• সুমিত ঘোষ
সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে

সৌরভ আজ ৪৮, তবে জন্মদিন পালন স্থগিত

এশিয়া কাপ বাতিল, দেশে না হলে বিদেশে আইপিএল

SG
সতর্ক: জন্মদিনের লগ্নেও মুখাবরণ সঙ্গী সৌরভের। উদ্বেগের মধ্যেও আশাবাদী।

করোনাভাইরাস অতিমারির জেরে আজ, ৮ জুলাই, তাঁর ৪৮তম জন্মদিন পালন বন্ধ। বলে দিচ্ছেন, এটা উৎসবের সময় নয়। ক্রিকেটের প্রত্যাবর্তন দেখতে অবশ্য আজ এক ঘণ্টা আগে টিভির সামনে বসবেন ভারতীয় ক্রিকেট বোর্ডের প্রেসিডেন্ট। আইপিএল কী হবে? টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপ নিয়ে গড়িমসি করছে কেন আইসিসি? সব প্রশ্নের সামনে অকপট ‘বার্থ ডে বয়’ সৌরভ গঙ্গোপাধ্যায়।    

প্রশ্ন: জন্মদিনের শুভেচ্ছা। বিশেষ দিন নিয়ে পরিকল্পনা কী?

সৌরভ গঙ্গোপাধ্যায়: কোনও পরিকল্পনা নেই। জন্মদিন পালন কিছু করছি না। নো বার্থডে সেলিব্রেশন। এটা উৎসব করার সময় নয়।  

প্র: খেলার সময়ে এমন অনেক জন্মদিন গিয়েছে, যখন আপনি বাইরে। বাড়িতে কাটানো সম্ভব হয়নি। এখন বাড়িতে থেকেও পালন করা হচ্ছে না।

সৌরভ: কোনও দিনই খুব হইহুল্লোড় করে জন্মদিন পালন করিনি। বাড়িতে থাকলে ছোটাখাটো করে সারা হয়েছে। হয়তো কয়েক জন বন্ধুবান্ধব এসেছে, ব্যস। খুব একটা বার্থডে পার্টি-টার্টি কোনও দিনই করিনি। আর এ বারে তো আমরা সকলেই এমন একটা সময়ের মধ্যে দিয়ে যাচ্ছি, অকল্পনীয়! বছরের শুরুতে কেউ ভাবতে পেরেছে, চার মাস ধরে এ ভাবে আটকে থাকতে হবে! আরও কত দিন এমন পরিস্থিতি চলবে, কেউ জানে না! যত ক্ষণ না প্রতিষেধক বেরোচ্ছে, পরিস্থিতি স্বাভাবিক হওয়ার সম্ভাবনা কম।  

প্র: ভারতীয় ক্রিকেটে খেলা শুরু করার কোনও ভাবনাচিন্তা চলছে?

সৌরভ: আমরা চেষ্টা করছি আইপিএল করার। তবে নানা বিষয়ের উপরে তা নির্ভর করবে। টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপ হয় কি না, দেখার। দু’টো বড় টুর্নামেন্ট এই কঠিন পরিস্থিতিতে, এত অল্প সময়ের মধ্যে জায়গা করানো কঠিন হবে। তার চেয়েও বড় কথা, করোনা নিয়ে পরিস্থিতি কী দাঁড়ায়, সেটা দেখতে হবে। এই মুহূর্তে সব চেয়ে গুরুত্বপূর্ণ হচ্ছে, মানুষের সুরক্ষা এবং নিরাপত্তা। তার সঙ্গে আপস করে কোনও কিছু করা হবে না। জীবনের চেয়ে গুরুত্বপূর্ণ কিছু নয়। খেলার অনেক সময় রয়েছে। 

আরও পড়ুন: সতর্ক স্টোকস, নতুন নিয়মে তৈরি হোল্ডার

প্র: মেলবোর্নে নতুন করে লকডাউন শুরু হয়েছে। টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপ তাতে আরওই অনিশ্চিত। 

সৌরভ: টুর্নামেন্ট করার পরিকল্পনা থাকলে মেলবোর্নকে ছাড়াই করতে পারে আইসিসি। বিশ্বকাপ হবে কি না, তা পুরোপুরি আইসিসির সিদ্ধান্ত। 

প্র: আইসিসি বিশ্বকাপ নিয়ে চূড়ান্ত সিদ্ধান্তও নিচ্ছে না। এতে নানা মহলে অসন্তোষও তৈরি হচ্ছে।

সৌরভ: আইসিসি হয়তো চেষ্টা করছে, সব দিক ভাল ভাবে দেখে নিতে যে, বিশ্বকাপ আয়োজনের আর কোনও সম্ভাবনা আছে কি না। বিশ্বকাপ থেকে হওয়া মুনাফা থেকে সব দেশকে আর্থিক অনুদানও দেওয়া হয়। তা থেকে ক্রিকেট উন্নয়নের অনেক কাজ হয়। নানা দিক নিয়ে ভাবতে হচ্ছে। তাই হয়তো আইসিসি চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত নিয়ে উঠতে পারেনি। 

প্র: আইপিএল না হলে ভারতীয় বোর্ডের কত টাকা ক্ষতি হতে পারে?

সৌরভ: আমাদের হিসাব অনুযায়ী, চার হাজার কোটি টাকা মতো ক্ষতি হবে আইপিএল না হলে। 

আরও পড়ুন: ধোনি ৩৯, দশ বছরের মধ্যে হবেন সিএসকে ‘বস’

প্র: যদি আইপিএল হয়, বিদেশে আয়োজন করা হতে পারে? 

