Follow us on

Download the latest Anandabazar app

© 2021 ABP Pvt. Ltd.

Advertisement

০৯ ডিসেম্বর ২০২১ ই-পেপার

পিরিয়ডের সময় আর স্যানিটারি ন্যাপকিন ব্যবহার করেন না দিয়া

নিজস্ব প্রতিবেদন
১১ ডিসেম্বর ২০১৭ ১৭:০৮
এখন বায়োডিগ্রেডেবল ন্যাপকিন ব্যবহার করেন দিয়া।

এখন বায়োডিগ্রেডেবল ন্যাপকিন ব্যবহার করেন দিয়া।

রাষ্ট্রপুঞ্জে ভারতের গুডউইল অ্যাম্বাসাডর হওয়ার পর থেকেই পরিবেশ সচেতনতা নিয়ে সোচ্চার হয়েছেন অভিনেত্রী দিয়া মির্জা। এ বার জানালেন তিনি স্যানিটারি ন্যাপকিন ব্যবহার করা বন্ধ করে দিয়েছেন। কারণ, স্যানিটারি ন্যাপকিন থেকে পরিবেশ দূষিত হয়।

নবভারত টাইমসকে দেওয়া সাক্ষাত্কারে দিয়া বলেন, স্যানিটারি ন্যাপকিন ও ডায়াপার পরিবেশকে দূষিত করে। তাই আমি পিরিয়ডের সময় স্যানিটারি ন্যাপকিন ব্যবহার করা বন্ধ করে দিয়েছি। একজন অভিনেত্রী হিসেবে আমি যদি এটা করি তা হলে তা সমাজে বড় প্রভাব ফেলবে বলে আমি মনে করি। কারণ আমরা স্যানিটারি ন্যাপকিনের বিজ্ঞাপনেও কাজ করে থাকি। যখনই আমি স্যানিটারি ন্যাপকিন ব্যবহারের প্রচার করার প্রস্তাব পাই তখনই নাকচ করে দিই।

তা হলে কী ব্যবহার করেন দিয়া? বলেন, “এখন আমি বায়ডিগ্রেডেবল ন্যাপকিন ব্যবহার করি। যা প্রকৃতির সঙ্গে ১০০ শতাংশ মিশে যায়। আমাদের দেশে মহিলারা বহু দিন ধরে পিরিয়ডের সময়ে তুলো ব্যবহার করে আসছে। এখন আরও অনেক বিকল্প এসেছে যা পরিবেশের জন্য আরও খারাপ। ভারতীয় মহিলাদের অবিলম্বে স্যানিটারি ন্যাপকিনের বদলে বায়োডিগ্রেডেবল ন্যাপকিন ব্যবহার করা উচিত।”

Advertisement

আরও পড়ুন: ঋতুচক্র বুঝিয়ে দিতে নতুন বন্ধু দোলনদি

আরও পড়ুন: স্কুলে স্যানিটারি ন্যাপকিন ডিসপেনসার বসিয়ে কুইন’স অ্যাওয়ার্ড পাচ্ছেন ইনি

যে কোনও মহিলা সারা জীবনের মেনস্ট্রুয়েটিং পিরিয়ডে যে পরিমাণ স্যানিটারি ন্যাপকিন ব্যবহার করেন তা থেকে ১২৫ কেজি নন-বায়োডিগ্রেডেবল পদার্থ তৈরি হয়। ২০১১ সালের একটি সমীক্ষার রিপোর্ট জানাচ্ছে, ভারতে প্রতি মাসে শুধুমাত্র স্যানিটারি ন্যাপকিনের কারণে ৯০০০ টন নন-বায়োডিগ্রেডবল পদার্থ তৈরি হয়।

আরও পড়ুন

Advertisement