• সংবাদ সংস্থা
সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে

সংসদে ফের ক্ষমা চাইলেন প্রজ্ঞা, বললেন, গডসের নামই মুখে আনিনি

Sadhvi Pragya
লোকসভায় সাধ্বী প্রজ্ঞা। ছবি: টুইটার থেকে সংগৃহীত।

নাথুরাম গডসের নামই মুখে আনেননি তিনি, লোকসভায় এ বার এমনই সাফাই দিলেন ভোপালের বিজেপি প্রার্থী সাধ্বী প্রজ্ঞা। তাঁর ‘দেশভক্ত’ মন্তব্য নিয়ে গত দু’দিন ধরেই উত্তাল সংসদ। তা নিয়ে চাপের মুখে পড়ে শুক্রবার দ্বিতীয় বারের জন্য ক্ষমা চান তিনি। সেখানেই জানান, তাঁর যে মন্তব্য ঘিরে এত বিতর্ক, তাতে গডসের নাম পর্যন্ত উল্লেখ করেননি তিনি।

এ দিন লোকসভা অধিবেশনের শুরুতেই গডসে মন্তব্যের জন্য ক্ষমা চেয়ে নেন প্রজ্ঞা। সেই সঙ্গে তাঁকে নিয়ে টুইটের জন্য রাহুল গাঁধীকেও এক হাত নেন তিনি। তাতে তীব্র আপত্তি তোলেন কংগ্রেস-সহ অন্য বিরোধী দলের নেতারা। ইচ্ছাকৃত ভাবে সংসদভবনের বাইরের ঘটনাকে টেনে এনে, আসল ঘটনা থেকে নজর ঘোরানোর চেষ্টা চলছে বলে অভিযোগ তোলেন তাঁরা। অবিলম্বে সাধ্বীকে নিঃশর্ত ক্ষমা চাইতে হবে বলেও দাবি ওঠে।

সেই নিয়ে ঝামেলা চরমে উঠলে অধিবেশন স্থগিত রাখেন স্পিকার ওম বিড়লা। সব দলকে সঙ্গে নিয়ে আলোচনায় বসেন তিনি। সেখানেই প্রজ্ঞাকে ফের ক্ষমা চাইতে হবে বলে সর্বসম্মত ভাবে ঠিক হয়। তার পরে অধিবেশন শুরু হলে দ্বিতীয় বার ক্ষমা চান প্রজ্ঞা। তিনি বলেন, ‘’২৭ নভেম্বর এসপিজি নিয়ে আলোচনার সময় নাথুরাম গডসেকে দেশভক্ত বলিনি আমি। এমনকি গডসের নাম পর্যন্ত মুখে আনিনি আমি। তবুও কেউ আহত হয়ে থাকলে, ফের ক্ষমা চাইছি আমি।’’

আরও পড়ুন: গডসে মন্তব্যে ক্ষমা চাইলেন প্রজ্ঞা, জঙ্গি বলায় পাল্টা তোপ রাহুলকে, সংসদে তুমুল বাগবিতণ্ডা​

এর আগে, সকালেই তাঁর মন্তব্য বিকৃত করা হয়েছে বলে অভিযোগ তুলেছিলেন প্রজ্ঞা। সেইসময় তিনি বলেন, ‘‘আমার মন্তব্য বিকৃত করা হয়েছে। মহাত্মা গাঁধীকে শ্রদ্ধা করি। শ্রদ্ধা করি দেশের প্রতি ওঁর অবদানকে। যে ভাবে আমার মন্তব্য বিকৃত করা হয়েছে, তা অত্যন্ত নিন্দনীয়। তবুও কেউ আহত হয়ে থাকলে আমি ক্ষমা চেয়ে নিচ্ছি।’’

সেই সঙ্গে কংগ্রেস সাংসদ রাহুল গাঁধীকেও নিশানা করেন তিনি। টুইটারে তাঁকে ‘সন্ত্রাসবাদী’ বলে উল্লেখ করায় রাহুলকে ক্ষমা চাইতে হবে বলে দাবি করেন তিনি। এ ব্যাপারে তাঁকে সমর্থন করেন বিজেপি সাংসদরাও। কিন্তু বিরোধীরা তীব্র আপত্তি তোলেন তাতে। ক্ষমা চাওয়ার প্রশ্ন ওঠে না বলে জানিয়ে দেন রাহুলও।

আরও পড়ুন: ‘এ বার গোয়াতেও চমক দেখবেন’, দাবি শিবসেনা নেতা সঞ্জয় রাউতের​

এর আগেও গডসেকে দেশভক্ত বলে বিতর্ক বাধিয়েছিলেন সাধ্বী প্রজ্ঞা। বুধবার সংসদে একই বিপত্তি ঘটিয়ে বসেন তিনি। স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহের পেশ করা এসপিজি সংশোধনী বিল নিয়ে লোকসভায় আলোচনা চলাকালীন ডিএমকে সাংসদ এ রাজা নেতিবাচক মানসিকতার নজির দিতে গিয়ে গডসের নাম নিলে ফুঁসে ওঠেন প্রজ্ঞা। বলেন, ‘‘দেশভক্তদের উদাহরণ দেবেন না।’’ সেই সময়ে প্রজ্ঞার সামনে রাখা মাইকটি চালু না থাকায় লোকসভায় তাঁর মন্তব্য রোকর্ড হয়নি। কিন্তু বিষয়টি নিয়ে হইচই শুরু করে দেন কংগ্রেস-সহ বিরোধী সাংসদরা।

সবাই যা পড়ছেন

সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে
আরও পড়ুন

সবাই যা পড়ছেন

আরও পড়ুন