• সংবাদসংস্থা
সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে

বিশিষ্টজনেরা কি সাপ! বিতর্কে জাভেদ-শেখর

javed-sekhar
জাভেদ আখতার ও শেখর কপূর।

Advertisement

বিশিষ্টজন প্রসঙ্গে টুইটারে প্রবল তর্কে জড়িয়ে পড়লেন কবি-গীতিকার জাভেদ আখতার ও পরিচালক শেখর কপূর।

এ যাবৎ নরেন্দ্র মোদীর সমর্থক বলে পরিচিত শেখর আজ বিশিষ্টজনদের আলিঙ্গনকে ‘সাপের কামড়ের’ সঙ্গে তুলনা করেন। টুইটে তিনি লেখেন, ‘‘আমি দেশভাগের ফলে উদ্বাস্তু। তবে বাবা-মা অভাব রাখেননি। বিশিষ্টজনদের আমি খুব ভয় পাই। ওঁদের জন্য আমি নিজেকে অতিক্ষুদ্র ভাবতে বাধ্য হয়েছিলাম। আমার কয়েকটি ছবির পরে ওঁরা আমাকে হঠাৎ সাদরে গ্রহণ করেন। আমি ওঁদের খুব ভয় পাই। ওঁদের আলিঙ্গন সাপের মতো। এখনও নিজেকে উদ্বাস্তু মনে হয়।’’

জবাবে পরপর তিনটি টুইট করে জাভেদ প্রশ্ন করেন, ‘‘এই বিশিষ্টজনেরা কে? শ্যাম বেনেগাল, আদুর গোপালকৃষ্ণন, রামচন্দ্র গুহ? সত্যিই তাই? শেখর সাব, আপনি সুস্থ নন। এক জন মনোবিদের কাছে যাওয়ায় লজ্জার কিছু নেই।’’ এ-ও লেখেন, ‘নিজের জন্মভূমিতে নিজেকে উদ্বাস্তু, বহিরাগত বলে মনে হচ্ছে? তা হলে কোথায় নিজেকে বহিরাগত বলে মনে হবে না, পাকিস্তানে? নাটক বন্ধ করুন। ধনী, নিঃসঙ্গ বাচ্চার মতো আচরণ করবেন না।’’  আর তৃতীয় টুইটে লেখেন, ‘‘ভাষার ঘনঘটা দিয়ে দক্ষিণপন্থী মনোভাবকে মহান বলে দেখানোর চেষ্টা ছাড়া আর কিছুই নয়।’’

শেখরের পাল্টা টুইট, ‘‘এ সব কিছুই নয়, যাঁর নিজেকে উদ্বাস্তু বলে মনে হয়, তাঁর জীবন যাযাবরের মতোই কাটে।’’ প্রসঙ্গত, প্রধানমন্ত্রীকে  যে বিশিষ্টজনেরা চিঠি এবং পাল্টা চিঠি লিখেছেন, তাঁদের  মধ্যে এই দু’জন নেই।  জাভেদ অবশ্য দেশদ্রোহী বা অসহিষ্ণুতা বিতর্কে বরাবরই হিন্দুত্ববাদীদের বিপক্ষে সরব। 

আরও পড়ুন: ১৪ জন বিদ্রোহীর বিধায়ক পদ খারিজ, ইয়েদুরাপ্পার শক্তিপরীক্ষা আজ

সবাই যা পড়ছেন

Advertisement

সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে
আরও পড়ুন

সবাই যা পড়ছেন

আরও পড়ুন