দুর্নীতি-কাণ্ডে অন্তর্বর্তীকালীন জামিন পেলেন রবার্ট বঢরা। ৫ লক্ষ টাকার ব্যক্তিগত বন্ডে তাঁকে জামিন দিয়েছে বিশেষ সিবিআই আদালত। যদিও এতদিন অন্তর্বর্তীকালীন জামিনেই ছিলেন তিনি। কিন্তু ভোটের আগে তাঁর জন্য কংগ্রেস শিবিরকে যাতে অস্বস্তিতে পড়তে না হয়, সেই জন্য আগেভাগে জামিনের আবেদন করে রেখেছিলেন। সোমবার তাঁর আবেদন মঞ্জুর করেন বিশেষ আদালতের বিচারপতি অরবিন্দ কুমার।

এনফোর্সমেন্ট ডিরেক্টরেট(ইডি)-এর দায়ের করা মামলায় এ দিন রবার্ট বঢরা ঘনিষ্ঠ মনোজ আরোরাকেও ৫ লক্ষ টাকার ব্যক্তিগত বন্ডে জামিন দিয়েছে আদালত। আদালতের অনুমতি ছাড়া দেশের বাইরে যেতে পারবেন না তাঁরা। সেই সঙ্গে আদালত জানিয়ে দেয়, তদন্তে পূর্ণ সহযোগিতা করতে হবে তাঁদের। ডাক পড়লেই হাজিরা দিতে হবে। সেই সঙ্গে প্রমাণ নষ্ট করা বা সাক্ষীদের প্রভাবিত করা নিয়েও তাঁদের সতর্ক করে দেওয়া হয়। 

রবার্ট বঢরার জামিন মঞ্জুর হওয়ার পর আদালতের বাইরে সংবাদমাধ্যমের মুখোমুখি হন তাঁর আইনজীবী কেটিএস তুলসি। তিনি বলেন, “রবার্ট বঢরার অফিসে ঢুকে বেআইনি ভাবে ২১ হাজার নথিপত্র তুলে আনা হয়েছিল। তাতে কিছু পাওয়া যায়নি। তা সত্ত্বেও হেফাজতে রেখে ওঁকে হেনস্থা করার চেষ্টা হয়। শুধু মাত্র পারিবারিক সম্পর্কের জন্যই এ ভাবে হেনস্থা করা হচ্ছে ওঁকে।”

আরও পড়ুন: চেক দিচ্ছি, ভোটটা না দিলে কিন্তু... ভাঙড়ে তৃণমূল নেতার হুমকি ভিডিয়ো ভাইরাল​

আরও পড়ুন: আখলাক খুনে মূল অভিযুক্ত সভার প্রথম সারিতে, সেখানেই যোগীর হুঙ্কার, সবার সব মনে আছে তো?​

বিদেশে সম্পত্তি কেনা এবং টাকা তছরুপ মামলায় এখনও পর্যন্ত ৮ দফায় রবার্ট বঢরাকে জেরা করেছেন ইডি আধিকারিকরা। প্রত্যক্ষ এবং পরোক্ষ ভাবে লন্ডনে তাঁর ৯টি সম্পত্তি রয়েছে বলে জানা অভিযোগ, সবমিলিয়ে যার বাজারমূল্য প্রায় ১ কোটি ২০ লক্ষ পাউন্ড। ভারতীয় মুদ্রায় যা ১০৮ কোটি টাকারও বেশি। ইউপিএ জমানায় ২০০৫-১০ এর মধ্যে সেগুলি কেনা হয়েছিল বলে দাবি গোয়েন্দাদের। তবে টাকা নয়ছয়ের অভিযোগ লন্ডনের ১৩ নম্বর ব্রায়ানস্টন স্কোয়্যারের একটি প্রাসাদোপম বাড়ি ঘিরে। যার বাজারমূল্য প্রায় ১৯ লক্ষ পাউন্ড। ভারতীয় মুদ্রায় যা ১৭ কোটি টাকারও বেশি। এ ছাড়া হরিয়ানা এবং রাজস্থানের জমি কেলেঙ্কারিতেও নাম জড়িয়েছে রবার্ট বঢরার।

(রাজনীতি, অর্থনীতি, ক্রাইম - দেশের বিভিন্ন প্রান্তে ঘটে যাওয়া গুরুত্বপূর্ণ খবর জানতে দেশ বিভাগে ক্লিক করুন।)