সৌরভ: হ্যাঁ, হতে পারে। আমরা চেষ্টা করছি, দেশেই করার। আবারও বলছি, সেটা সম্পূর্ণ ভাবে নির্ভর করবে দেশের পরিস্থিতির উপরে। অক্টোবর-নভেম্বরে যদি টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপ না হয় এবং আমাদের দেশের পরিস্থিতিতে অনেকটা উন্নতি হয়, তা হলে দেশেই আইপিএল করার কথা ভাবা যেতে পারে।

প্র: যদি আইপিএল বিদেশে নিয়ে যেতে হয়, কোনও বিকল্প দেশ ভেবে রাখা হচ্ছে কি? 

সৌরভ: শ্রীলঙ্কা আর দুবাই নিয়ে কথাবার্তা চলছে। তবে আমাদের প্রথম পছন্দ অবশ্যই নিজেদের দেশে করা। যদি পরিস্থিতির উন্নতি হয় তবেই তা সম্ভব। আইপিএলে যে আটটা শহরের দল খেলে, তার মধ্যে পাঁচটা শহরেই করোনার প্রকোপ সাংঘাতিক। সেটাও মাথায় রাখতে হবে। 

(শ্রীলঙ্কা বা সংযুক্ত আরব আমিরশাহিতে যে আইপিএল করার দরজা খোলা রাখা হচ্ছে, সেই খবর প্রথম প্রকাশিত হয় আনন্দবাজারেই)

প্র: নিউজ়িল্যান্ডের কথাও শোনা গেল মাঝে। সেখানেও হতে পারে?

সৌরভ: কঠিন। নিউজ়িল্যান্ডের সঙ্গে সময়ের এত তফাত! 

প্র: ১১৭ দিন বাদে আন্তর্জাতিক ক্রিকেট ফিরছে। সাউদাম্পটনে আজ থেকে ইংল্যান্ড-ওয়েস্ট ইন্ডিজ টেস্ট। 

সৌরভ: আমি খুব আগ্রহ নিয়ে এই টেস্টের দিকে তাকিয়ে রয়েছি। যদি সব কিছু ঠিকঠাক চলে এই টেস্টে, তা হলে অন্যান্য অনেক দেশ সাহস পাবে। আমার সঙ্গে ইংল্যান্ড ক্রিকেট বোর্ডের কলিন গ্রেভসের কথা হচ্ছিল। উনি বলছিলেন, প্রচুর সাবধানতা নেওয়া হয়েছে, টেস্ট ম্যাচটা করার জন্য। সাউদাম্পটনের মাঠের মধ্যে হোটেলে সকলকে রাখা হচ্ছে। টেস্ট চলাকালীন কেউ সেখান থেকে বেরোবে না, কাউকে ঢুকতে দেওয়া হবে না। এখনও পর্যন্ত কোনও সংক্রমণের খবর আসেনি। আমার কোনও সন্দেহ নেই যে ক্রিকেট বিশ্বের অনেকের চোখ থাকবে সাউদাম্পটনের দিকে। আমি খেলা শুরুর এক ঘণ্টা আগে থেকে টিভির সামনে বসব এটা দেখার জন্য যে, ওরা কী ভাবে সব আয়োজন করছে।  

প্র: করোনার জেরে লালা, থুতু ব্যবহারের উপর যে নিষেধাজ্ঞা জারি হয়েছে, তা নিয়ে আপনার কী মত?

সৌরভ: আপাতত তো এ সব বন্ধই রাখতে হবে। সন্দেহ নেই, সুইং বোলিংয়ের উপর তার প্রভাব পড়তেই পারে। তবে এই টেস্টে আমরা দেখে নিতে পারব। ইংল্যান্ডের দলে ভাল পেসার রয়েছে। তাই ওদের বোলিং দেখলে একটা ধারণা পাওয়া যাবে। তবে প্রতিষেধক বেরিয়ে গেলে এই সমস্যাগুলো আর হবে না।

প্র: স্টেডিয়ামের মধ্যে হোটেল, সেখানেই সবাইকে নিভৃতবাসে রেখে ম্যাচের আয়োজন করো। এটাই কি খেলার ভবিষ্যৎ হতে যাচ্ছে?

সৌরভ: প্রতিষেধক না বেরোনো পর্যন্ত হয়তো আমাদের এ রকম ভাবে চলতে হবে। হয়তো এ বছরের ক্রিকেটে আমরা এটা দেখব। তার পরে করোনার প্রকোপ কমতে থাকলে, প্রতিষেধকের খোঁজ পেলে পরিস্থিতি আগের মতো হয়ে যাবে। আমি আশাবাদী, সব কিছু আবার আগের মতো ঠিক হয়ে যাবে। 

প্র: বিদেশে ফুটবল শুরু হয়েছে, ইংল্যান্ড-ওয়েস্ট ইন্ডিজ টেস্ট শুরু হচ্ছে আজ, বুধবার থেকে। কবে নাগাদ বিরাট কোহালি, রোহিত শর্মাদের ফের মাঠে দেখা যেতে পারে? এশিয়া কাপে?

সৌরভ: এশিয়া কাপ বাতিল হয়ে গিয়েছে। এ বারে আর হচ্ছে না। আমরা আইসিসি-র সিদ্ধান্তের জন্য অপেক্ষা করছি। দেখা যাক, কবে ওরা চূড়ান্ত ঘোষণা করে। তার পরে আইপিএল নিয়ে আমরা সিদ্ধান্ত নেব। আমরা মাথায় রাখছি, যদি অক্টোবর-নভেম্বরের দিকে পরিস্থিতির উন্নতি হলে আইপিএল করা যায়। এই মুহূর্তে তার আগে ক্রিকেট শুরু হওয়ার সম্ভাবনা দেখছি না। 

সবাই যা পড়ছেন

সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে
আরও পড়ুন

সবাই যা পড়ছেন

আরও পড়ুন