×

আনন্দবাজার পত্রিকা

Advertisement

০৪ মার্চ ২০২১ ই-পেপার

২টি ডোজের ব্যবধান দেড় মাস থেকে বাড়িয়ে ৩ মাস হলে অক্সফোর্ড টিকার কার্যকারিতা বাড়ে, জানাল গবেষণা

সংবাদ সংস্থা
কলকাতা ২০ ফেব্রুয়ারি ২০২১ ১৭:১৯
অক্সফোর্ড বিশ্ববিদ্যালয় ও অ্যাস্ট্রাজেনেকার কোভিড টিকা। -ফাইল ছবি।

অক্সফোর্ড বিশ্ববিদ্যালয় ও অ্যাস্ট্রাজেনেকার কোভিড টিকা। -ফাইল ছবি।

দেড় মাসের ব্যবধান নয়, ৩ মাসের ব্যবধানে ২টি ডোজ দেওয়া হলে অক্সফোর্ড বিশ্ববিদ্যালয় এবং ওষুধ সংস্থা অ্যাস্ট্রাজেনেকা-র বানানো কোভিড টিকা অনেক বেশি কার্যকরী হবে। সাম্প্রতিক একটি গবেষণা এ কথা জানিয়েছে। গবেষণাপত্রটি প্রকাশিত হয়েছে চিকিৎসা বিজ্ঞানের আন্তর্জাতিক জার্নাল ‘দ্য ল্যানসেট’-এ।

গবেষণা জানিয়েছে, ২টি ডোজের মধ্যে সময়ের ব্যবধান দেড় মাস থেকে বাড়িয়ে ৩ মাস করা হলে অক্সফোর্ডের কোভিড টিকার প্রথম ডোজটি ৭৬ শতাংশ নিরাপত্তা দিতে পারে। তাই অনায়াসেই ২টি ডোজের মধ্যে সময়ের ব্যবধান বাড়ানো যায়। তাতে টিকার কার্যকারিতাও বেড়ে যায়।

এই ফলাফল এসেছে মানুষের উপর কোভিড টিকার ফেজ-থ্রি পর্যায়ের র‌্যান্ডমাইজ্‌ড ট্রায়ালে। গবেষণায় জড়িত ছিলেন অক্সফোর্ড বিশ্ববিদ্যালয়ের গবেষকরাও।

Advertisement

গবেষকরা জানিয়েছেন, ২টি ডোজের মধ্যে সময়ের ব্যবধান বাড়িয়ে দ্বিগুণ করা হলে টিকা সরবরাহের ঘাটতিও পুষিয়ে ওঠা যাবে। আরও দ্রুত আরও বেশি সংখ্যক মানুষকে দেওয়া সম্ভব হবে অক্সফোর্ডের কোভিড টিকা।

এই গবেষণায় বোঝার চেষ্টা হয়েছিল, অক্সফোর্ড টিকার বিভিন্ন পর্যায়ে ডোজগুলি কতটা নিরাপত্তা দিতে পারছে।

মূল গবেষক অক্সফোর্ড বিশ্ববিদ্যালয়ের অধ্যাপক অ্যান্ড্রু পোলার্ড বলেছেন, ‘‘যখন দীর্ঘমেয়াদি নিরাপত্তার প্রশ্নটি সামনে আসছে তখন টিকার দ্বিতীয় ডোজের গুরুত্বও বাড়ছে। কারণ দ্বিতীয় ডোজটিই দীর্ঘমেয়াদি নিরাপত্তা দিতে পারে। সময়ের ব্যবধান বাড়ালে টিকা সরবরাহের ঘাটতি মিটিয়ে সে ক্ষেত্রে সকলকেই ৩ মাস পর দ্বিতীয় ডোজটিও দেওয়া সহজতর হবে।’’

Advertisement