• সংবাদ সংস্থা
সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে

ক্ষোভ-উষ্মার মধ্যেই দফতর বণ্টন উদ্ধবের, বেশি মন্ত্রী এনসিপির

NCP leader Ajit Pawar with Chief Minister Uddhav Thackeray
অর্থ মন্ত্রকের দায়িত্ব পেলেন উপমুখ্যমন্ত্রী তথা এনসিপি বিধায়ক তথা শরদ পওয়ারের ভাই অজিত পওয়ার (বাঁ-দিকে)। ছবি: পিটিআই।

জোট-সংসারে শিবসেনা-কংগ্রেস বিধায়কদের ক্ষোভের মাঝেই মন্ত্রিত্ব বণ্টনের কাজ সেরে ফেললেন মহারাষ্ট্রের মুখ্যমন্ত্রী উদ্ধব ঠাকরে। মন্ত্রিত্বের নিরিখে সবচেয়ে বেশি লাভবান হয়েছে এনসিপি। এনসিপি-র ৫৪ জন বিধায়কের মধ্যে মন্ত্রিত্ব পেয়েছেন ১৬ জন। অর্থ মন্ত্রকের দায়িত্ব পেয়েছেন উপমুখ্যমন্ত্রী তথা এনসিপি বিধায়ক তথা শরদ পওয়ারের ভাই অজিত পওয়ার। অন্য দিকে, প্রথম বার বিধানসভায় পা রেখেই পরিবেশ, পর্যটন এবং প্রোটোকলের মতো গুরুত্বপূর্ণ দফতরের কাজ সামলাবেন উদ্ধব-পুত্র আদিত্য ঠাকরে।

রবিবার রাজ্যপাল ভগৎ সিংহ কোশিয়ারীর কাছে জোটের মন্ত্রীদের নামের তালিকা পাঠিয়ে দেন উদ্ধব। তাতে স্বাক্ষর করে আনুষ্ঠানিক ভাবে সিলমোহর দেন রাজ্যপাল।

গত ২৮ নভেম্বর মহারাষ্ট্রের মুখ্যমন্ত্রী হিসাবে শপথ নিয়েছিলেন শিবসেনার উদ্ধব ঠাকরে এবং ছয় বিধায়ক। এর পর ৩০ ডিসেম্বর ক্যাবিনেট সম্প্রসারণ করা হয়। যদিও সে সময় কারা কোন দফতরের দায়িত্ব সামলাবেন, তা স্থির করা হয়নি। ক্যাবিনেট সম্প্রসারণের পাঁচ দিন পর মন্ত্রক বণ্টন করলেন উদ্ধব। মোট ৪৩ জন মন্ত্রীকে বিভিন্ন দফতরের দায়িত্ব দেওয়া হয়েছে। এর মধ্যে রয়েছেন ৩৩ জন ক্যাবিনেটমন্ত্রী ও ১০ জন প্রতিমন্ত্রী। কংগ্রেসের ৪৪ জন বিধায়কের ১২ জন, শিবসেনার ৫৬ জনের মধ্যে ১৫ জন এবং এনসিপি-র ৫৪ জনের মধ্যে মন্ত্রিত্ব পেয়েছেন ১৬ জন।

আরও পড়ুন: সিএএ সমর্থনে অমিতের দেওয়া নম্বরে নানা ‘অফার’

এনসিপি-র অনিল দেশমুখ রাজ্যের স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীর দায়িত্ব সামলাবেন। শিবসেনা বিধায়ক একনাথ শিন্দের কাঁধে রয়েছে নগরোন্নন মন্ত্রকের দায়িত্ব। পূর্ত দফতরের দায়িত্বে রয়েছেন মহারাষ্ট্রের প্রাক্তন মুখ্যমন্ত্রী অশোক চহ্বান। চহ্বানের দল কংগ্রেসের আর এক নেতা বালাসাহেব থোরাট রাজস্ব দফতরের কাজ দেখবেন। খাদ্য, সরবরাহ ও ক্রেতাসুরক্ষা মন্ত্রক পেয়েছেন কংগ্রেসেরই ছগন ভুজবল। তথ্য ও প্রযুক্তি দফতর, তথ্য ও জনসংযোগ, আইন ও বিচারবিভাগ এবং সাধারণ প্রশাসন ছা়ড়াও যে সব দফতরের বণ্টন হয়নি, তা সামলাবেন মুখ্যমন্ত্রী উদ্ধব ঠাকরে।

এ দিন প্রথম বার মন্ত্রী হওয়ার পর আদিত্য ঠাকরে বলেন, ‘‘পর্যটন ও পরিবেশ মন্ত্রকের দায়িত্ব পেয়েছি। পর্যটনের মাধ্যমে মহারাষ্ট্রের অর্থনীতিকে আরও মজবুত করা যেতে পারে। আগামিকালের বৈঠকের পর মন্ত্রকের কাজ শুরু করব।’’

আরও পড়ুন: দিল্লিতে হামলা চালোনোয় মদত ছিল সোলেমানির, দাবি ট্রাম্পের

তবে মন্ত্রিত্ব বণ্টনের আগে থেকেই জোটের সংসারে অশান্তি দেখা দিয়েছে। শনিবার প্রতিমন্ত্রীর পদমর্যাদা পাওয়া শিবসেনার বিধায়ক আব্দুল সাত্তারের ক্ষোভ প্রকাশ্যে এসে যায় তাঁর ইস্তফার মাধ্যমে। যদিও শিবসেনার নেতৃত্ব সে ইস্তফাপত্র নিতে অস্বীকার করেছেন বলে দাবি করেছেন।

আরও পড়ুন: আমেরিকা আক্রান্ত হলে ৫২ জায়গায় কঠোর হামলা হবে, ইরানকে হুঁশিয়ারি ট্রাম্পের

ক্ষোভ রয়েছে কিছু কংগ্রেস বিধায়কদের মধ্যেও। প্রথম বার বিধায়ক হয়েই মন্ত্রিত্ব লাভ করেছেন আদিত্য। তবে কংগ্রেসের কৈলাস গোরনন্তালের ক্ষেত্রে তা হয়নি। তিন বারের বিধায়ক হয়েও মন্ত্রিত্ব পাননি তিনি। জালনা বিধানসভা কেন্দ্রের বিধায়ক কৈলাসের কথায়, ‘‘প্রদেশ কংগ্রেস নেতৃত্বকে আমাদের পদত্যাগপত্র পাঠিয়ে দিয়েছি। এই নিয়ে তিন বার বিধায়ক হিসাবে নির্বাচিত হয়েছি। যখন কংগ্রেস এবং এনসিপি-তে ভাঙন ধরেছিল, সে সময় ভোটে জিতেছি। যখন মোদী-ঝড় চলছিল, সে সময়ও নির্বাচিত হয়েছি। এই নিয়ে তিন বার ভোটে জিতলাম। তা হলে কেন এ ধরনের অবিচার করা হচ্ছে? আমাকে কোনও মন্ত্রকই দেওয়া হয়নি!’’

সবাই যা পড়ছেন

সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে
আরও পড়ুন

সবাই যা পড়ছেন

আরও পড়ুন