পুলওয়ামা হামলার পর থেকেই জাতীয়বাদের জিগির আরও জোরদার করেছে বিজেপি। পাকিস্তানকে জবাব দেওয়ার ইঙ্গিত থেকে সেনা জওয়ানদের শ্রদ্ধা জানানো হোক, কিংবা খোদ স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীর কফিন কাঁধে নেওয়ার ছবিতে দেশভক্তির জোয়ার। কিন্তু সেই দলেরই দুই মন্ত্রী ও এক সাংসদ জুতো পরে হাজির পুলওয়ামা এনকাউন্টারে নিহত এক জওয়ানের শেষকৃত্যে। তাতে বেজায় ক্ষুব্ধ পরিবার ও সেনাকর্মকর্তারা তিন জনকেই জুতো খুলে বসতে বলেন। তিন নেতা-মন্ত্রীও জুতো খুলে হাত জোর করে ক্ষমা চেয়ে নিয়েছেন।

মঙ্গলবার পুলওয়ামার পিংলিশ গ্রামে জইশ-ই-মহম্মদ জঙ্গিদের সঙ্গে গুলিযুদ্ধে এক মেজর-সহ চার সেনা জওয়ানের মৃত্যু হয়। মৃত্যু হয় আরও এক পুলিশকর্মীর। নিহত সেনা জওয়ানদের মধ্যে ছিলেন অজয় কুমার। উত্তরপ্রদেশের মেরঠের বস্সি তিরকি গ্রামের অজয় কুমারের শেষকৃত্য ছিল মঙ্গলবার। পাড়া প্রতিবেশী, এলাকাবাসীর ভিড়ে শোকাবহ পরিবেশ ছিল গোটা এলাকায়।

তার মধ্যেই নিহত সেনা জওয়ানকে শেষ শ্রদ্ধা জানাতে শ্মশানে হাজির হন কেন্দ্রীয় মন্ত্রী সত্যপাল সিংহ, উত্তরপ্রদেশের মন্ত্রী সিদ্ধার্থনাথ সিংহ এবং মেরঠের সাংসদ রাজেন্দ্র আগরওয়াল। কিন্তু শ্মশান চত্বরে তাঁদের দেখা যায়,সবাই জুতো পরে মাটিতে বসে রয়েছেন। এমনই একটি ভিডিয়ো ছড়িয়ে পড়েছে।

ভারতের অস্ত্রভাণ্ডার সম্পর্কে কতটা জানেন, পরখ করে নিন জ্ঞানভাণ্ডার

আরও পড়ুন: নিয়ন্ত্রণরেখায় ফের বিনা প্ররোচনায় গুলি পাক সেনার, পাল্টা জবাব ভারতের

ওই ভিডিয়োতে দেখা যায়, বেজায় ক্ষুব্ধ হয়ে উঠেছেন অজয় কুমারের আত্মীয় পরিজনরা। কয়েক জন রেগে গিয়ে মন্ত্রী-সাংসদদের জুতো খুলে বসার কথা বলেন। ক্ষোভের আঁচ পেয়ে তিন বিজেপি নেতাও জুতো খুলে ফেলেন এবং শেষ পর্যন্ত ক্ষমা চেয়ে নেন। তবে তিন জনের বিরুদ্ধে আরও অভিযোগ উঠেছে, তাঁরা শ্মশানে বসে খোশগল্প এবং হাসাহাসিও করছিলেন। তাতেই ক্ষুব্ধ হয়ে ওঠেন নিহত জওয়ানের পরিজনরা।

আরও পড়ুন: ভাগ্যিস বোতলটা ফেলে এসেছিলেন! অন্য বাসে উঠে বেঁচে গেলেন আর এক বাবলু

কিন্তু তাতেও বিতর্ক থামেনি। অনেকেই প্রশ্ন তুলেছেন, এই রকম একটি শোকের আবহে বিজেপির নেতা-মন্ত্রীরা কী ভাবে জুতো পরে বসে থাকতে পারেন। এর আগেও অবশ্য এই ধরনের বিতর্ক উঠেছে। পুলওয়ামায় জঙ্গি হানায় নিহত এক জওয়ানের কফিনের সঙ্গে সেলফি নিয়ে বিতর্কে জড়িয়েছেন কেন্দ্রীয় মন্ত্রী কে জে আলফোনস। আবার উন্নাওয়ের বিজেপি বিধায়ক সাক্ষী মহারাজকে কার্যত অট্টহাস্য করতে দেখা গিয়েছে পুলওয়ামা জঙ্গি হানায় নিহত এক জওয়ানের শেষকৃত্যে। তা নিয়েও কম সমালোচনা হয়নি। তার পর ফের জুতো পরে শেষকৃত্যে গিয়ে বিতর্কে জড়ালেন তিন বিজেপি নেতা।  

(ভারতের রাজনীতি, ভারতের অর্থনীতি- সব গুরুত্বপূর্ণ খবর জানতে আমাদের দেশ বিভাগে ক্লিক করুন।)