চিন ওপেন ব্যাডমিন্টনে ভারতের সম্মান রক্ষার লড়াই চালিয়ে যাচ্ছেন সাত্ত্বিকসাইরাজ রানকিরেড্ডি এবং চিরাগ শেট্টি জুটি। পি ভি সিন্ধু থেকে শুরু করে ভারতের সবাই এ বার এই টুর্নামেন্ট থেকে একেবারে শুরুর দিকেই বিদায় নিয়েছেন। থাকার মধ্যে চিরাগদের জুটি। যাঁরা চিনের ফোঝাউয়ে শুক্রবার চমকে দিলেন শেষ চারে উঠে। কোয়ার্টার ফাইনালে মাত্র ৪৩ মিনিটে চিরাগরা হারালেন স্থানীয়দের মধ্যে অসম্ভব জনপ্রিয় জুটি লি জুন হুই এবং লিউ ইউ চেনকে। অবাছাই ভারতীয় জুটি বেশ দাপট নিয়েই জিতলেন ২১-১৯, ২১-১৫ ফলে।

সেমিফাইনালে অবশ্য চিরাগদের লড়াইটা বেশ কঠিন। তাঁদের লড়তে হবে চিন ওপেনে পুরুষদের ডাবলসের শীর্ষ বাছাই ইন্দোনেশীয় জুটি মার্কাস ফার্নাল্দি জিদেয়ন এবং কেভিন সঞ্জয় সুকামুলিজোর সঙ্গে। গত মাসে চিরাগ-সাত্ত্বিক অসাধারণ খেলেছিলেন ফরাসি ওপেনে। তবে ফাইনালে তাঁরা হেরে যান। ঘটনাচক্রে বিশ্বের ন’নম্বর ভারতীয় জুটি হারেন এখানে এ বারের সেমিফাইনালিস্ট প্রতিপক্ষ মার্কাসদের কাছেই। তাই চিরাগদের সামনে বদলা নেওয়ার একটা সুযোগ এসে গেল। 

শুক্রবার কোয়ার্টার ফাইনালে চিরাগদের প্রথম গেমে সমানে-সমানে লড়াই হয়েছে। ভারতীয় জুটি এই গেমটা বার করতে পেরেছে মূলত সাত্ত্বিকের কৃতিত্বে। একই ভাবে দ্বিতীয় গেমেও টুর্নামেন্টের তৃতীয় বাছাই চিনা জুটি হাড্ডাহাড্ডি লড়াই করেছে। ফল একটা সময় ১৫-১৫ হয়ে যায়। কিন্তু এখান থেকে অসাধারণ খেলতে থাকেন চিরাগরা। বিপক্ষের কয়েকটি ভুলের সুযোগ নিয়ে তাঁরা টানা ছ’টি পয়েন্ট জিতে নেন। সেই সঙ্গে ম্যাচও পকেটে চলে আসে।

মরসুমে এই নিয়ে তিন বার এই চিনা জুটির বিরুদ্ধে খেললেন চিরাগরা। এখানকার মতোই তাঁরা এ’বছরের এপ্রিলে লি জুনদের হারিয়েছিলেন তাইল্যান্ড ওপেনে। তবে জুনে অস্ট্রেলীয় ওপেনের দ্বিতীয় রাউন্ডে চিরাগরা হেরে যান। ফরাসি ওপেনের ফাইনালে ওঠা ছাড়া সাত্ত্বিকদের সেরা পারফরম্যান্স অগস্টে ব্যাঙ্ককের টুর্নামেন্টে চ্যাম্পিয়ন হওয়া। এই জুটির মধ্যে সাত্ত্বিক ছাত্র পুল্লেলা গোপীচন্দের। ২০১৪-তেই তিনি সিদ্ধান্ত নিয়ে ফেলেন শুধু ডাবলসে খেলবেন। মুম্বইয়ের চিরাগ আবার উদয় পওয়ের ছাত্র হলেও ব্যাডমিন্টনের অনেক কিছু শিখেছেন প্রকাশ পাড়ুকোনের স্ট্রোক দেখে। আপাতত এই জুটির স্বপ্ন টোকিয়ো অলিম্পিক্সে খেলতে নেমে খুব ভাল কিছু করার। চিরাগ বলেছেনও সে কথা, ‘‘আমাদের পাখির চোখ কিন্তু টোকিয়ো অলিম্পিক্স। ওখানেই ভাল কিছু করতে চাই।’’