Follow us on

Download the latest Anandabazar app

© 2021 ABP Pvt. Ltd.

Advertisement

১৭ জানুয়ারি ২০২২ ই-পেপার

আপনার মোবাইলের বিমা করানো আছে তো?

অর্চিষ্মান সাহা
২২ অক্টোবর ২০১৮ ১৪:০৪
অবশ্যই বিমা করান মোবাইলের।

অবশ্যই বিমা করান মোবাইলের।

যদি বিপদ হয়! এই ভয়, এই দুশ্চিন্তা থেকে মুক্তি পাওয়ার অন্যতম এক গুরুত্বপূর্ণ উপায় এই বিমা পরিষেবা।ফলে পছন্দের গাড়ি হোক অথবা শরীর, বছর বছর প্রিমিয়াম গুনে যাওয়া এক প্রকার মানসিক শান্তি। কখনও যদি হাসপাতাল যেতে হয় কিংবা গ্যারাজ, ভরসা থাকুক বিমা কোম্পানি! গাড়ি-বাড়ি-স্বাস্থ্য, এমনকি জীবনবিমা করে রাখা যেমন খুব সাধারণ হয়ে দাঁড়িয়েছে, এখন মানুষ আরও সতর্ক, তাঁরা ঘুরতে যাওয়ার বিমা করছেন, ক্যাব চড়লে সেই যাত্রা বিমা করিয়ে রাখছেন, ট্রেনের টিকিট কাটার সময় ক্রেতাকে সুযোগ দেওয়া হচ্ছে অল্প কিছু মূল্যের বিনিময় তার যাত্রা বিমা করে রাখতে!

কিন্তু আপনার হাতের ফোনটি? অনেক দাম দিয়ে কিনেছেন, সবে তিন মাস যেতে না যেতেই হাত থেকে পড়ে ডিসপ্লে ভেঙেচুরে একাকার! অথবা বন্ধুদের সঙ্গে সমুদ্র বা নদীর ধারে ঘুরছেন, ছবি তুলতে গিয়ে হাত ফস্কে সোজা জলে গিয়ে পড়ল ফোনটি। ব্যস, আপনার সাধের, প্রয়োজনের ফোনটির একেবারে দফারফা।এক্ষেত্রে কোনও ওয়ার‌্যান্টি পাবেন না, আর ঠিক করতে যা খরচ হয় তাতে একটা নতুন ফোনের দাম হয়ে যায়।

ধরে নিন, আপনি ১২০০০ টাকার একটি ফোন ব্যবহার করছেন। তার ডিসপ্লে ৫.৮ ইঞ্চি। সুন্দর, ঝকঝকে ফোন, দারুণ ক্যামেরা, আপনি বেজায় খুশি ফোনটি নিয়ে। কিন্তু যখন আপনার ভুলে বা দুর্ঘটনাবশত ফোনটির ডিসপ্লে ভাঙলো, সার্ভিস সেন্টার আপনার নামে প্রায় ৭০০০ থেকে ৮০০০ টাকার বিল বানিয়ে দেবে। তা-ও শুধু যদি ডিসপ্লের ক্ষতি হয়। এর সঙ্গে যদি অভ্যন্তরীণ কোনও সমস্যা হয়, যা আপানর ভুলে ঘটেছে, তার দাম আপনাকেই দিতে হবে। বুঝতেই পারছেন, ১২০০০ টাকার ফোন ঠিক করতে প্রায় সেই পরিমাণ খরচ করার মানে হয় না। এদিকে আপনার দরকারি সবকিছু এই ফোনেই রয়েছে। উপায়?

Advertisement



আরও পড়ুন:

আরও পড়ুন:

ফোনের বিমা। ঠিক পড়েছেন, এখন অনেক জায়গা থেকেই ফোনের বিমা করানোর উপায় রয়েছে। ই-কমার্স সাইট থেকে ফোন কিনলে ফোন কেনার সময় তাদের নিজস্ব ওয়ার‌্যান্টি, বাই-ব্যাক গ্যারান্টি এবং ড্যামেজ প্রোটেকশন-এর মতো পরিষেবা ফোন কেনার সময় কিনতে পারবেন। শাওমি-র নিজেদের ওয়েবসাইট থেকে কিনলে ওদের নিজস্ব অতিরিক্ত এই পরিষেবাগুলি কিনতে পারবেন। ফোনের বিক্রয়মূল্যের উপর এই পরিষেবাগুলি তিন-চার রকম দামের ফারাকে পাওয়া যায়, যত দামী ফোন, তত দামী পরিষেবা। এমনকি, এখন দোকান থেকে কিনতে গেলেও একদম একই রকমের অতিরিক্ত এই সুরক্ষা আপনি কিনতে পারবেন ফোনের সঙ্গে।

কিন্তু এগুলো কাজ করে কী ভাবে? খুব সহজ,ধরে নিন আপনার ফোনটি হাত থেকে পড়ে গিয়েছে। ঠিক করতে খরচ ৮০০০ টাকা। এবার যেহেতু আপনি এই অতিরিক্ত সুরক্ষা নিয়ে রেখেছিলেন, কখনও তারা বিনামূল্যে অথবা ৬০ থেকে ৭০% অবধি খরচ দিয়ে দেয়। ফলে ৮০০০ টাকার সার্ভিস আপনি পাচ্ছেন ওই আন্দাজ ৩০০০ টাকার মধ্যে। এছাড়া এরা নিজেরাই আপনার বাড়ি থেকে নিয়ে যাবে, নিজেরাই দিয়ে যাবে। ফলে, আপনার কোনওঝামেলা রইল না।



আরও পড়ুন: মুঠোফোন থাকলেও ল্যাপটপ দরকার​

কিন্তু যদি আপনার ফোন চুরি হয়ে যায়? সাধারণত ফোন চুরি যাওয়া একেবারেই মুহূর্তের ব্যাপার, প্রায় সব ঘরে ঘরে মানুষ এই ভোগান্তির শিকার। চুরি যাওয়ার সঙ্গে সঙ্গে সিম লক করা থেকে থানায় জানানো— হাজার ঝামেলা। এবং তার পর সেটার আশা ছেড়ে দিয়ে নতুন ফোন কিনে ফেলা। কিন্তু এবারে আপনি বিমার অন্তর্গত হলে সুখবর।ফোনটি কেনার কত দিনের মাথায় চুরি গিয়েছে, সেই হিসেবে আপনি ফোনের দামের বেশ কিছুটা মূল্য ফিরে পাবেন। যেমন, প্রথম তিন মাসের মধ্যে হলে ৭০%, তিন থেকে ৬ মাস হলে ৫০%, তার পর হলে ৩০%। এই হিসেবের কম-বেশি হতে পারে, কিন্তু তাতেও আপনার লাভ!

তাই ফোন কেনার সময় তার ক্যামেরা, ডিসপ্লে, ব্যাককভার ইত্যাদি যেমন দেখবেন, এই বিমার কথাও একটু মাথায় রাখবেন। অল্প খরচের বিনিময় যে সুরক্ষা আপনিপাচ্ছেন, তার মূল্য অনেক!

ছবি সৌজন্য: শাটারস্টক।

আরও পড়ুন

Advertisement