সংসদে পাশ হওয়ার পরে গত মাসেই আইনি ভাবে নিষিদ্ধ হয়েছে তিন তালাক। এখন তিন তালাক শাস্তিযোগ্য অপরাধ। কিন্তু পরিস্থিতি যে অনেক ক্ষেত্রেই বদলায়নি তার প্রমাণ মিলল এ বার উত্তরপ্রদেশে। সেখানকার সম্ভল জেলায় এক ব্যক্তির বিরুদ্ধে স্ত্রীকে তিন তালাক দেওয়ার অভিযোগ উঠল। পুলিশে দায়ের করা অভিযোগে ওই ব্যক্তির স্ত্রী জানিয়েছেন, সময় মতো খাবার না দেওয়ায় তাঁকে তিল তালাক দিয়েছেন তাঁর স্বামী। পুলিশ ওই ব্যক্তিকে খুঁজছে।

পুলিশের কাছে করা অভিযোগে সম্ভলের চন্দউসির বাসিন্দা ওই মহিলা জানিয়েছেন, সম্প্রতি এক দিন দুপুরে তাঁর স্বামী কাজ থেকে ফেরেন। তিনি সঙ্গে সঙ্গে দুপুরের খাবার খেতে চান। কিন্তু তখনও ওই মহিলার রান্নার কাজ সারা হয়নি। ফলে খাবার দিতে বেশ খানিকটা দেরি হয়ে যায়। সেই ‘অপরাধে’ তাঁকে স্বামী তিন তালাক দেন। শুধু তাই নয়, খাবার দিতে দেরি হওয়ার জন্য স্ত্রীকে তিনি বেধড়ক মারধরও করেন। ঘটনার পর থেকে যদিও সেই ব্যক্তি পলাতক।

প্রাথমিক ধাক্কা সামলে মারধর এবং তিন তালাকের অভিযোগ নিয়ে তিনি প্রথমে মহিলা থানায় যান। স্বামীর বিরুদ্ধে চন্দউসি কোতোয়ালি থানায় অভিযোগ দায়ের করেন। পুলিশ তদন্ত শুরু করেছে। অভিযুক্তের খোঁজ চলছে।কিছুদিন আগে নয়ডাতেও এক মহিলা সব্জি কেনার জন্য টাকা চাওয়ায় স্বামী তাঁকে তিন তালাক দিয়েছিলেন। সেই ঘটনারও তদন্ত চলছে।

আরও পড়ুন : স্কুল পড়ুয়াদের রাস্তায় জিমন্যাস্টিকে মুগ্ধ নাদিয়া, কিরেণ রিজিজু

আরও পড়ুন : চিনে দুই মহিলা প্রতিযোগীর লিঙ্গ পরিচয় নিয়ে উঠল প্রশ্ন