ইস্টবেঙ্গলে কোচ হয়ে আসার পরে আলেসান্দ্রো মেনেন্দেস কোনও খেতাব জিততে পারেননি। এ বার কলকাতা লিগ জেতার সুযোগ এসেছে ঠিকই, কিন্তু সেটা এমন ভাবে যে ব্যাটন তাঁর হাতে নেই। কাল, রবিবার ইস্টবেঙ্গল জিতলেও হোয়ান গঞ্জালেসদের তাকিয়ে থাকতে হবে বারাসতে পিয়ারলেস কী ফল করছে, তার দিকে।

গোদের উপর বিষফোঁড়ার মতো আবার শেষ ম্যাচে তিন নিয়মিত ফুটবলারকে পাচ্ছেন না স্পেনীয় কোচ। কার্ডের গেরোয় আটকেছেন খাইমে সান্তোস কোলাদো ও নওরেম তনদোম্বা। চোট থাকায় শেষ ম্যাচ খেলবেন না বোরখা গোমেস পেরেসও। কী ভাবে কাস্টমসের বিরুদ্ধে দল গড়বেন, তা এ দিন অনুশীলনে বুঝতে দেননি আলেসান্দ্রো। শুধু তাই নয়। শনিবার বিশ্রাম দিয়েছেন পুরো দলকে। হোটেলের জিমে ও পুলে সকালে সময় কাটাবে দল। সেখানে কর্তা থেকে মিডিয়া, সবার প্রবেশ নিষেধ। 

গত বছর কলকাতার লিগ খেতাব ধরে রাখতে পারেনি ইস্টবেঙ্গল।  এ বার মহমেডানকে হারানোর পরে আলেসান্দ্রো বলে দিয়েছেন, ‘‘আমরা ফেভারিট।’’ সঙ্গে তাঁর ইঙ্গিতপূর্ণ মন্তব্য, ‘‘শেষ ম্যাচটা জিততে চাই। তারপর যা হওয়ার হোক।’’ খেতাবের লড়াইয়ে থাকা দুটো দলের শেষ ম্যাচ শুরু হবে রবিবার একই সময় দুপুর আড়াইটেয়। সাধারণত গড়াপেটা আটকাতে দুটি ম্যাচই সরাসরি সম্প্রচার করা হয়। এ ক্ষেত্রে ইস্টবেঙ্গল ম্যাচ সরাসরি দেখানো হলেও পিয়ারলেসের ম্যাচ দেখানো হচ্ছে না। শোনা যাচ্ছে, তার রেকর্ডিং করার ব্যবস্থা হচ্ছে।

এ দিকে, খেতাবি ম্যাচের সঙ্গেই কেন অবনমনের সব ম্যাচ দেওয়া হচ্ছে না, তা নিয়ে প্রশ্ন তুলে আইএফএ-কে চিঠি দিয়েছে কাস্টমস। তাদের কোচ বিশ্বজিৎ ভট্টাচার্য বললেন, ‘‘কোনও কোনও দলকে বাঁচাতে আমাদের সমস্যায় ফেলা হচ্ছে। সব জায়গাতেই খেতাবের লড়াইয়ে থাকা দলের ম্যাচ যেমন একসঙ্গে হয়, অবনমনের আওতায় থাকা দলের ম্যাচও একই সঙ্গে দেওয়া হয়। সেটা কিন্তু করছে না আইএফএ।’’