সঙ্গীর চাপে পড়েই বোন তাঁর বিরুদ্ধে মিথ্যা অভিযোগ তুলছেন। সোমবার এমনই দাবি করলেন দ্যুতি চন্দের দিদি সরস্বতী চন্দ। এর আগে দ্যুতি তাঁর সমকামী সম্পর্কের কথা স্বীকার করেন। এবং তাঁর পরিবার এই সম্পর্কের কারণে তাঁর থেকে দূরত্ব তৈরি করছে বলেও অভিযোগ করেন। সেই অভিযোগের তির ছিল দিদি সরস্বতীর দিকে। সোমবার বোনের অভিযোগই খারিজ করে পাল্টা দ্যুতির সঙ্গীর বিরুদ্ধে অভিযোগ তুললেন সরস্বতী চন্দ।

এশিয়ান গেমসে পদকজয়ী ভারতীয় মহিলা অ্যাথলিট দ্যুতি চন্দই প্রকাশ্যে নিজের সমকামী সম্পর্কের কথা স্বীকার করেন। তিনি নিজেই জানান ওড়িশায় চাকা গোপালপুরে তাঁর বাড়ির কাছেই এক মহিলার সঙ্গে তাঁর সম্পর্ক রয়েছে। তাঁর সঙ্গেই দ্যুতি থাকতে চান। সেই মহিলার পরিচয় অবশ্য প্রকাশ করতে চাননি তিনি। একই সঙ্গে দ্যুতি জানিয়েছেন, তাঁর পরিবার এই সম্পর্ক মেনে নিতে চাইছে না। ফলে পরিবারের সঙ্গে দিন দিন দূরত্ব বাড়ছে দ্যুতির।

দ্যুতির দিদি নিজেও একজন অ্যাথলিট। তাঁর বিরুদ্ধে দ্যুতির অভিযোগ, মা-বাবা আগে তাঁর পাশেই ছিলেন। কিন্তু দিদির জন্যেই আজ তাঁদের সঙ্গে দ্যুতির দূরত্ব বাড়ছে। তাঁর টাকায় তৈরি বাড়ি থেকে দিদি আজ তাঁকে বের করে দেওয়ার হুমকি দিচ্ছে বলে দ্যুতি অভিযোগ করেছেন।  দ্যুতি ও তাঁর সঙ্গীর সম্পর্ক ভাঙার জন্যই এসব করছেন সরস্বতী। দিদির জটিল মানসিকতার জন্যেই তাঁদের বৌদি বাড়ি ছেড়েছেন বলে অভিযোগ করেছেন দ্যুতি।

আরও পড়ুন : নিজের সমকামী সম্পর্কের কথা জানালেন ভারতের দ্রুততম মহিলা

আরও পড়ুন : ১০ হাজার বছরের পুরনো চিউইং গামে মানুষের ডিএনএ

দ্যুতি যা অভিযোগ তুলেছেন, তার সবই অস্বীকার করে সরস্বতীবলেছেন, এই সবই বোনকে চাপ দিয়ে বলানো হচ্ছে। দ্যুতি ফাঁদে পড়েছে। দ্যুতির সম্পত্তির জন্যই তাঁকে চাপ দিয়ে ব্ল্যাকমেল করে এই সব বলানো হচ্ছে। দ্যুতির প্রাণ ও সম্পত্তি বাঁচাতেই তিনি সরকারের দ্বারস্থ হয়েছেন। ২০২০-তে অলিম্পিকে ভাল ফল করার দিকে নজর না দিয়ে এই সব করতে হচ্ছে দ্যুতিকে।