবার উত্তরপ্রদেশের মথুরায় ‘স্বচ্ছতা হি সেবা’ অনুষ্ঠানে যোগ দেন নরেন্দ্র মোদী। সেখানে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের ৯/১১ হামলার প্রসঙ্গ টেনে তিনি বলেন, ‘‘বর্তমানে সন্ত্রাসবাদ একটা আদর্শে পরিণত হয়েছে, যা আর নির্দিষ্ট কোনও দেশের বেড়াজালের মধ্যে সীমাবদ্ধ নেই। এটা একটা বিশ্বব্যাপী সমস্যা হয়ে দাঁড়িয়েছে, যার উৎস আমাদের পড়শি দেশেই। আর সেখানেই ফুলেফেঁপে উঠছে সন্ত্রাসবাদ।’’

সন্ত্রাসবাদের বিরুদ্ধে গোটা বিশ্বকে একজোট হয়ে সন্ত্রাসের মোকাবিলা করতে হবে বলেও মন্তব্য করেন মোদী। তিনি বলেন, ‘‘সন্ত্রাসের বিরুদ্ধে ইতিমধ্যেই কড়া পদক্ষেপ করেছে ভারত। ভবিষ্যতেও করবে। এ ব্যাপারে বাকিদেরও এক জোট হতে হবে। যে বা যারা দেশের মাটিতে জঙ্গিদের নিরাপদ আশ্রয় দেয়, প্রশিক্ষণ দেয়, তাদের বিরুদ্ধেও রুখে দাঁড়াতে হবে। ভারত নিজেরটা বুঝে নিতে পারবে।’’

আরও পড়ুন: ‘ওম’ বা ‘গরু’ শুনলে অনেকে মুখ ফেরান, এটা দুর্ভাগ্যজনক, মথুরায় বললেন মোদী

একশো বছর আগে আজকের দিনেই আমেরিকার শিকাগোয় ঐতিহাসিক বক্তৃতা দেন স্বামী বিবেকানন্দ। এ দিন তারও উল্লেখ করেন প্রধানমন্ত্রী। তাঁর কথায়। ‘‘এক শতক আগে আজকের দিনেই শিকাগোয় ঐতিহাসিক বক্তৃতা করেছিলেন স্বামী বিবেকানন্দ, আমাদের সংস্কৃতির গভীরতার হদিস পেয়েছিল গোটা বিশ্ব। দুর্ভাগ্যের বিষয়, এই ১১ সেপ্টেম্বরই সবচেয়ে বড় সন্ত্রাস হামলা হয়েছিল, যা নাড়িয়ে দিয়েছিল গোটা বিশ্বকে।’’

আরও পড়ুন: শাসক-বিরোধী দ্বন্দ্বে উত্তপ্ত অন্ধ্র, সপুত্র গৃহবন্দি চন্দ্রবাবু নায়ডু​

মঙ্গলবারই সন্ত্রাসবাদ নিয়ে রাষ্ট্রপুঞ্জে পাকিস্তানকে এক হাত নেয় ভারত। ‘সন্ত্রাসের উৎসস্থল’ পাকিস্তানের মদতে পুষ্ট জঙ্গিরাই মানুষের বেঁচে থাকার মৌলিক অধিকার কেড়ে নেয় বলে সেখানে অভিযোগ করেন বিদেশ মন্ত্রকের সচিব (পূর্ব) বিজয় সিংহ ঠাকুর।