• নিজস্ব সংবাদদাতা
সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে

মহিলাদের ভয় কাটাতে দেশ জুড়ে ‘প্রাইড ওয়াক’-এর আয়োজন করবে মহিলা কমিশন

main
প্রতীকী ছবি।

উন্নাও।হায়দরাবাদ। দিল্লি। রাজস্থান। রাঁচি। মালদার ইংলিশ বাজার।একের পর এক ধর্ষণ ও হত্যা আতঙ্কছড়িয়ে দিচ্ছে দেশজুড়ে! প্রতিবাদে রাস্তায় নামছে মানুষ। ধর্ষণ বিষয়ক আইন আরও কড়া হয়েছে। তবুও কম হওয়া তো দূর বেড়েই চলেছে ধর্ষণের ঘটনা।কেন?

এই প্রশ্নের উত্তর খুঁজতে জাতীয় মহিলা কমিশন নারী ও শিশুর নিরাপত্তা বিষয়ক একটি আলোচনা সভার আয়োজন হয়েছিল দিল্লির ইন্টারন্যাশনাল সেন্টারে। সঙ্গে ছিলেন বেশ কিছু রাজ্যের মহিলা কমিশনের অধ্যক্ষ এবং সদস্য।

রাজ্য মহিলা কমিশনের সঙ্গে আলোচনার ভিত্তিতে দেশব্যাপী কিছু কর্মসূচির কথা ঘোষণা করে জাতীয় মহিলা কমিশন। কমিশনের অধ্যক্ষ রেখা শর্মা জানান, ‘‘আগামী বছর ১ মার্চ দেশ জুড়ে আমরা প্রাইড ওয়াক করব। আমাদের দেশে মেয়েরা রাতের বেলা স্বাধীনভাবে হাঁটাচলা করতে ভয় পাচ্ছেন। এই ভয়টা কাটাতেই হবে। প্রত্যেক রাজ্যের রাজধানীতে পয়লা মার্চ সন্ধে ৭টা থেকে ৮টা একসময়ে এই প্রাইড ওয়াক করব বলে সিদ্ধান্ত নিয়েছি আমরা।’’ প্রাইড ওয়াকে থাকবে ধর্ষণ বিরোধী পোস্টার। বিলি করা হবে প্যামফ্লেটস্। রবিবার বলে স্কুল কলেজের ছাত্রছাত্রীদের এই প্রাইড ওয়াকে যোগ দিতে বলা হবে বলে জানায় কমিশন।

আরও পড়ুন:নির্ভয়াকাণ্ডে ফাঁসির সাজাই বহাল রাখল সুপ্রিম কোর্ট

প্রাইড ওয়াক ছাড়াও আরও কিছু গুরুত্বপূর্ণ প্রস্তাব দেওয়া হয়েছে দেশের প্রতিটি রাজ্য মহিলা কমিশনকে। প্রত্যেক রাজ্যের অপরাধপ্রবণ পাঁচ থেকে দশটি জেলায় পথনাটিকার মাধ্যমে মানুষকে ধর্ষণ সম্পর্কে সচেতন করার প্রস্তাব দিয়েছে জাতীয় কমিশন। নাটকের মাধ্যমে ধর্ষণের শাস্তি, আইন বিষয়ে সহজ ভাষায় মানুষকে বোঝানো যাবে বলে মনে করছে জাতীয় কমিশন।জনমানসে ধর্ষণ রুখতে আর মেয়েদের নিরাপত্তার দাবি স্পষ্ট করতে  জাতীয় মহিলা কমিশন কিছু পোস্টার তৈরির কথাও বলেন। বিভিন্ন রাজ্যের মহিলা কমিশনে সেই পোস্টার দেওয়া হবে সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়। রাজ্য মহিলা কমিশন সেই পোস্টার আঞ্চলিক ভাষায় অনুবাদ করবে। সেই পোস্টার  বিশ্ববিদ্যালয়, স্কুল চত্বর এবং জনবহুল রাস্তায় টাঙিয়ে সব ধরণের মানুষকে সচেতন করা হবে বলে জানায় জাতীয় মহিলা কমিশন।

ওই দিন অন্ধ্রপ্রদেশের মহিলা কমিশনের চেয়ারপার্সন দিশা আইনের কার্যকারিতার ওপর একটি বক্তব্য জাতীয় কমিশনে পেশ করেন। তিনি জানান, ধর্ষণ রুখতে কড়া আইন নিয়ে এসেছে অন্ধ্রপ্রদেশের জগন্মোহন রেড্ডির সরকার। শুক্রবার অন্ধ্রপ্রদেশের বিধানসভায় পাশ হয়েছে নয়া বিল। অন্ধ্রপ্রদেশের সেই দিশা বিলে পরিষ্কার করে বলা হচ্ছে যে, ২১ দিনের মধ্যেই ধর্ষককে মৃত্যুদণ্ড দিতে হবে। অন্য দিকে পশ্চিমবঙ্গ রাজ্য মহিলা কমিশন ধর্ষণ রুখতে অ্যালার্ট বাটন, স্কুলে বাধ্যতামূলক সেল্ফ ডিফেন্স ক্লাস,  স্কুলে মেয়েদের নিরাপত্তা বিষয়ে নতুন সিলেবাস চালু করার প্রস্তাব পেশ করে।

আরও পড়ুন:অপসারণ বেআইনি ছিল: ট্রাইবুনাল ॥ টাটা সন্সের মাথায় ফের সাইরাস মিস্ত্রি

সবাই যা পড়ছেন

সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে
আরও পড়ুন

সবাই যা পড়ছেন

আরও পড়ুন