এক মহিলা পুরুষদের মতো পোশাক পরে তাঁদের মতো সেজে নাবালিকাদের যৌন নির্যাতন করতেন। এ কাজে তিনি ‘সেক্স টয়’ ব্যবহার করতেন বলেও অভিযোগ। অভিযোগ সামনে আসার পর তাঁর স্বামী তিন তলা বিল্ডিং থেকে ঝাঁপ দিয়ে আত্মহত্যা করলেন। শুক্রবার তেলঙ্গানার ওঙ্গোলের ঘটনা।

পুলিশ সূত্রে জানা গিয়েছে, সম্প্রতি এক ১৭ বছরের কিশোরী অন্ধ্রপ্রদেশের প্রকাশম জেলার পুলিশ সুপারের কাছে অভিযোগ করেন, কৃষ্ণকিশোর রেড্ডি নামে এক ব্যক্তি তাকে যৌন হেনস্থা করেছেন। পুলিশ সুপার সিদ্ধার্থ কৌশল বিষয়টি তদন্তের নির্দেশ দেন।

তদন্তে নেমে অভিযুক্তের বাড়িতে যান পুলিশ আধিকারিকরা। ওঙ্গোলের ডিএসপি বি রবি চন্দ্র জানিয়েছে, তদন্তকারীরা ঘটনাস্থলে গিয়ে ওই মহিলা ও তাঁর স্বামীকে জেরা শুরু করেন। জেরা শুরুর একটু পরেই বিষয়টি পরিষ্কার হতে থাকে। দেখা যায় ওই মহিলা পুরুষ সেজে কিশোরীদের উপর অত্যাচার করতেন।

আরও পড়ুন: এত দিনে সামনে এল রং দে বসন্তীতে আমিরের বিপরীতে অভিনয় করা সু-এর আসল পরিচয়

জেরা চলার সময়ই সেখান থেকে উঠে পালিয়ে যান অভিযুক্ত মহিলার স্বামী। বাড়ির ছাদে উঠে ঝাঁপ দেন। সঙ্গে সঙ্গে তাঁকে হাসপাতালে নিয়ে গেলে সন্ধ্যায় তাঁর মৃত্যু হয়।

আরও পড়ুন: দম্পতির ব্যক্তিগত মুহূর্তের শব্দ রেকর্ড যুবকের, ঘটনা ধরা পড়ল হোটেলের সিসি ক্যামেরায়

ডিএসপি রবি জানিয়েছেন, অভিযুক্ত মহিলা প্রথমে কম বয়সী মেয়েদের সঙ্গে ভাব জমাতেন। তারপর তাদের বাড়িতে ডেকে যৌন নিগ্রহ করতেন। ওই মহিলার বাড়ি থেকে এক ব্যাগ ভর্তি সেক্স টয় উদ্ধার হয় বলে জানিয়েছে পুলিশ।